ওয়াজ শুনতে গিয়ে জেএসসি পরীক্ষার্থী ধর্ষণের শিকার|188666|Desh Rupantor
logo
আপডেট : ২৩ ডিসেম্বর, ২০১৯ ২০:১৫
ওয়াজ শুনতে গিয়ে জেএসসি পরীক্ষার্থী ধর্ষণের শিকার
সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি

ওয়াজ শুনতে গিয়ে জেএসসি পরীক্ষার্থী ধর্ষণের শিকার

সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়ার বড়হর ইউনিয়নের পুরানধুঞ্চি গ্রামের এক জেএসসি পরীক্ষার্থী রোববার রাতে ওয়াজ শুনতে গিয়ে ধর্ষণের শিকার হয়েছে।

ধর্ষণের শিকার ওই ছাত্রী জানায়, গত ১ মাস আগে কামারখন্দ উপজেলার ঝাঐল ইউনিয়নের চর বড়ধুল গ্রামের বেল্লাল প্রামাণিকের কলেজ পড়ুয়া ছেলে রাজিব প্রামাণিক (২০) তাদের বাড়ির পাশের একটি নির্মাণাধীন ভবনের রঙের কাজ করতে যায়। সেই সুবাদে রাজিবের সঙ্গে তার পরিচয় হয়। সেই থেকে রাজিব প্রায়ই তাকে ফোন করে বিয়ে করার প্রস্তাব দেয়।

মেয়েটি আরও জানায়, রোববার রাতে সে তার এক ভাবির সঙ্গে গ্রামে অনুষ্ঠিত ওয়াজ মাহফিল শুনতে যায়। রাত ১১টার দিকে রাজিব সেখানে হাজির হয়ে তাকে জানায় যে, তার মা তাকে দেখতে চেয়েছেন। সে সরল বিশ্বাসে তার মোটরসাইকেলের পেছনে উঠলে তাকে বড়ধুল হাটখোলার পাশের একটি স্কুলের সামনের মুদি দোকানে নিয়ে যায়। সেখানে তাকে আটকে রেখে ভয়ভীতি দেখিয়ে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। এতে সে অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে বড়কুড়া ব্রিজের কাছে ফেলে রেখে রাজিব পালিয়ে যায়। পরে তার আত্মীয়স্বজন সেখান থেকে তাকে উদ্ধার করে সিরাজগঞ্জের ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব জেনারেল হাসপাতালে মেডিকেল পরীক্ষার জন্য নিয়ে ভর্তি করে।

 

ধর্ষণের শিকার ছাত্রীর চাচা জানান, ধর্ষিতার বাবা বাদী হয়ে রাজিবের বিরুদ্ধে কামারখন্দ থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন। মেডিকেল পরীক্ষায় ধর্ষণের প্রমাণ পাওয়া গেলে এটি ধর্ষণ মামলা হিসেবে রজু হবে।

এ বিষয়ে কামারখন্দ থানার ওসি হাবিবুল ইসলাম জানান, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। এ ছাড়া এ ঘটনায় ধর্ষিতার বাবা বাদী হয়ে রাজিবের বিরুদ্ধে থানায় একটি অভিযোগ দাখিল করেছে। এ বিষয়ে তদন্ত পূর্বক ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

এদিকে চরবড়ধুল গ্রামে রাজিবের বাড়িতে গিয়ে দেখা যায় বাড়িঘর তালা দিয়ে পরিবারের সবাই পালিয়ে অন্যত্র আত্মগোপন করেছেন।