হারিয়ে যাচ্ছে জোনাকি|199037|Desh Rupantor
logo
আপডেট : ১৪ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ১৯:৩৭
হারিয়ে যাচ্ছে জোনাকি
অনলাইন ডেস্ক

হারিয়ে যাচ্ছে জোনাকি

‘তখন বৃষ্টিভেজা শীতের হাওয়া/বইছে এলোমেলো/তারা একটি-দুটি-তিনটি করে এলো/থই থই থই অন্ধকারে/ঝাউয়ের শাখা দোলে/সেই অন্ধকারে শন শন শন আওয়াজ শুধু তোলে।’ আহসান হাবিবের এই কবিতা যারা শুনেছেন, তাদের কাছে জোনাকি এক আবেগের নাম। শহুরে জীবনে এদের দেখা একটু কম মিললেও একসময় গ্রামে প্রায় প্রতি রাতে তারা চোখে পড়ত। সেই জোনাকিরা এখন অস্তিত্ব সংকটে।

বিজ্ঞানীরা বলছেন, নগরায়ণ যেভাবে উন্মুক্ত প্রকৃতি কেড়ে নিচ্ছে, মানুষ যেভাবে নির্বিচারে কীটনাশক ব্যবহার করছে এবং দূষণ যেভাবে বাড়ছে, তাতে জোনাকির দুই হাজার প্রজাতিই পৃথিবী থেকে বিলুপ্ত হওয়ার ঝুঁকির মধ্যে পড়ছে।

আর রাতের আঁধারে আলো জ্বালা এ পতঙ্গের জন্য একটি বড় শত্রু হয়ে দাঁড়িয়েছে কৃত্রিম আলো। বিজ্ঞান সাময়িকী বায়োসায়েন্সে প্রকাশিত এক গবেষণায় এমন তথ্যই তুলে ধরেছেন গবেষকরা।

গবেষক দলের প্রধান টাফটস ইউনিভার্সিটির জীববিজ্ঞানের অধ্যাপক সারা লুইস সিএনএনকে বলেন, নগরায়ণের প্রভাবে অনেক প্রাণী প্রজাতিই নিজেদের আবাসস্থল হারাচ্ছে। ফলে তাদের অস্তিত্ব ঝুঁকির মুখে পড়ছে।

জোনাকির জন্য দ্বিতীয় সর্বোচ্চ হুমকি হয়ে উঠেছে রাতের বেলায় কৃত্রিম আলো। গত একশ বছরে নগরায়ণের সঙ্গে সঙ্গে কৃত্রিম আলোর ব্যবহার বেড়েছে গুণাত্মক হারে। আর এত আলোর অত্যাচারে জোনাকির বংশ বিস্তার করাই কঠিন হয়ে পড়েছে।

আলোর সংকেতই হলো জোনাকির প্রেমের ভাষা। প্রজাতির পুরুষরা অন্যপক্ষকে এই আলো জ্বেলে সংকেত দেয়। মেয়ে জোনাকিরাও তাতে সাড়া দেয় ছন্দবদ্ধ আলোর সংকেতে। কিন্তু এই যোগাযোগের পথে বাধা হয়ে দাঁড়াচ্ছে ঘরবাড়ি, সড়কবাতি, বিলবোর্ডের উজ্জ্বল আলো। ছন্দপতন ঘটছে তাদের প্রজননে।