বাফুফে নির্বাচন ৩ অক্টোবর|238108|Desh Rupantor
logo
আপডেট : ১২ আগস্ট, ২০২০ ০০:০০
বাফুফে নির্বাচন ৩ অক্টোবর
ক্রীড়া প্রতিবেদক

বাফুফে নির্বাচন ৩ অক্টোবর

বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের বহুল আলোচিত নির্বাচন ৩ অক্টোবর। গতকাল বাফুফের কার্যনির্বাহী কমিটির ১৯তম সভায় এই সিদ্ধান্ত হয়েছে। ২০ এপ্রিল বাফুফের নির্বাচন হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু করোনা বিস্তারের কারণে অনির্দিষ্টকালের জন্য স্থগিত করা হয় এবং ফিফা বর্তমান কমিটিকেই পরবর্তী নির্বাচনের আগ পর্যন্ত বাফুফের দায়িত্ব পালনের নির্দেশ দেয়।

করোনার কারণে স্থবির হয়ে পড়া দেশের খেলাধুলা সীমিত আকারে চালু করার ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী জাহিদ আহসান রাসেলের ঘোষণার একদিন পর এই সিদ্ধান্ত নিল বাফুফে। তারা জানিয়েছে, নির্বাচনের নতুন তারিখ তারা ফিফা ও সরকারকে চিঠি দিয়ে অবহিত করবে। জাতীয় দল করোনায় ব্যাপকভাবে আক্রান্ত হওয়াটা যখন আন্তর্জাতিক সংবাদ মাধ্যমে নেতিবাচক বার্তা দিচ্ছে, ঠিক তখনই বাফুফে ব্যস্ত হয়ে পড়ল নির্বাচন নিয়ে।

করোনাকালে নির্বাচন ও বার্ষিক সাধারণ সভা আয়োজনের ঝুঁকি অনেক। ১৩৯ জন কাউন্সিলর নির্বাচনে ভোট দেবেন। প্রার্থী, ভোটার, বাফুফের অফিশিয়াল, প্রার্থীদের অনুসারী আর গণমাধ্যমকর্মী মিলিয়ে দিনব্যাপী একটি বড় জমায়েত সচরাচর হয়ে থাকে বাফুফের নির্বাচনে। গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে প্রায় তিন হাজার মানুষ আক্রান্তের খবর মিলেছে। তবে ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রীর ঘোষণায় বাফুফেও বড় একটা আত্মবিশ্বাস পাচ্ছে নির্বাচন আয়োজনের ব্যাপারে। গতকাল সভা শেষে বাফুফের সিনিয়র সহ-সভাপতি আবদুস সালাম মুর্শেদী বলেন, ‘আজ (গতকাল) কার্যনির্বাহী কমিটির সভায় পাঁচজন সদস্য জুমের মাধ্যমে সংযুক্ত ছিলেন। বাকিরা সবাই সশরীরে উপস্থিত ছিলেন। করোনার কারণে ২০ এপ্রিল নির্বাচন অনির্দিষ্টকালের জন্য স্থগিত করার পর ফিফা আমাদের এই কমিটিকে বাফুফে চালিয়ে নেওয়ার দায়িত্ব দেয়, একই সঙ্গে দেশের করোনা পরিস্থিতি উন্নতি হলে নির্বাচন আয়োজনের জন্য বলে। একদিন আগে আমাদের ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী সীমিত আকারে খেলাসহ অন্যান্য কর্মকা- চালুর কথা বলেছেন। তাই আমরা প্রাথমিকভাবে ৩ অক্টোবর বাফুফের বার্ষিক সাধারণ সভা ও নির্বাচন সোনারগাঁও হোটেলে আয়োজনের সিদ্ধান্ত নিয়েছি। এ ছাড়া ক্লাব, জেলা, বিভাগ ও শিক্ষা বোর্ড থেকে মোট ১৩৯ জনের কাউন্সিলর তালিকা সভা অনুমোদন দিয়েছে যারা ভোটাধিকার প্রয়োগ করতে পারবেন।’

সভায় বিগত ২০১৯-২০ সালের অডিট রিপোর্টও বার্ষিক সাধারণ সভায় উত্থাপনের জন্য অনুমোদন দিয়েছে নির্বাহী কমিটি। এ ছাড়া ২০২০-২১ সালের জন্য ৫১ কোটি ৪৪ লাখ ৫০ হাজার টাকার সম্ভাব্য আয়ের বিপরীতে ৫২ কোটি ৩১ লাখ টাকা সম্ভাব্য ব্যয় সম্মিলিত খসড়া বাজেট অনুমোন দিয়েছে কমিটি। এছাড়া আসন্ন অর্থবছরের অডিটের জন্য অডিটর হিসেবে মিজান অ্যান্ড কোং-কে নিয়োগ দিয়েছে বাফুফে। সালাম জানান, প্রিমিয়ার ও চ্যাম্পিয়নশিপ লিগের ক্লাবগুলোর সঙ্গে সভা করে ২০২০-২১ মৌসুমের দলবদল ও খেলা শুরুর তারিখ শিগগিরই চূড়ান্ত করা হবে, ‘করোনার কারণে লিগ অসম্পূর্ণ অবস্থায় মৌসুম বাতিল করা হয়েছিল। এর ফলে ফুটবলাররা ক্লাবগুলোর কাছ থেকে পুরোটা না পেলেও একটা ভালো অঙ্কের পারিশ্রমিক পেয়েছেন। আমরা অচিরেই ক্লাবগুলোর সঙ্গে বসে পরবর্তী মৌসুম শুরুর তারিখ ঘোষণা করব।’

সভায় উপস্থিত বাফুফের সহ-সভাপতি মহিউদ্দিন আহমেদ মহি অডিট রিপোর্ট অনুমোদন হওয়া প্রসঙ্গে বলেন, ‘আমি এবং বাফুফের আরেক সহ-সভাপতি বাদল রায় অডিট রিপোর্টের বেশ কিছু অনিয়ম ও অসংলগ্নতা তুলে ধরে চিঠি দিয়েছিলাম। আজকের (গতকাল) সভায় বলেছি আমাদের অবজারভেশনগুলো উল্লেখ করে অডিট রিপোর্ট অনুমোদন হয়েছে, এটা যাতে সভার কার্যবিবরণীতে লেখা হয়। এই রিপোর্টে অনেক অনিয়ম আছে। এখন কংগ্রেস এটার ব্যাপারে চূড়ান্ত রায় দেবে। করোনাকালে নির্বাচন আয়োজন কতটা যুক্তিযুক্ত হচ্ছে এটা নিয়েও প্রশ্ন তুলেছিলাম সভায়।’