ভালো কনটেন্টের দিকে নজর দিতে হবে|193515|Desh Rupantor
logo
আপডেট : ১৭ জানুয়ারি, ২০২০ ০০:০০
ভালো কনটেন্টের দিকে নজর দিতে হবে
রণ

ভালো কনটেন্টের দিকে নজর দিতে হবে

বাণিজ্যিক ঘরানার সিনেমার প্রতিষ্ঠিত নির্মাতা ইফতেখার চৌধুরী। একাধিক সিনেমার পরিকল্পনা নিয়ে ব্যস্ত তিনি। প্রথমেই শুরু করবেন শাকিব খানকে নিয়ে ‘লন্ডন লাভ’-এর কাজ। সমসাময়িক বিষয়ে তার সঙ্গে কথা বলেছেন রণ

প্রথমে শাকিব খানকে নিয়ে ‘লন্ডন লাভ’...

বেশ কিছু সিনেমার পরিকল্পনা চলছে। তবে আমি এমন পরিচালক যে সিনেমার মুক্তির তারিখ ঠিক না করে সিনেমা করি না। কোরবানির ঈদের মুক্তির জন্য নির্মাণ করতে যাচ্ছি একটি চলচ্চিত্র। নাম ‘লন্ডন লাভ’। তাই সর্বপ্রথম এটি দিয়েই শুরু করতে চাই। এরই মধ্যে সিনেমাটির অনেকখানি কাজ এগিয়েছে। নায়ক হিসেবে শাকিব খানকে চূড়ান্ত করেছি। তবে নায়িকা নিয়ে এখনো কোনো চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত হয়নি। এতে তিনজন নায়িকা থাকবেন। তিনটি চরিত্রের জন্য আমরা কলকাতার নুসরাত জাহান, মিমি চক্রবর্তী, কৌশানী ও বাংলাদেশের বিদ্যা সিনহা মিম, মাহিয়া মাহি ও ববির সঙ্গে কথা বলেছি। শিগগিরই নায়িকা চূড়ান্ত হবে। এটি অনেক বড় বাজেটের সিনেমা হবে। ৯৫ শতাশং শ্যুটিং হবে লন্ডনে। মূলত রোমান্টিক অ্যাকশন ঘরানার সিনেমা এটি। তবে সবচেয়ে মজার বিষয় হচ্ছে, এতে একটি চরিত্র থাকবে যে ভবিষ্যৎ আগেই বলে দিতে পারে। তবে সেই চরিত্রটি নায়ক নাকি নায়িকার, তা আমরা খোলাসা করব না সিনেমা মুক্তির আগ পর্যন্ত। সিনেমায় দেশপ্রেমের বিষয়টিও স্পষ্ট থাকবে। সিনেমাটি প্রযোজনা করবে আইসল্যান্ড ফিল্ম নামের একটি প্রতিষ্ঠান।

কাজের পদ্ধতি আলাদা...

আমাদের দেশে যেভাবে সিনেমা নির্মিত হয়, বাইরে কিন্তু সেভাবে হয় না। আন্তর্জাতিক একজন পরিচালক তার সিনেমার প্রতিটি সেক্টর সম্পর্কে ধারণা রাখেন। আমাদের দেশে তা না হলেও চলে। কিন্তু আমি যেহেতু আমেরিকার সিএসআই থেকে ফিল্ম মেকিংয়ের ওপর মাস্টার্স করে এসেছি, তাই বাইরের সিনেমার পদ্ধতিই আমি অনুসরণ করি। শুধু মিউজিক সেক্টরে আমি তেমন কিছু জানি না। তবে এই কাজটি করতে আমি সবচেয়ে আনন্দ পাই। গীতিকার, সুরকার, সংগীত পরিচালক ও শিল্পীরা মিলে কীভাবে একটি গান তৈরি করে তা আমি উপস্থিত থেকে দেখি। এজন্য এখন মিউজিক নিয়েই অল্প বিস্তর ধারণা পেয়েছি।

সিনেমা নিয়ে ভুল ধারণা...

এখন যেখানে যাই সেখানেই শুনি আমাদের সিনেমার অবস্থা ভালো নয়। সিনেমা হল বন্ধ হয়ে যাচ্ছে। সিনেমা থেকে লগ্নিকৃত অর্থ ফিরে আসছে না। কিন্তু আমি তাদের সঙ্গে একমত নই। এখন পৃথিবী চলছে ডিজিটাল পদ্ধতিতে। এখন সিনেমা হলের ওপর ভরসা করে থাকলে হবে কেন? সিনেমার বর্তমান বাজার বুঝতে হবে। একটি সিনেমা হল থেকে একজন প্রযোজক একটি সিনেমার জন্য কত টাকা পেয়ে থাকেন? সর্বোচ্চ ২ লাখ? এখন শুধু সিনেমা হল নয়, বরং ডিজিটাল প্ল্যাটফর্ম, টিভি স্বত্ব, আন্তর্জাতিক বাজার, ওয়েলকাম টিউন নানাভাবে সিনেমা থেকে আয় করা সম্ভব। তবে তার জন্য প্রয়োজন যুগোপযোগী সিনেমা নির্মাণ। আমাদের শুধু ভালো কনটেন্টের দিকে নজর দিতে হবে। তাহলেই সব সমস্যার সমাধান হয়ে যাবে।