‘ডুবে ডুবে’ দিয়ে ৪ হাজার টিকটক হয়েছে|201250|Desh Rupantor
logo
আপডেট : ২৬ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ০০:০০
‘ডুবে ডুবে’ দিয়ে ৪ হাজার টিকটক হয়েছে
মাসিদ রণ

‘ডুবে ডুবে’ দিয়ে ৪ হাজার টিকটক হয়েছে

‘দিল আমার’ ও ‘মেঘমিলন’ গান দুটির মাধ্যমে সবার কাছে পরিচিত গায়ক তানজীব সারোয়ার। নিজের গাওয়া বেশির ভাগ গানই তার লেখা ও সুর করা। ভালোবাসা দিবসে প্রকাশ হওয়া তরুণ প্রজন্মের এই গায়কের নতুন মিউজিক ভিডিও ‘ডুবে ডুবে’ বেশ সাড়া ফেলেছে। সমসাময়িক বিষয়ে তার সঙ্গে কথা বলেছেন মাসিদ রণ

প্রত্যাশার চেয়ে বেশি সাড়া...

এখন আমরা প্রায়ই শুনতে পাই, গানের বাজার ভালো না। তাই ‘ডুবে ডুবে’ গানটি যথেষ্ট পরিশ্রম ও মেধা দিয়ে তৈরির পরও খুব বেশি প্রত্যাশা ছিল না। কিন্তু গানটির জন্য প্রত্যাশার চেয়ে বেশি সাড়া পাচ্ছি। শুধু দর্শকই নয়, হাবিব ওয়াহিদ, মিলন মাহমুদসহ সংগীতাঙ্গনের অনেক মানুষ আমাকে ফোন করে তাদের ভালো লাগার কথা জানিয়েছেন। হাবিব ভাই গানটি প্রকাশের আগেই শুনে প্রশংসা করেছিলেন। মিউজিক ভিডিও মুক্তির পর তিনি আবার ফোন করে ভিডিওটির প্রশংসা করেছেন। ভিডিওটি নির্মাণ করেছেন চন্দন রায় চৌধুরী। আমার সঙ্গে মডেল হয়েছেন চিত্রনায়িকা সেমন্তী সৌমী। গানটির কথা ও সুর আমার করা। মিউজিক করেছেন সাজিদ সরকার। গানটি বেরিয়েছে ধ্রুব মিউজিক স্টেশনের ব্যানারে। প্রকাশের প্রথম দিনেই এর পাঁচ লাখ ভিউ হয় ইউটিউবে। এখন এক মিলিয়ন ছাড়িয়ে গেছে। মজার বিষয় হলো গানটি নিয়ে চার হাজারের বেশি টিকটক ভিডিও হয়েছে। বলতে পারেন, আমার সুপারহিট গান ‘দিল আমার’ ও ‘মেঘমিলন’-এর পর এটিই সবচেয়ে জনপ্রিয় গান।

মানের ক্ষেত্রে ছাড় নেই...

আমি খুব কম কাজ করি। কিন্তু যেটা করি সেটা যেন মানের দিক থেকে সব সময় উৎকৃষ্ট হয়, সেই চেষ্টা করি। আমার গানের ভিত্তি হলো ক্লাসিক্যাল মিউজিক। ছায়ানটে দশ বছর তালিম নিয়েছি। ওস্তাদ নুসরাত ফাতেহ আলী খান আমার আইডল।

কিন্তু আমি গায়কিতে সব সময় ক্লাসিক্যাল স্বাদটি রাখতে চাই না। চেষ্টা করি প্রতিটি গানে নিজেকে ভেঙে গড়ে নতুন করে উপস্থাপন করতে। এজন্যই হয়তো দর্শক-শ্রোতা আমার প্রতিটি গান সাদরে গ্রহণ করে।

আসছে আরও চমক...

‘ডুবে ডুবে’র জন্য যে সাড়া পেয়েছি, তাতে ভবিষ্যতের গানগুলো নিয়ে আমি আরও বেশি খুঁতখুঁতে। এরই মধ্যে বেশ কটি গান তৈরি করেছি। এক কথায় বলতে পারি, ভক্তরা আমার কাছ থেকে বেশ কিছু চমক পাবে। যেমন আমি আর বাঁধন সরকার পূজা ‘ফানুস’ শিরোনামের একটি দ্বৈত গান গেয়েছি। এর মিউজিক ভিডিওর সিংহভাগ কাজ শেষ হয়েছে। বাকি শ্যুটিং করতে আমরা রাজস্থানে যাব শিগগির। একটি বড় বাজেটের কাজ হচ্ছে। ফোকশিল্পী অঙ্কনা আমার সঙ্গে একটি দ্বৈত গান গেয়েছেন। এর নাম ‘দুঃখ যত’। এটিরও মিউজিক ভিডিও হবে। একটি মজার গান করেছি একক কণ্ঠে। সেটির মিউজিক ভিডিওর পরিকল্পনা হয়েছে। তাতে মডেল হবে ইউটিউবার তৌহিদ আফ্রিদী। এ ছাড়া নতুন শিল্পী সায়েমের পাঁচটি গানের কথা ও সুর আমি করেছি। দ্বৈত গানে দিলশাদ নাহার কনার সঙ্গে আমার কণ্ঠ খুব ভালো মানায়। তার সঙ্গে এর আগেও কটি গান করেছি। নতুন আরেকটি দ্বৈত গান করার পরিকল্পনা চলছে। এটি মিউজিক ভিডিওসহ বের হবে।