‘ছপাক’ নিয়ে বিপাকে|194422|Desh Rupantor
logo
আপডেট : ২২ জানুয়ারি, ২০২০ ০০:০০
‘ছপাক’ নিয়ে বিপাকে
ইফতেখার শুভ

‘ছপাক’ নিয়ে বিপাকে

টিকটক ভিডিওতে দেখা যায় দীপিকা পাড়ুকোন তার রূপসজ্জা বিশেষজ্ঞকে বলছেন, ‘তুমি কি আমার সবচেয়ে প্রিয় তিনটি চরিত্র সেজে দেখাতে পারবে? ‘ওম শান্তি ওম’ সিনেমার শান্তি, ‘পিকু’ সিনেমার পিকু আর ‘ছপাক’ সিনেমার মালতী।’ তারপর দেখা যায়, ফেবি নামের সেই মেকআপ আর্টিস্ট ‘উফফ তেরি আদা’ গানের মিউজিকে এই তিনটি চরিত্র সাজালেন। এভাবেই ৩৯ সেকেন্ডের ভিডিওতে ভক্তদের উদ্দেশে এই তিনটি চরিত্র সাজার চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিয়েছেন দীপিকা পাড়ুকোন। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে দীপিকার এই চ্যালেঞ্জ তীব্র সমালোচনার মুখোমুখি হয়েছে। মালতী কি কেবল ‘লুক’সর্বস্ব? প্রশ্ন তুলেছেন তারা। একজন লিখেছেন, ‘দীপিকা পাড়ুকোন জওহরলাল নেহরু বিশ্ববিদ্যালয়ে (জেএনইউ) গেলেন, আর অমনি আমরা সবাই ভাবলাম, তিনি অন্য সব তারকার মতো নন। তিনি সত্যিই লক্ষ্মী আগারওয়ালের যন্ত্রণা বোঝেন। তাই যদি হতো, তাহলে কি তাকে নিয়ে এই ঠাট্টা করতে পারতেন তিনি? সব লোকদেখানো, ভণ্ডামি।’ আরেকজন লিখেছেন, ‘এই মেকআপ চ্যালেঞ্জের সমস্যা হলো দীপিকা মালতীর ‘লুক’কে কেবল সুন্দর আর প্রিয় বলে প্রমোট করছেন। এর পেছনে হারিয়ে যাচ্ছে মালতীর ট্রমা। তিনি প্রমাণ করলেন, মালতী কেবলই মেকআপের সৃষ্টি। এই প্রমো ‘কুল’ বা ‘কিউট’ নয়। দীপিকার অসংবেদনশীল হৃদয়ের বহিঃপ্রকাশ।’ আরেক টুইটার ব্যবহারকারী লিখেছেন, ‘ছপাক কোনো মেকআপের ছবি নয়। মালতীরূপী লক্ষ্মী আগারওয়ালের বেঁচে থাকার শক্তি, সাহস আর লড়াইয়ের গল্প। আর আপনি পুরোটাকে মেকআপে ঢেকে দিলেন? এসিড-সন্ত্রাসের শিকার মুখকে সুন্দর বলে চ্যালেঞ্জ ছুড়ে কী বোঝাতে চান আপনি? টাকার জন্য কি আপনারা সব পারেন? ধিক্কার।’ একজন লিখেছেন, ‘কে যেন তাকে (দীপিকা পাড়ুকোন) জঘন্য একটা আইডিয়া দিয়েছে। আর তিনি শুনে তা-ই করলেন, কীভাবে সম্ভব!’ ১০ জানুয়ারি মুক্তি পাওয়া ‘ছপাক’ ছবিটি মেঘনা গুলজার পরিচালিত এসিড-সন্ত্রাসের শিকার লক্ষ্মী আগারওয়ালের জীবন থেকে অনুপ্রাণিত।