এবার ক্রিকেটার আনুশকা শর্মা|200292|Desh Rupantor
logo
আপডেট : ২১ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ০০:০০
এবার ক্রিকেটার আনুশকা শর্মা
ইফতেখার শুভ

এবার ক্রিকেটার আনুশকা শর্মা

বলিউড অভিনেত্রী আনুশকা শর্মাকে সর্বশেষ বড় পর্দায় দেখা গেছে শাহরুখ খানের বিপরীতে ‘জিরো’ সিনেমায়। এরপর আর কোন সিনেমায় চুক্তিবদ্ধও হননি এই ৩১ বছর বয়সী তারকা। তবে বিরতি পর্বের সমাপ্তি টানছেন ভারতীয় ক্রিকেটের এই ফার্স্ট লেডি। ফিল্মফেয়ারের প্রতিবেদন অনুযায়ী, ভারতীয় জাতীয় নারী ক্রিকেট দলের সাবেক অধিনায়ক ঝুলন গোস্বামীকে পর্দায় জীবন্ত করবেন তিনি।

এত দিন আনুশকা শর্মাকে দেখা গেছে ক্রিকেটের গ্যালারিতে ‘সাবেক প্রেমিক’ ও বর্তমান জীবনসঙ্গী বিরাট কোহলির খেলা দেখতে, অনুপ্রেরণা জোগাতে। আর এবার নিজেই বনে যাবেন অলরাউন্ডার ঝুলন গোস্বামী। এই ক্রিকেটারের বায়োপিকে দেখা যাবে তাকে। ভারতীয় জাতীয় ক্রিকেট দলের অধিনায়ক বিরাট কোহলির সঙ্গে সংসার করতে গিয়ে ইতিমধ্যে ক্রিকেটের অ আ ক খ তো জেনে গেছেন। কতটা কী শিখলেন, তা এবার বড় পর্দায় ব্যাট হাতে ছক্কা হাঁকিয়ে, বল হাতে উইকেট তুলে জানান দেবেন ঝুলনরূপী আনুশকা শর্মা। জানুয়ারির ২০ তারিখে কলকাতার ইডেন গার্ডেনে ঝুলন গোস্বামীর কাছ থেকে আনুশকা শর্মার প্রশিক্ষণ নেওয়ার একটি ছবি ইতিমধ্যে ফাঁস হয়ে গেছে। সূত্র জানিয়েছে, এটা সনি পিকচার্সের সবচেয়ে বড় বাজেট আর আয়োজনের ছবিগুলোর একটি। শিগগিরই একটি ভিডিওর মাধ্যমে এই ছবির অফিসিয়াল ঘোষণা আসবে বলেও জানান তিনি।

১৯৮২ সালের ২৫ নভেম্বর ভারতের পশ্চিমবঙ্গের নদীয়া জেলার চকদাহার ছোট্ট এক গ্রামের আটপৌরে পরিবারে জন্মেছিলেন ঝুলন। বাবা ক্যানটিনে কাজ করতেন। মা ছিলেন গৃহিণী। ছোটবেলায় নায়িকা নয়, গায়িকা নয়, ডাক্তার, ইঞ্জিনিয়ার কিচ্ছু নয়-ফুটবলার হতে চেয়েছিলেন ঝুলন। কিন্তু ১৫ বছর বয়সে তাঁর মনে হলো, ফুটবল নয়, ক্রিকেটই তার প্রকৃত ভালোবাসার নাম।

২০০২ সালের ৬ জানুয়ারি স্বপ্ন সত্যি হয়েছিল ঝুলন গোস্বামীর। সেদিন ইংল্যান্ডের বিপক্ষে একদিনের ক্রিকেটে আন্তর্জাতিক অভিষেক হয়েছিল তাঁর। ঝুলন ২০০৭ সালের বর্ষসেরা আইসিসি নারী খেলোয়াড়। ২০১১ সালের শ্রেষ্ঠ নারী ক্রিকেটার হিসেবে এম এ চিদাম্বরম ট্রফি জেতেন তিনি। নারী ক্রিকেটার হিসেবে ওয়ানডে ক্রিকেট ইতিহাসের সর্বোচ্চ উইকেটশিকারি ভারতের ডানহাতি এই ফাস্ট বোলার ঝুলন গোস্বামী। ক্রিকেট খেললে কী হবে, বলিউডের সিনেমার পোকা ঝুলন। ৩৭ বছর বয়সী এই নারীকে ২০১২ সালে ভারত সরকার ‘পদ্মশ্রী’ উপাধিতে ভূষিত করে। ৫ ফুট ১১ ইঞ্চি উচ্চতার এই ক্রিকেটার ২০১৮ সালে টি-২০ থেকে অবসর নেন।