উহানের হাসপাতাল পরিচালকের মৃত্যু|199933|Desh Rupantor
logo
আপডেট : ১৯ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ০০:০০
উহানের হাসপাতাল পরিচালকের মৃত্যু
মৃত ১৮৭৩, আক্রান্ত ৭৩ হাজার, আরোগ্য ১২ হাজার
প্রতিদিন ডেস্ক

উহানের হাসপাতাল পরিচালকের মৃত্যু

চীনের উহান শহরের এক হাসপাতাল পরিচালক করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন। গতকাল মঙ্গলবার চীনের রাষ্ট্রীয় টেলিভিশনের খবরে বলা হয়েছে, উহানের উচাং হাসপাতালের পরিচালক ডা. লিউ ঝিমিং সকাল সাড়ে ১০টার দিকে মারা গেছেন।

গত ৭ ফেব্রুয়ারি লি ওয়েনলিয়াং নামে এক চিকিৎসক মারা গেলে শোক প্রকাশ করে চীনের লাখো বাসিন্দা। ভাইরাসটির প্রাদুর্ভাব নিয়ে প্রথম সতর্কবার্তা পাঠিয়ে তলবের মুখে পড়েছিলেন তিনি। ওই চিকিৎসকের মৃত্যুর সময়ের মতো ডা. লিউ ঝিমিংয়ের মৃত্যু নিয়েও চীনে বিভ্রান্তি ছড়িয়ে পড়ে। সোমবার রাতে চীনের ক্ষমতাসীন কমিউনিস্ট পার্টির প্রচার বিভাগের তরফে এক সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে জানানো হয় লিউ ঝিমিং মারা গেছেন। কিন্তু এর কিছুক্ষণ পর অন্য এক পোস্টে জানানো হয় তিনি বেঁচে আছেন। দ্বিতীয় পোস্টে লেখা হয়, ‘লিউর আত্মীয়স্বজনের তথ্য অনুযায়ী এখনো তাকে বাঁচানোর চেষ্টা করছে হাসপাতাল কর্র্তৃপক্ষ।’ তবে গতকাল রাষ্ট্রীয় টেলিভিশন লিউ ঝিমিংয়ের মৃত্যুর ঘোষণা দেওয়ার পর কোনো বার্তা পোস্ট করেনি ওই বিভাগ।

গত সোমবার করোনাভাইরাসে ৭০ হাজারের বেশি আক্রান্তের তথ্য নিয়ে প্রথমবারের মতো বিস্তারিত গবেষণার ফলাফল প্রকাশ করেছে চীনের রোগ নিয়ন্ত্রণ ও প্রতিরোধ কেন্দ্র (সিসিডিসি)। ওই গবেষণায় গত ১১ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত তথ্য ব্যবহার করা হয়েছে। এতে দেখা গেছে মোট ৩ হাজার ১৯ জন স্বাস্থ্যকর্মী করোনাভাইরাসে সংক্রমিত হয়েছেন। এর মধ্যে ১ হাজার ৭১৬ জন নিশ্চিতভাবে আক্রান্ত হয়েছেন। এছাড়া মারা গেছেন পাঁচজন। গবেষণায় ভাইরাসে শিশু ও বৃদ্ধদের সবচেয়ে ঝুঁকিপূর্ণ বলা হয়েছে।

চীনে আরও ৯৮ জনের মৃত্যুর মধ্য দিয়ে নতুন করোনাভাইরাসে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১ হাজার ৮৭৩ জনে। তবে জানুয়ারির পর থেকে সোমবারই প্রথম চীনের মূল ভূখণ্ডে নতুন আক্রান্তের সংখ্যা নেমে এসেছে দুই হাজারের নিচে। চীনের জাতীয় স্বাস্থ্য কমিশনের তথ্য অনুযায়ী, দেশটির মূল ভূখণ্ডে আরও ১ হাজার ৮৮৬ জনের শরীরে নতুন করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ধরা পড়েছে। আগের দিন নতুন রোগীর সংখ্যা ছিল ২ হাজার ৪৮ জন। সব মিলিয়ে চীনে আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৭২ হাজার ৪৩৬ জনে। আর অন্তত ২৬টি দেশে এ ভাইরাস ছড়িয়ে পড়ায় বিশ্বে আক্রান্তের সংখ্যা ৭৩ হাজার ছাড়িয়ে গেছে।

চীনের জাতীয় স্বাস্থ্য কমিশনের তথ্য অনুযায়ী, করোনাভাইরাসে আক্রান্তদের মধ্যে এ পর্যন্ত প্রায় ১২ হাজার মানুষে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরে গেছেন।

এদিকে ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব ছড়িয়ে পড়া অব্যাহত থাকায় শিক্ষার্থীদের এখনই স্কুলে ফিরতে হবে না এবং তাদের অনলাইনের মাধ্যমে পাঠদান করা হবে বলে জানিয়েছে চীনের বৃহত্তম নগরী সাংহাইয়ের কর্র্তৃপক্ষ। মঙ্গলবার এক ব্রিফিংয়ে সাংহাইয়ের শিক্ষা কমিটির প্রধান লু জিং এসব কথা বলেছেন। জিং জানান, করোনাভাইরাস প্রাদুর্ভাবের কারণে সাংহাইয়ে প্রাথমিক ও মাধ্যমিক স্কুলপর্যায়ের শিক্ষা ২ মার্চ থেকে অনলাইনে দেওয়া হবে।