সাবেক প্রধান বিচারপতি মাহমুদুল আমীন চৌধুরীকে সুপ্রিম কোর্টে শেষ শ্রদ্ধা|188679|Desh Rupantor
logo
আপডেট : ২৩ ডিসেম্বর, ২০১৯ ২১:৪৯
সাবেক প্রধান বিচারপতি মাহমুদুল আমীন চৌধুরীকে সুপ্রিম কোর্টে শেষ শ্রদ্ধা
নিজস্ব প্রতিবেদক

সাবেক প্রধান বিচারপতি মাহমুদুল আমীন চৌধুরীকে সুপ্রিম কোর্টে শেষ শ্রদ্ধা

যেখানে কর্মময় জীবনের দীর্ঘ সময় কাটিয়েছিলেন সদ্য প্রয়াত সাবেক প্রধান বিচারপতি মাহদুদুল আমীন চৌধুরী, সেই সুপ্রিম কোর্টে শেষ শ্রদ্ধা পেলেন তিনি।

সোমবার সকাল পৌনে ১০টায় মরহুমের মরদেহ সুপ্রিম কোর্ট প্রাঙ্গণে আনা হয়। এ সময় মরহুমের মরদেহে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানানো হয়। সাড়ে ১০টায় তার জানাজা অনুষ্ঠিত হয়।

বিচারপতি মাহদুদুল আমীন চৌধুরীর স্মৃতিচারণা করে বক্তব্য দেন দায়িত্বপ্রাপ্ত প্রধান বিচারপতি মো. ইমান আলী।

জানাজায় আপিল বিভাগ ও হাইকোর্ট বিভাগের বিচারপতিগণ, অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম, অ্যাটর্নি জেনারেল কার্যালয়ের কর্মকর্তাবৃন্দ, সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সাবেক সভাপতি ও জ্যেষ্ঠ আইনজীবী অ্যাডভোকেট ইউসুফ হোসেন হ‌ুমায়ূন, অ্যাডভোকেট জয়নুল আবেদীন, সমিতির বর্তমান সভাপতি এ এম আমিন উদ্দিনসহ উল্লেখযোগ্যসংখ্যক আইনজীবী অংশ নেন।

বিচারপতি মাহমুদুল আমীন চৌধুরীর প্রতি সম্মান জানাতে এদিন আপিল বিভাগ ও হাইকোর্ট বিভাগের বিচার কার্যক্রম বন্ধ থাকে।

জানাজা শেষে মাহমুদুল আমীন চৌধুরীর মরদেহ সিলেটের উদ্দেশ্য নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে বাদ এশা হজরত শাহজালাল (রঃ) এর মাজার সংলগ্ন কবরস্থানে তার লাশ দাফন করা হয়। এর আগে সকালে ধানমন্ডি তাক্ওয়া মসজিদে মাহমুদুল আমিন চৌধুরীর প্রথম জানাজা অনুষ্ঠিত হয়। গত রবিবার সন্ধ্যায় ধানমন্ডির নিজ বাসভবনে ইন্তেকাল করেন সাবেক প্রধান বিচারপতি মাহমুদুল আমীন চৌধুরী (৮২)।

১৯৩৭ সালের ১৮ জুন সিলেট জেলার গোলাপগঞ্জ উপজেলার রনকেলী গ্রামে জন্ম গ্রহণ করেন মাহমুদুল আমীন চৌধুরী। তিনি সিলেট সরকারি পাইলট উচ্চবিদ্যালয় হতে মেট্রিক, এমসি কলেজ থেকে স্নাতক ডিগ্রি লাভ করেন। এরপর তিনি ঢাকা সিটি ল’ কলেজ হতে এলএলবি ডিগ্রি অর্জন করেন। ১৯৬৩ সালে তিনি আইনজীবী  হিসেবে সিলেট জেলা বারে যোগ দেন। পরবর্তীতে ১৯৮৭ সালের ২৭ জানুয়ারি তিনি হাইকোর্টের বিচারপতি হিসেবে নিয়োগ পান এবং ১৯৯৯ সালের জুন মাসে আপিল বিভাগের বিচারপতি হিসেবে শপথ নেন। ২০০১ সালের ২৮ ফেব্রুয়ারি  দেশের দশম প্রধান বিচারপতি লতিফুর রহমান অবসর গ্রহণের পর পরদিন ১ মার্চ বিচারপতি মাহমুদুল আমিন চৌধুরী একাদশতম প্রধান বিচারপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন শুরু করেন। ২০০২ সালের ১৮ জুন অবসরে যান তিনি।