আজাদ রহমানের অন্যতম দশ গান|218779|Desh Rupantor
logo
আপডেট : ১৭ মে, ২০২০ ১১:৫২
আজাদ রহমানের অন্যতম দশ গান
অনলাইন ডেস্ক

আজাদ রহমানের অন্যতম দশ গান

বাংলাদেশি সংগীতজগতের অন্যতম নক্ষত্র আজাদ রহমান চলে গেলেন শনিবার। সুরকার ও গায়ক হিসেবে তিনি উপহার দিয়েছেন অসংখ্য জনপ্রিয় গান। বাংলা সংগীতের প্রসারের তার রয়েছে অনন্য ভূমিকা।

১৯৬৩ সালে কলকাতার ‘মিস প্রিয়ংবদা’ চলচ্চিত্রে সংগীত পরিচালনার মাধ্যমে চলচ্চিত্রে পা রাখেন আজাদ রহমান। ১৯৬৯ সালে বাবুল চৌধুরীর ‘আগন্তুক’-এর মাধ্যমে ঢাকার ছবিতে প্রথম সংগীত পরিচালনা করেন।

চলচ্চিত্র ছাড়াও নানা ঘরানার গান করেছেন আজাদ রহমান। সেখানে থেকে সহজলভ্য দশটি গান শুনে নিন।

‘আগন্তুক’ ছবিতে একদম নতুন শিল্পী খুরশিদ আলমকে ‘বন্দী পাখির মতো মনটা কেঁদে মরে’ গানটি দিয়ে জনপ্রিয়তা পাইয়ে দেন। আর এই গানটি দিয়েই খুরশিদ আলম রাজ্জাকের কণ্ঠ মেলানো গানগুলোর জন্য অপরিহার্য হয়ে যান।

স্বাধীন বাংলাদেশে সোহেল রানার হাত ধরে ‘মাসুদ রানা’ ছবিতে প্রথম সংগীত পরিচালনা করেন। সেই ছবির একটি জনপ্রিয় গান ‘মনের রঙে রাঙাবো’। কণ্ঠ দেন আজাদের স্ত্রী সেলিনা আজাদ।

এরপর সোহেল রানার ‘এপার ওপার’ ছবিতে সংগীত পরিচালনার পাশাপাশি ‘ভালোবাসার মূল্য কত’ গানটিতে কণ্ঠ দিয়ে শ্রোতাদের মন আরও বেশি জয় করে নেন। গানটি গাওয়ার কথা ছিল আব্দুল জব্বারের। কিন্তু দুই সংস্করণের জন্য আলাদা পারিশ্রমিক দাবি করলে আজাদ রহমান নিজেই কণ্ঠ দেন।

সোহেল রানার ‘দস্যু বনহুর’ ছবির ‘ডোরা কাটা দাগ দেখে বাঘ চেনা যায়’ তো বাংলার সিনেমার অন্যতম আইকনিক গান। কণ্ঠ আজাদ রহমানেরই।

আজাদ রহমানের সুরে রুনা লায়লার কণ্ঠ দেওয়া ‘মাগো আমি তোর কান্না আমি সইতে পারি না’ আজও চোখে পানি আনে। ‘আগুন’ ছবিতে শিশুশিল্পীর ঠোঁটে গানটি ব্যবহৃত হয়।

রাজ্জাক অভিনীত ও প্রথম প্রযোজিত সিনেমা ‘অনন্ত প্রেম’ নানা কারণে আলোচিত। এ ছবির জন্য আজাদ রহমান সুরারোপ করেছেন ‘ও চোখে চোখ পড়েছে যখনই’। কণ্ঠ দিয়েছেন খুরশিদ আলম ও সাবিনা ইয়াসমিন।

আরও একটি ক্ল্যাসিক গান ‘এক বুক জ্বালা নিয়ে বন্ধু তুমি’। ‘মাস্তান’ ছবির এই গানে কণ্ঠ দেন আব্দুর জাব্বার।

রুনা লায়লার কণ্ঠে ‘আকাশ বিনা চাঁদ বাঁচিতে পারে না’ ভীষণ জনপ্রিয়তা পায় একসময়। গানটি ব্যবহৃত হয় সুচরিতার অভিষেক সিনেমা ‘যাদুর বাঁশি’তে।

আজাদ রহমান গাওয়া অসাধারণ ঠুমরি ‘বধুয়া আমায় মনে রাখে না’। যেখানে সংগীতের ওপর তার অসাধারণ দখল টের পাওয়া যায় নিমেষে।

খুবই জনপ্রিয় দেশাত্মবোধক গানের একটি ‘জন্ম আমার ধন্য হলো মাগো’। নাইম গহরের কথায় সুর করেছিলেন আজাদ রহমান, কণ্ঠ দেন সাবিনা ইয়াসমিন।