দেশ রূপান্তরে মিলনমেলা|194303|Desh Rupantor
logo
আপডেট : ২১ জানুয়ারি, ২০২০ ০০:০০
দেশ রূপান্তরে মিলনমেলা
নিজস্ব প্রতিবেদক

দেশ রূপান্তরে মিলনমেলা

ব্যাপক উৎসাহ-উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে গতকাল সোমবার জাতীয় দৈনিক দেশ রূপান্তরের প্রথম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপিত হয়েছে। এ উপলক্ষে মন্ত্রী, রাজনীতিবিদ, বুদ্ধিজীবী, শীর্ষ সরকারি কর্মকর্তা, আইনজীবী, সাংবাদিক ও সাংস্কৃতিক অঙ্গনের সদস্যদের উপস্থিতিতে মিলনমেলায় পরিণত হয় রাজধানীর বাংলা মোটরে রূপায়ণ ট্রেড সেন্টারের দেশ রূপান্তর কার্যালয়।

সকাল সাড়ে ১০টায় রূপায়ণ ট্রেড সেন্টারের পঞ্চম তলায় অনুষ্ঠান শুরু হয়। চলে রাত সাড়ে ৯টা পর্যন্ত। দেশ রূপান্তরের উজ্জ্বল ভবিষ্যৎ কামনা করে পত্রিকাটি স্বাধীন নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার পথিকৃৎ হয়ে উঠবে বলে আশা প্রকাশ করেন বক্তারা। অনুষ্ঠানে বিভিন্ন ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানের পক্ষে শুভেচ্ছা গ্রহণ করেন রূপায়ণ মিডিয়া অ্যান্ড কমিউনিকেশন্স লিমিটেড ও রূপায়ণ গ্রুপের চেয়ারম্যান লিয়াকত আলী খাঁন মুকুল, দেশ রূপান্তর সম্পাদক অমিত হাবিব ও প্রকাশক মাহির আলী খাঁন রাতুল।

অনুষ্ঠানে শুভেচ্ছা জানিয়ে বক্তব্য রাখেন ইমেরিটাস অধ্যাপক সিরাজুল ইসলাম চৌধুরী, সাবেক মন্ত্রিপরিষদ সচিব আলী ইনাম মজুমদার, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক ও বর্তমান উপাচার্য ড. আখতারুজ্জামান, গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের ট্রাস্টি ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী, গৃহায়ন ও পূর্তমন্ত্রী শ. ম. রেজাউল করিম, পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান, তথ্যমন্ত্রী হাছান মাহমুদ, খাদ্যমন্ত্রী সাধন কুমার মজুমদার, নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী, আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদ সদস্য সাহারা খাতুন, কৃষক শ্রমিক জনতা লীগ সভাপতি বঙ্গবীর কাদের সিদ্দিকী, আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য বেগম মতিয়া চৌধুরী ও আবদুর রহমান, আইজিপি ড. মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারী, বসুন্ধরা গ্রুপের চেয়ারম্যান আহমেদ আকবর সোবহান, ভাইস চেয়ারম্যান সাফিয়াত সোবহান, আপিল বিভাগের সাবেক বিচারপতি শামসুদ্দিন চৌধুরী মানিক, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইতিহাস বিভাগের অধ্যাপক ড. মুনতাসির মামুন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক নিজামুল হক ভূঁইয়া, ঢাকা কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর নেহাল আহম্মেদ।

অনুষ্ঠানে দেশ রূপান্তরের সাফল্য কামনা করে বিএনপি নেতাদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. আবদুল মঈন খান, আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী, ভাইস চেয়ারম্যান আবদুল আউয়াল মিন্টু ও বরকতউল্লাহ বুলু, বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টামন্ডলীর সদস্য আবদুস সালাম, যুগ্ম মহাসচিব খায়রুল কবির খোকন, সাংগঠনিক সম্পাদক ফজলুল হক মিলন, প্রচার সম্পাদক শহীদ উদ্দীন চৌধুরী এ্যানী, সাবেক সংসদ সদস্য রশিদুজ্জামান মিল্লাত।

বক্তব্য রাখেন জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল (জেএসডি) সভাপতি আ স ম আবদুর রব, নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না ও জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের দপ্তরপ্রধান জাহাঙ্গীর আলম মিন্টু।

শুভেচ্ছা জানিয়ে বক্তব্য রাখেন বিরোধীদলীয় চিফ হুইপ ও জাতীয় পার্টি মহাসচিব মশিউর রহমান রাঙ্গা, বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টির সভাপতি মুজাহিদুল ইসলাম সেলিম, বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি সাইফুল হক ও রাজনৈতিক পরিষদ সদস্য বহ্নিশিখা জামালী, গণসংহতি আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়ক জোনায়েদ সাকি, নিরাপদ সড়ক চাই (নিসচা) আন্দোলনের সভাপতি ইলিয়াস কাঞ্চন প্রমুখ।

পুলিশের পক্ষ থেকে শুভেচ্ছা জানাতে আরও আসেন সাবেক আইজিপি একেএম শহীদুল হক, পুলিশ স্টাফ কলেজের রেক্টর ও অতিরিক্ত আইজিপি শেখ মারুফ হাসান, পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনের ডিআইজি বনজ কুমার মজুমদার, ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) অতিরিক্ত কমিশনার ও কাউন্টার টেররিজম ও ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইম ইউনিটের (সিটিটিসি) প্রধান মনিরুল ইসলাম, অতিরিক্ত কমিশনার কৃষ্ণ পদ রায়, আবদুল বাতেন, সিআইডির ডিআইজি আবুল কালাম আজাদ ও ইমতিয়াজ আহমেদ, ডিএমপির উপকমিশনার ইলিয়াস শরীফ, মাসুদুর রহমান, সহকারী মহাপুলিশ পরিদর্শক সোহেল রানা, পুলিশ হেড কোয়ার্টার্সের সিনিয়র তথ্য অফিসার একেএ কামরুল আহসান, অতিরিক্ত উপকমিশনার (গুলশান বিভাগ) আবদুল আহাদ, সিটিটিসির উপকমিশনার মোহাম্মদ ছানোয়ার হোসেন, র‌্যাব সদর দপ্তরের পরিচালক (অপারেশন) ও র‌্যাব-১-এর অধিনায়ক লে. কর্নেল মো. শফিউল্লাহ বুলবুল, র‌্যাব-১০-এর অধিনায়ক কাইয়ুমুজ্জামান, র‌্যাবের এএসপি মিজানুর রহমান, নৌপুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ফরিদা আক্তার প্রমুখ।

সরকারি দপ্তরের কর্মকর্তাদের মধ্যে প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ সহকারী বিপ্লব বড়ুয়া, গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. শহীদউল্লা খন্দকার, অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী মো. গিয়াসউদ্দিন, তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী মো. খালিহ হোসাইন, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের পরিচালক জসিমউদ্দিন হায়দার, ডা. লেলিন চৌধুরী, চলচ্চিত্র ও প্রকাশনা অধিদপ্তরের (ডিএফপি) মহাপরিচালক ইশতাক হোসেন, প্রধানমন্ত্রীর উপপ্রেস সচিব আশরাফুল আলম খোকন, গণপূর্তের প্রধান প্রকৌশলী ড. গিয়াস উদ্দিন, সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের পক্ষে শুভেচ্ছা জানান মো. জাহাঙ্গীর, দুদকের মহাপরিচালক জাকির হোসেন।

শুভেচ্ছা জানাতে আসেন নাট্যব্যক্তিত্ব আতাউর রহমান, মামুনুর রশীদ, সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের সভাপতি গোলাম কুদ্দুছ, নারীনেত্রী রোকেয়া বেগম, পথনাটক পরিষদের সভাপতি মান্নান হীরা, ঝুনা চৌধুরী, ড. মোহাম্মদ বারী ও বিজ্ঞাপনী সংস্থা এক্সপ্রেশন্স লিমিটেডের পরিচালক সৈয়দ আপন আহসান।

সাংবাদিকদের মধ্যে শুভেচ্ছা জানাতে আসেন জাতীয় প্রেস ক্লাবের সাবেক সভাপতি শফিকুল ইসলাম এমপি, সাধারণ সম্পাদক ফরিদা ইয়াসমিন, কালের কণ্ঠের সম্পাদক ইমদাদুল হক মিলন, ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক মোস্তফা কামাল, ভোরের কাগজ সম্পাদক শ্যামল দত্ত, বাংলাদেশ প্রতিদিনের যুগ্ম সম্পাদক আবু তাহের, বণিক বার্তার সম্পাদক হানিফ মাহমুদ, প্রথম আলোর ব্যবস্থাপনা সম্পাদক সাজ্জাদ শরীফ ও প্রধান বার্তা সম্পাদক লাজ্জাত এনাব মহছি, বিডিনিউজের প্রধান সম্পাদক তৌফিক ইমরোজ খালিদী, সমকালের পক্ষে ফিচার সম্পাদক মাহবুব আজিজ, দৈনিক জাগরণের নির্বাহী সম্পাদক দুলাল আহমেদ চৌধুরী, বাংলানিউজ সম্পাদক জুয়েল মাজহার, বাংলাদেশ প্রতিদিনের পীর হাবীবুর রহমান, ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের (ডিইউজে) সভাপতি আবু জাফর সূর্য ও সাধারণ সম্পাদক সোহেল হায়দার চৌধুরী, সারাক্ষণ মিডিয়ার সম্পাদক স্বদেশ রায়, ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির সভাপতি আবুল কালাম আজাদ ও যুগ্ম সম্পাদক হেলিমুল আলম বিপ্লব, বাংলাদেশ ক্রাইম রিপোর্টার্স অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি আবুল খায়ের, সাধারণ সম্পাদক আসাদুজ্জামান বিকু, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সাখাওয়াত কাওসার, সিনিয়র সাংবাদিক জ ই মামুন, সুপণ রায়, আমাদের নতুন সময়ের পক্ষে মেহরুবা শহীদ ও রানা মিয়া, সময়ের আলোর ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক কমলেশ রায় ও প্রধান প্রতিবেদক হুমায়ুন কবির খোকন, সাবেক ডিইউজে সাধারণ সম্পাদক কুদ্দুস আফ্রাদ।

আরও শুভেচ্ছা জানান রিহ্যাব সহসভাপতি লিয়াকত আলী ভূঁইয়া, বিকাশের পক্ষে রুকসানা জাফর, ক্যাবের উপদেষ্টা অধ্যাপক এম শামসুল আলম, রংধনু গ্রুপের এমডি কাউসার আহমেদ, আল আরাফাহ্ ইসলামী ব্যাংকের ব্র্যান্ড কমিউনিকেশন প্রধান জালাল আহমেদ, সোশ্যাল ইসলামী ব্যাংক লিমিটেড, বাংলালিংক, সিম্পোনি মোবাইল ফোন, ব্যাকপেজ পিআর, ফোরথট পিআর, অ্যাড প্লাস, বেসিক ব্যাংক, পদ্মা ব্যাংক, সাউথইস্ট ব্যাংক বাংলামোটর শাখা ও গ্রে অ্যাডভার্টাইজিংসহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান।

শুভেচ্ছা জানাতে আসেন অভিনেত্রী মৌটুসী বিশ্বাস, জ্যোতিকা জ্যোতি, অভিনেতা ও জাসদ নেতা নাদের চৌধুরী, উপস্থাপিকা মারিয়া নূর, চলচ্চিত্র অভিনেতা সাইমন সাদিক, পরিচালক মোস্তাফিজুর রহমান মানিক, চলচ্চিত্র পরিচালক ইফতেখার চৌধুরী ও ‘কে হবে মাসুদ রানার’ বিজয়ী রাসেল রানা।

শুভেচ্ছা জানান স্বাধীনতা চিকিৎসক পরিষদের (স্বাচিপ) সভাপতি ডা. ইকবাল আর্সলান, মহাসচিব ডা. আজিজ আহমেদ, যুগ্ম মহাসচিব ডা. উত্তম বড়ুয়া, বিজিএমইএ’র সাবেক সভাপতি আনোয়ারুল আলম, ব্যবসায়ীদের মধ্যে মিজান গ্রুপের চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান, ওএমসি মিডিয়ার এমডি বোরহান ইউসুফ, ইউজিসি কর্মকর্তা মৌলি আজাদ, ছাত্রলীগ সভাপতি আল নাহিয়ান খান জয়, ছাত্রলীগের ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সভাপতি সনজিত চন্দ্র দাস, সাংগঠনিক সম্পাদক সাদ বিন কাদের চৌধুরী।

শুভেচ্ছা জানাতে আসেন জ্যেষ্ঠ আইনজীবী অ্যাডভোকেট সুব্রত চৌধুরী, মানবাধিকার ও পরিবেশবাদী সংগঠন হিউম্যান রাইটস অ্যান্ড পিস ফর বাংলাদেশের (এইচআরপিবি) সভাপতি অ্যাডভোকেট মনজিল মোরসেদ, ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল এ কে এম আমিনউদ্দিন মানিক, সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী ব্যারিস্টার তুরিন আফরোজ, ব্যারিস্টার ফারজানা মাহমুদ, চিলড্রেন চ্যারিটি ফাউন্ডেশন বাংলাদেশের (সিসিবি) চেয়ারম্যান ব্যারিস্টার এম আবদুল হালিম, সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী ব্যারিস্টার জ্যোতির্ময় বড়ুয়া, অ্যাডভোকেট এ এম জামিউল হক ফয়সাল।

শুভেচ্ছা জানান ঢাকা সংবাদপত্র হকার্স সমিতির সভাপতি মোস্তফা কামাল, সংবাদপত্র হকার্স বহুমুখী কল্যাণ সমিতির সভাপতি শাহাবুদ্দীনসহ সংবাদপত্র পরিবহন সমিতির নেতারা। আরও শুভেচ্ছা জানাতে আসেন পল্লী কর্মসহায়ক ফাউন্ডেশনের সুহা শংকর চৌধুরী, রঙ বাংলাদেশের তৌসিক আহম্মেদ, মেধা বিকাশ বাংলাদেশের মহাসচিব আলমগীর হোসেন প্রমুখ।

কোয়ালিটি ছাড়া পত্রিকা টিকবে না : বসুন্ধরা চেয়ারম্যান

দেশের শীর্ষস্থানীয় শিল্পগোষ্ঠী বসুন্ধরা গ্রুপের চেয়ারম্যান আহমেদ আকবর সোবহান বলেছেন, দেশে অনেক পত্রিকা রয়েছে, আরও আসবে। কোয়ালিটি ছাড়া কেউই টিকে থাকতে পারবে না। আমরা আশা করছি, দেশ রূপান্তর এ মান অর্জন করতে পারবে। গতকাল রাজধানীর বাংলা মোটরে রূপায়ণ ট্রেড সেন্টারে দেশ রূপান্তর পত্রিকার প্রথম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর অনুষ্ঠানে এ কথা বলেন তিনি।

আহমেদ আকবর বলেন, ‘আমরা ব্যবসায়ী। মিডিয়ায় এসেছি বাংলাদেশের ব্র্যান্ডিং করতে। এজন্য আমরা কাজ করে যাচ্ছি। বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলাদেশ গড়ার স্বপ্নপূরণে তার কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দিনরাত কাজ করে যাচ্ছেন।’ তিনি আরও বলেন, ‘আগে আমরা ব্যবসায়ীরা চিন্তায় থাকতাম আগুন দেওয়া হতো, বাস পোড়ানো হতো। সেসব থেকে আমাদের মুক্ত করেছেন প্রধানমন্ত্রী। আশা করছি, শিগগিরই আমরা বাংলাদেশকে উন্নত দেশ হিসেবে বিশ্বদরবারে ব্র্যান্ডিং করতে পারব।’ এর আগে রূপায়ণ মিডিয়া অ্যান্ড কমিউনিকেশন্স লিমিটেডের চেয়ারম্যান লিয়াকত আলী খাঁন মুকুলের হাতে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানান তিনি।