দিনাজপুরে ৫ বছরের শিশুকে ধর্ষণ|193167|Desh Rupantor
logo
আপডেট : ১৫ জানুয়ারি, ২০২০ ১৩:১৬
দিনাজপুরে ৫ বছরের শিশুকে ধর্ষণ
দিনাজপুর প্রতিনিধি

দিনাজপুরে ৫ বছরের শিশুকে ধর্ষণ

দিনাজপুরের চিরিরবন্দর উপজেলায় ৫ বছরের শিশুকে কৌশলে ডেকে নিয়ে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে মোরসালিন ইসলাম নামের এক যুবকের বিরুদ্ধে।

মঙ্গলবার দুপুর একটার দিকে চিরিরবন্দর উপজেলার অমরপুর ইউনিয়নের মথুরাপুর গ্রামে এই ঘটনা ঘটে।

চিরিরবন্দর থানায় মঙ্গলবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে ওই শিশুর বাবা বাদী হয়ে মোরসালিনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন।

ওই দিন বিকেলেই স্থানীয়রা অভিযুক্তকে আটক করে থানা-পুলিশের হাতে সোপর্দ করেছে বলে জানিয়েছে স্থানীয়রা।

মামলার এজাহার সূত্রে জানা গেছে, গত মঙ্গলবার দুপুরের দিকে ধর্ষণের শিকার হওয়া ওই শিশুটি তার ফুপাতো বোনের সঙ্গে বাড়ির পাশে আঙিনায় খেলা করছিল। এ সময় চিরিরবন্দর উপজেলার অমরপুর ইউনিয়নের মথুরাপুর গ্রামের মো. নুর হোসেনের ছেলে মো. মোরসালিন (২১) সেখানে এসে কৌশলে শিশুটিকে পাশের একটি নির্মাণাধীন বাড়ির ভেতর সিঁড়ির সামনে নিয়ে যায়। সেখানে ধর্ষণের সময় শিশুটির চিৎকারে আশপাশের স্থানীয় লোকজন বিষয়টি টের পায়। স্থানীয়রা ঘটনাস্থলে যেতেই মোরসালিন সেখান থেকে প্রাচীর ডিঙে পালিয়ে যায়। পরে ঘটনাস্থল থেকে শিশুটিকে উদ্ধার করে চিরিরবন্দর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করানো হয়। অবস্থার অবনতি হলে ওই দিনই শিশুটিকে দিনাজপুর এম আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে উন্নত চিকিৎসার জন্য প্রেরণ করা হয়। বর্তমানে শিশুটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রয়েছে।

ধর্ষণের বিষয়ে চিরিরবন্দর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) সুব্রত কুমার সরকার নিশ্চিত করে বলেন, ‘আমরা ইতিমধ্যে ধর্ষক মোরসালিনকে আটক করে থানা হেফাজতে নিয়ে এসেছি। ধর্ষকের বিরুদ্ধে কঠোর আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

এদিকে বুধবার সকালে ধর্ষণের শিকার হওয়া শিশুটিকে দিনাজপুর এম আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে দেখতে যান দিনাজপুরের জেলা প্রশাসক মো. মাহমুদুল আলম ও চিরিরবন্দর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. আয়েশা সিদ্দিকা।

জেলা প্রশাসক মাহমুদুল আলম বলেন, ‘শিশুটিকে দেখে নিজেরই কান্না পাচ্ছে। মানুষ কতটা অমানুষ হলে এ রকম জঘন্য কাজ করতে পারে। যত প্রকার সহযোগিতা লাগে সেটা আমরা করব এবং ধর্ষক যেহেতু আটক হয়েছে তার কঠিন শাস্তি হবে এটা নিশ্চিতভাবে বলা যায়।’