মণি সিংহের মৃত্যুবার্ষিকীতে রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রীর বাণী|190008|Desh Rupantor
logo
আপডেট : ৩০ ডিসেম্বর, ২০১৯ ২০:১৯
মণি সিংহের মৃত্যুবার্ষিকীতে রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রীর বাণী
অনলাইন ডেস্ক

মণি সিংহের মৃত্যুবার্ষিকীতে রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রীর বাণী

কমরেড মণি সিংহের ২৯তম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে বাণী দিয়েছেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। 

সোমবার এক বাণীতে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ বলেন, জাতি গঠনে কমরেড মণি সিংহের মতো সৎ ও ত্যাগী রাজনীতিকের অবদান স্মরণীয় হয়ে থাকবে।

তিনি ‘মুক্তিযুদ্ধকালীন প্রবাসী বাংলাদেশ সরকারের’ অন্যতম উপদেষ্টা, উপমহাদেশের কমিউনিস্ট আন্দোলনের পুরোধা এবং বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টির (সিপিবি) প্রতিষ্ঠাতা কমরেড মণি সিংহের ২৯তম মৃত্যু বার্ষিকী উপলক্ষে তার (মণি সিংহ) স্মৃতির প্রতি গভীর শ্রদ্ধা জানিয়ে রাষ্ট্রপতি বলেন, সুদীর্ঘ রাজনৈতিক জীবনে তিনি (মণি সিংহ) ত্যাগের পরাকাষ্ঠা ও রাজনৈতিক সততার অনুকরণীয় দৃষ্টান্ত স্থাপন করে গেছেন।

তিনি বলেন, কমরেড মণি সিংহ ১৯৭১ সালে বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধের পক্ষে আন্তর্জাতিক সমর্থন আদায়ে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালনের পাশাপাশি কমিউনিস্ট পার্টি, ন্যাপ ও ছাত্র ইউনিয়নের কর্মীদের সংগঠিত করে যৌথ গেরিলা বাহিনী গড়ে তোলার মধ্যদিয়ে প্রত্যক্ষযুদ্ধে অসাধারণ অবদান রেখেছিলেন।

রাষ্ট্রপতি বলেন, ১৯০১ সালে জন্মগ্রহণকারী মণি সিংহ ১৯১৭ সালে রুশ বিপ্লবের আদর্শে অনুপ্রাণিত হয়ে ১৯২৫ সালে মার্কসবাদ-লেলিনবাদকে আদর্শ হিসেবে গ্রহণ করেন। ১৯৯০ সালের এই দিনে তিনি মৃত্যুবরণ করেন।

তিনি বলেন, ‘আমাদের মহান নেতা জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সাথে কমরেড মণি সিংহের রাজনৈতিক ও ব্যক্তিগত সম্পর্ক ছিল অত্যন্ত গভীর। তিনি (মণি সিংহ) স্বাধীন বাংলাদেশের পুনর্গঠনেও গুরুত্বপূর্ণ অবদান রেখেছেন।
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তার বাণীতে বলেন, কমরেড মণি সিংহের সংগ্রামী জীবন যুগ-যুগ ধরে তরুণদের আদর্শ ও অনুপ্রেরণার উৎস হয়ে থাকবে।

শেখ হাসিনা বলেন, মহান মুক্তিযুদ্ধে কমরেড মণি সিংহ গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেন। স্বাধীনতার পর যুদ্ধবিধ্বস্ত বাংলাদেশের পুনর্গঠনেও তিনি অবদান রাখেন।

শেখ হাসিনা এই উপমহাদেশের কমিউনিস্ট আন্দোলনের পুরোধা কমরেড মণি সিংহের আত্মার শান্তি কামনা করেন।

খবর: বাসস।