রেলস্টেশনে ফেলে যাওয়া বৃদ্ধা এখন হাসপাতালে|192881|Desh Rupantor
logo
আপডেট : ১৪ জানুয়ারি, ২০২০ ০০:০০
রেলস্টেশনে ফেলে যাওয়া বৃদ্ধা এখন হাসপাতালে
চাঁপাইনবাবগঞ্জ প্রতিনিধি

রেলস্টেশনে ফেলে যাওয়া বৃদ্ধা এখন হাসপাতালে

গোমস্তাপুর উপজেলার রহনপুর রেলওয়ে স্টেশনে এক বৃদ্ধা মাকে রেখে পালিয়েছিল স্বজনরা। কনকনে ঠাণ্ডায় টানা ১৪ দিন প্লাটফর্মে থাকার পর গত রবিবার রাতে ওই বৃদ্ধ মাকে নেওয়া হয় হাসপাতালে। সেখানে তিনি এখন মৃত্যুর সঙ্গে লড়ছেন।

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে গতকাল সোমবার সকালে গিয়ে দেখা গেছে, বয়স তার ৮০ কিংবা ৯০। রহনপুর রেলওয়ে স্টেশন এলাকার ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী সিরাজুল ইসলাম বলেন, ‘ওই দিন আমি স্টেশনেই ছিলাম। দেখলাম কয়েকজন ভ্যানে করে মহিলাটিকে নিয়ে এসে স্টেশনে রেখে দিল। জিজ্ঞাস করলাম কী ব্যাপার; তারা কথা বলল না, টান দিয়ে ভ্যান নিয়ে চলে গেল। পরে আমি তাকে উঠিয়ে বিশাল স্টেশনের তেঁতুল গাছের পাশের পরিত্যক্ত ছাউনির নিচে এনে রাখলাম।’

চলমান শৈত্যপ্রবাহে কনকনে ঠাণ্ডায় অসহনীয় যন্ত্রণা আর মৃত্যুর মুখে পড়ে থাকা বৃদ্ধার খবর স্থানীয় প্রশাসনের কাছে গেলে রবিবার রাতে তাকে উদ্ধার করে নেওয়া হয় গোমস্তাপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে। রাতভর চিকিৎসায় কিছুটা সুস্থ হলেও শঙ্কামুক্ত নন বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকরা।

স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসক সালাউদ্দীন বলেন, ‘বৃদ্ধার অবস্থা প্রচণ্ড খারাপ ছিল। আমরা তাকে চিকিৎসা দিচ্ছি। সোমবার সকালে তার অবস্থার উন্নতি হয়েছে। তবে তার কনসাস লেভেলটা স্বাভাবিক পর্যায়ে নেই।’ এদিকে খবর পেয়ে বৃদ্ধা মায়ের পাশে এগিয়ে এসেছেন অনেকেই। রহনপুর পৌরসভার মেয়র তারেক আহমেদ বলেন, ‘ঘটনাটি খুবই অমানবিক। পরিচয় নিশ্চিত না হওয়া পর্যন্ত মেয়র হিসেবে নয়, একজন সন্তান হিসেবে তার পাশে থাকব।’

রহনপুর পৌরসভার পক্ষ থেকে মালতি বেগম নামে এক নারী বৃদ্ধার দেখাশুনার জন্য নিয়োজিত করা হয়েছে।