‘পরিবারের ভরণপোষণ করতে না পেরে’ কলেজছাত্রীর আত্মহত্যা|192756|Desh Rupantor
logo
আপডেট : ১৩ জানুয়ারি, ২০২০ ০৯:২৭
‘পরিবারের ভরণপোষণ করতে না পেরে’ কলেজছাত্রীর আত্মহত্যা
কমলগঞ্জ (মৌলভীবাজার) সংবাদদাতা

‘পরিবারের ভরণপোষণ করতে না পেরে’ কলেজছাত্রীর আত্মহত্যা

মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জে মহিবা আক্তার নামে এক কলেজছাত্রী বিষপানে আত্মহত্যা করেছেন। পরিবারে অভাব অনটনের কারণে মেয়েটি আত্মহত্যা করেছে বলে এলাকাবাসী জানিয়েছে।

শনিবার সন্ধ্যা ৬টায় কমলগঞ্জ উপজেলার শমসেরনগর ইউনিয়নের গোবিন্দপুর গ্রামে মর্মান্তিক এ ঘটনা ঘটে।

পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার গোবিন্দপুর গ্রামের জমসেদ মিয়ার বড় সন্তান মহিবা আক্তার (২০) সুজানগর মেমোরিয়াল কলেজে পড়তো। বাবা জমসেদ মিয়া পাঁচ মাস আগে অসুস্থ স্ত্রী, এক ছেলে ও দুই মেয়ে রেখে অন্যত্র চলে যান।

এরপর পরিবারে ভরণপোষণের দায়িত্ব বর্তায় বড় মেয়ে মহিবার ওপর। কলেজে যাওয়া বন্ধ করে দেন তিনি। অসুস্থ মায়ের চিকিৎসা খরচ জোগাতে হিমশিম খেতে হয়।

শনিবার সন্ধ্যা ৬টায় পরিবারের সবার অজান্তে মহিবা বিষপান করেন। পরে এলাকাবাসীর সহযোগিতায় কমলগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

ময়নাতদন্ত শেষে রবিবার বিকেলে পরিবারের কাছে লাশ হস্তান্তর করে পুলিশ। এ ঘটনায় কমলগঞ্জ থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা দায়ের করা হয়েছে।

স্থানীয় ইউপি সদস্য মাসুক মিয়া বলেন, ‘নিহত মহিবা আক্তার নামাজি ছিল। বাবা চলে যাওয়ায় এবং মা অসুস্থ থাকায় পরিবারটি অতিকষ্টে দিনাতিপাত করতো। আমাদের ধারণা হয়তো পরিবারে অভাবের কারণে মেয়েটি আত্মহত্যা করেছে।’

শমসেরনগর পুলিশ ফাঁড়ির উপ-পরিদর্শক (এসআই) আনজির আহমেদ বলেন, ‘অভাবে কারণে মেয়েটি আত্মহত্যা করেছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। ময়নাতদন্ত শেষে লাশ পরিবারে কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।’