চার রাজ্যে এগিয়ে বাইডেন!|246689|Desh Rupantor
logo
আপডেট : ২০ সেপ্টেম্বর, ২০২০ ০০:০০
চার রাজ্যে এগিয়ে বাইডেন!
রূপান্তর ডেস্ক

চার রাজ্যে এগিয়ে বাইডেন!

যুক্তরাষ্ট্রের চারটি অঙ্গরাজ্যে প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের আগাম ভোট শুরু হয়েছে। গত শুক্রবার স্থানীয় সময় সকাল থেকে মিনেসোটা, ভার্জিনিয়া, সাউথ ডাকোটা ও ওয়াইওমিংয়ে ভোটগ্রহণ শুরু হয়। প্রথম দিনে বিভিন্ন কেন্দ্রে ভোটারদের ব্যাপক উপস্থিতি লক্ষ করা গেছে।

বার্তা সংস্থা রয়টার্স বলছে, মিনেসোটায় জনমত জরিপে এগিয়ে থাকা জো বাইডেনের নির্বাচনী সম্ভাবনার প্রকৃত চিত্র ফুটিয়ে তোলে না। প্রকৃতপক্ষে এখানে এর চেয়েও বেশি এগিয়ে তিনি। সাবেক শিল্পাঞ্চল ‘রাস্ট বেল্ট’ রাজ্য মিশিগান, উইসকনসিন ও পেনসিলভানিয়াতেও ডোনাল্ড ট্রাম্পের চেয়ে এগিয়ে আছেন বাইডেন। ২০১৬ সালের নির্বাচনে এই তিন রাজ্যেই হিলারির কাছ থেকে জয় ছিনিয়ে নিয়েছিলেন ট্রাম্প।

প্রথম দিন ভার্জিনিয়ার ফেয়ারফ্যাক্স ও আরলিংটনের কেন্দ্রগুলোতে ভোটারদের লাইন দেখা যায়। মিনেসোটার মিনিয়াপোলিস শহরের একমাত্র কেন্দ্রে প্রথম আধ-ঘণ্টায় ৪৪টি ভোট পড়ে। কর্মকর্তারা বলছেন, সবাই মাস্ক মুখে দিয়ে ভোট দিতে আসেন।

আগামী ৩ নভেম্বর যুক্তরাষ্ট্রের সব রাজ্যে একযোগে প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ভোট হবে। তবে আগাম ভোটের সুবিধা থাকায় চারটি রাজ্যের নিবন্ধিত ভোটাররা অন্তত ছয় সপ্তাহ আগে পছন্দের প্রার্থী বেছে নেওয়ার সুযোগ পাচ্ছেন। করোনা মহামারীর কারণে এবার আগাম ও ডাকযোগে তুলনামূলক বেশি ভোট পড়বে বলে মনে করা হচ্ছে।আগাম ভোটের দিন মিনেসোটায় নিজ নিজ প্রচারে রিপাবলিকান প্রার্থী ডোনাল্ড ট্রাম্প ও ডেমোক্র্যাট প্রার্থী জো বাইডেন পরস্পরের কড়া সমালোচনা করেন। যুক্তরাষ্ট্রের অর্থনীতির ভয়াবহ দুরবস্থার জন্য ট্রাম্পকে দায়ী করে বাইডেন বলেন, ‘তিনি (ট্রাম্প) দায়িত্ব পালনের অভিনয়টুকুও করতে পারছেন না।’ নির্বাচিত হলে জলবায়ু পরিবর্তন রোধে ব্যবস্থা নেওয়ার পাশাপাশি অবকাঠামো খাতে দুই ট্রিলিয়ন ডলার বিনিয়োগের প্রতিশ্রুতি দেন তিনি। অন্যদিকে বেমিজিদির একটি এয়ারপোর্ট হ্যাঙ্গারে অনুষ্ঠিত সমাবেশে ট্রাম্প বলেন, ‘বাইডেন ও রেডিক্যাল লেফটরা জিতলে মিনেসোটা ধ্বংস হয়ে যাবে।’

২০১৬ সালের নির্বাচনে ট্রাম্প মিনেসোটায় হিলারি ক্লিনটনের কাছে সামান্য ব্যবধানে হেরেছিলেন। জনমত জরিপগুলো বলছে, এবারও রাজ্যে তিনি বাইডেনের তুলনায় বেশ পিছিয়ে আছেন। সম্প্রতি এ রাজ্যেই পুলিশের হাতে কৃষ্ণাঙ্গ জর্জ ফ্লয়েডের নির্মম মৃত্যু ঘিরে গোটা দেশে বিক্ষোভ ছড়িয়ে পড়ে। বিক্ষোভকারীদের প্রতি কঠোর অবস্থান নিয়ে সমালোচিত হন ট্রাম্প। জরিপবিষয়ক ওয়েবসাইট রিয়েলক্লিয়ারপলিটিকসের তথ্যে, এখন পর্যন্ত মিনেসোটায় ট্রাম্পের চেয়ে গড়ে ১০ দশমিক ২ শতাংশ পয়েন্টে এগিয়ে আছেন বাইডেন।