ভালোবাসা দিবসে পাখির জন্য ভালোবাসা|199029|Desh Rupantor
logo
আপডেট : ১৪ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ১৭:২৮
ভালোবাসা দিবসে পাখির জন্য ভালোবাসা
এস এম রায়হানুল নবী, সিকৃবি প্রতিনিধি

ভালোবাসা দিবসে পাখির জন্য ভালোবাসা

১৪ ফেব্রুয়ারি বিশ্ব ভালোবাসা দিবস। এ দিবসে হাতে ফুল নয় মাটির কলসি নিয়ে ঘুরছেন তারা। কলসির ভেতরে ভাঙা ডালপালা, খড়কুটো দিয়ে তৈরি বাসা। এটি পাখির বাসা। বাঁধা হবে গাছের মগডালে। ভালোবাসা দিবস আর আবদ্ধ নেই শুধু মানুষের মধ্যে। ভালোবাসা এখন সবার। পরিবেশ, প্রকৃতির, পাখপাখালির প্রতিও ভালোবাসা।

এই ব্যতিক্রমী ভালোবাসার নিদর্শন দেখাল সিলেট কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের (সিকৃবি) প্রাণী অধিকার ও জীববৈচিত্র্য নিয়ে কাজ করা একমাত্র সংগঠন ‘প্রাধিকার’। এবারের বিশ্ব ভালোবাসা দিবসে তাদের এই ভালোবাসা ছিল পাখিদের প্রতি।

শুক্রবার সকাল ১০টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের বৈশাখী চত্বরে জড়ো হন পাখিপ্রেমীরা। এ সময় উপস্থিত ছিল প্রাধিকারের সভাপতি আহমেদ রাফি ও সাধারণ সম্পাদক মো. আশিকুর রহমানসহ অন্যান্য সদস্যরা। তা ছাড়া আরো উপস্থিত ছিলেন সিলেট কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন অনুষদের শিক্ষার্থীরা।

‘পাখি বাঁচাও, পরিবেশ বাঁচাও ’ এই স্লোগানকে সামনে রেখে প্রাধিকারের সদস্যরা ক্যাম্পাস প্রাঙ্গণ ও তার আশপাশে টিলার গাছে গাছে পাখির জন্য হাঁড়ি বেঁধে দেয়।

পাখির প্রতি ভালোবাসা প্রদর্শনের জন্য এমন উদ্যোগ নেয়া হয়েছে বলে জানান তারা।

প্রাধিকারের সভাপতি আহমেদ রাফি বলেন, দিন দিন আমাদের চারপাশে বন-জঙ্গল মারাত্মকভাবে উজাড় হচ্ছে। এতে পাখিশূন্য হয়ে পড়ছে চারপাশ। পাখির বংশবিস্তার, জীববৈচিত্র্য ও পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষা আমাদের সবার দায়িত্ব ও কর্তব্য। পাখি আমাদের জন্য উপকারী হলেও অবহেলিত একটি জীব। পাখি প্রকৃতির ভারসাম্য রক্ষা করে। নানা প্রতিকূলতার কারণে প্রকৃতিতে আজ অনেক প্রজাতির পাখি বিলুপ্ত। তাদের নিরাপদ অভয়ারণ্য সৃষ্টি করার জন্যই এই উদ্যোগ।

প্রাধিকার সূত্রে জানা যায়, বিভিন্ন নির্মাণাধীন ভবনের জন্য প্রতিনিয়ত সিকৃবি ক্যাম্পাসে কমছে পাখির আবাস। পাখিরা যেন তাদের  প্রজনন ধরে রেখে সংখ্যায় বৃদ্ধি পেতে পারে এ উদ্দেশ্য সামনে রেখে ভালোবাসা দিবসে  প্রাধিকারের এই ভিন্নধর্মী আয়োজন।