রিজভীসহ ৬৯ জনের বিরুদ্ধে ‘হত্যাচেষ্টার’ মামলা|200827|Desh Rupantor
logo
আপডেট : ২৩ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ২২:৫৯
রিজভীসহ ৬৯ জনের বিরুদ্ধে ‘হত্যাচেষ্টার’ মামলা
নিজস্ব প্রতিবেদক

রিজভীসহ ৬৯ জনের বিরুদ্ধে ‘হত্যাচেষ্টার’ মামলা

পুলিশ সদস্যদের ‘হত্যাচেষ্টার’ অভিযোগে বিএনপির জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভীসহ ৬৯ জনের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে।

পল্লবী থানার এসআই রবিউল আওয়াল বাদী হয়ে শনিবার মামলাটি দায়ের করেন। তবে পুলিশ এখনো কাউকে গ্রেপ্তার করেনি।

পল্লবী থানা সূত্র জানায়, অনুমতি ছাড়া মিছিল নিয়ে পুলিশের কাজে বাধা ও হামলা এবং ককটেল বিস্ফোরণ ঘটিয়ে পুলিশ সদস্যদের হত্যাচেষ্টার অভিযোগে মামলাটি দায়ের করা হয়েছে।

এ বিষয়ে রুহুল কবির রিজভী শনিবার সাংবাদিকদের বলেন, খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে মিরপুরে শান্তিপূর্ণভাবে মিছিলটি বের করা হয়। এটি কোনো সরকারবিরোধী মিছিল ছিল না, কিন্তু পুলিশ হঠাৎ লাঠিপেটা করে মিছিলটি ছত্রভঙ্গ করে দেয়। এতে অনেক নেতা-কর্মীসহ আমি নিজেও আহত হন।

তবে ঢাকা মহানগর পুলিশের উপকমিশনার (মিরপুর বিভাগ) মোস্তাক আহমেদ বলেছিলেন, বিএনপি নেতা-কর্মীরা পুলিশ দেখে ঘটনাস্থল ত্যাগ করায় তারা কোনো হামলা করেননি।

বাদী ও পল্লবী থানার এসআই রবিউল আওয়াল মামলায় দাবি করেন, শনিবার বেলা ১১টার দিকে পল্লবীর মিরপুর-৬ নম্বর কাঁচাবাজার মসজিদের সামনে তিনি অবস্থান করছিলেন। তখন সংবাদ পান, পল্লবীর ৬ নম্বর সেকশনের ডেসকোর সামনের রাস্তায় খালেদা জিয়া ও তারেক রহমানের মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল থেকে উসকানিমূলক সরকারবিরোধী স্লোগান দেওয়া হচ্ছে।

তিনি দাবি করেন, দেশকে অস্থিতিশীল করতে বড় ধরনের নাশকতার পরিকল্পনা ছিল তাদের। সরকারবিরোধী আন্দোলন জোরদার করতে বিএনপি নেতা রুহুল কবির রিজভীর নেতৃত্বে মিছিলে তারা নিজেদের মধ্যে হট্টগোল ও মারামারি করতে থাকে। একপর্যায়ে একে অপরের ওপর ইটপাটকেল নিক্ষেপ করে। এ সময় রাস্তায় ব্যারিকেড দিয়ে যানবাহন চলাচল বন্ধ করে দেওয়ার চেষ্টা করে। ১১টা ১০ মিনিটের দিকে রাস্তা বন্ধ করতে নিষেধ করা হলে আন্দোলনকারীরা পুলিশকে লক্ষ্য করে ইটপাটকেল নিক্ষেপ করে। পুলিশকে হত্যা করার লক্ষ্যে তিন থেকে চারটি ককটেল বিস্ফোরণ ঘটায়। এরপর তারা ত্রাস সৃষ্টি করে ঘটনাস্থল ত্যাগ করেন।

এজাহারে বলা হয়েছে, বিএনপি ও এর অঙ্গসংগঠনের নেতা–কর্মীদের হামলায় সহকারী উপপরিদর্শক (এএসআই) কামাল হোসেন, পুলিশ কনস্টেবল ফয়জুর রহমান আহত হন। ঘটনাস্থল থেকে পুলিশ বিস্ফোরিত ককটেলের অংশ বিশেষ দুটি চ্যাপ্টা টিনের জর্দার খালি কৌটা, কিছু প্যাঁচানো কালো রঙের স্কচটেপ, কয়েকটি ছোট ছোট পাথরের টুকরা, গাড়ির ভাঙা গ্লাসের অংশবিশেষ, পাঁচটি ভাঙা ইট এবং খালেদা জিয়ার ছবিসহ অন্যান্য ছবি–সংবলিত পাঁচটি ফেস্টুন জব্দ করা হয়েছে।

মামলার এজাহারে নাম থাকা ৬৯ জনের মধ্যে রয়েছেন- বিএনপির ক্রীড়া সম্পাদক আমিনুল ইসলাম, ছাত্রদলের জ্যেষ্ঠ সহসভাপতি রওনকুল ইসলাম, রূপনগর থানা স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি কাউসার হামিদ, স্বেচ্ছাসেবক দলের সাংগঠনিক সম্পাদক ইয়াছিন আলী প্রমুখ।