দ্বিতীয় ধাপের পৌর নির্বাচন: ৬০ পৌরসভায় ভোটগ্রহণ শনিবার|270908|Desh Rupantor
logo
আপডেট : ১৫ জানুয়ারি, ২০২১ ২২:৪৬
দ্বিতীয় ধাপের পৌর নির্বাচন: ৬০ পৌরসভায় ভোটগ্রহণ শনিবার
অনলাইন ডেস্ক

দ্বিতীয় ধাপের পৌর নির্বাচন: ৬০ পৌরসভায় ভোটগ্রহণ শনিবার

দ্বিতীয় ধাপে শনিবার ৬০টি পৌরসভার ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। অধিকাংশ নির্বাচনী এলাকায় বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ ও বিএনপির অংশগ্রহণ করছে।

ইতোমধ্যে আওয়ামী লীগের তিন মেয়র প্রার্থী পাবনার ভাঙ্গুরায় গোলাম হাসনাইন, পিরোজপুর সদরে হাবিবুর রহমান মালেক এবং নারায়ণগঞ্জের তারাবো পৌরসভায় হাসিনা গাজী বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন।

শুক্রবার নির্বাচন কমিশনের যুগ্মসচিব (জনসংযোগ) এস এম আসাদুজ্জামান জানান, ৬০টি পৌরসভায় সকাল ৮টায় থেকে শুরু হয়ে ভোটগ্রহণ কোনো বিরতি ছাড়াই বিকাল ৪টা পর্যন্ত চলবে ।

২৯টি পৌরসভায় ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিন (ইভিএম) এবং বাকিগুলোতে ব্যালট পেপার ব্যবহার করে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে।

ভোটকেন্দ্রে শনিবার সকালে ব্যালট পেপার পাঠানো হলেও শুক্রবার ইভিএমগুলো নির্বাচনী এলাকায় পাঠানো হয়েছে।

সব পৌরসভায় আওয়ামী লীগের প্রার্থীরা মেয়র পদে প্রতিদ্বন্দ্বীতা করছেন। তবে ৫৫টি পৌরসভায় বিএনপি সমর্থিত প্রার্থী রয়েছেন। জাতীয় পার্টি ১১-১২ পৌরসভায় মেয়র প্রার্থীদের সমর্থন জানিয়েছে।

ভাঙ্গুরা, পিরোজপুর সদর ও রূপগঞ্জের পাশাপাশি আরও দুটি পৌরসভা সিরাজগঞ্জের বেলকুচি, নেত্রকোণার মোহনগঞ্জে বিএনপির মেয়র প্রার্থী নেই।

শুধুমাত্র মেয়র পদে রাজনৈতিক দলগুলোর নির্বাচনী প্রতীক ব্যবহারের মাধ্যমে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়। অন্যদিকে কাউন্সিলর ও সংরক্ষিত নারী আসনে ভিন্ন প্রতীকে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

৬০টি পৌরসভায় মোট ২১৬ জন মেয়র প্রার্থী রয়েছেন। সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলে ৭২৪ জন এবং ২ হাজার ২৩৪ জন সাধারণ কাউন্সিলর প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

 প্রায় ২২ লাখ লোক তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করবেন বলে আশা করা হচ্ছে।

২২ ডিসেম্বর নির্বাচন কমিশন ৬১টি পৌরসভার দ্বিতীয় ধাপের নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করলেও নীলফামারীর সৈয়দপুর পৌরসভার মেয়র প্রার্থীর মৃত্যুতে ভোটগ্রহণ স্থগিত করা হয়।

ইভিএমে যে সব পৌরসভায় ভোট

দিনাজপুরের বীরগঞ্জ, বগুড়ার সারিয়াকান্দি ও সান্তাহার, নওগাঁর নজিপুর, রাজশাহীর কাঁকনহাট ও আড়ানী, নাটোরের নলডাঙ্গা, সিরাজগঞ্জের কাজীপুর, পাবনার ফরিদপুর, মেহেরপুরের গাংনী, কুষ্টিয়ার কুমারখালী, ঝিনাইদহের শৈলকুপা, বাগেরহাটের মোংলা, মাগুরা সদর, পিরোজপুর সদর, টাঙ্গাইলের ধনবাড়ী, ময়মনসিংহের ফুলবাড়িয়া, নেত্রকোণার কেন্দুয়া, কিশোরগঞ্জের কুলিয়ারচর, ঢাকার সাভার, নরসিংদীর মনোহরদী, নারায়ণগঞ্জের তারাবো, শরীয়তপুর সদর, সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুর, কুমিল্লার চান্দিনা, ফেনীর দাগনভূঞা, নোয়াখালীর বসুরহাট, খাগড়াছড়ি সদর ও গাজীপুরের শ্রীপুর।

ব্যালট পেপারে যে সব পৌরসভায় ভোট

চট্টগ্রামের সন্দ্বীপ, নেত্রকোণার মোহনগঞ্জ, কুষ্টিয়া সদর, কুষ্টিয়ার মিরপুর, মৌলভীবাজারের কুলাউড়া, কুড়িগ্রামের নাগেশ্বরী, গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জ, দিনাজপুর সদর, মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ, কুষ্টিয়ার ভেড়ামারা, গাইবান্ধা সদর, দিনাজপুরের বিরামপুর, পাবনার ভাঙ্গুড়া, সাঁথিয়া, সুজানগর, সুনামগঞ্জ সদর, হবিগঞ্জের মাধবপুর, নবীগঞ্জ, ফরিদপুরের বোয়ালমারী, পাবনার ঈশ্বরদী, বগুড়ার শেরপুর, রাজশাহীর ভবানীগঞ্জ, সিরাজগঞ্জের বেলকুচি, উল্লাপাড়া, সুনামগঞ্জের ছাতক, নাটোরের গোপালপুর, গুরুদাসপুর, বান্দরবানের লামা, সিরাজগঞ্জ সদর, রায়গঞ্জ, কিশোরগঞ্জ সদর, ময়মনসিংহের মুক্তাগাছা।

এর আগে ২৮ ডিসেম্বর ২৪টি পৌরসভায় প্রথম ধাপের ভোট অনুষ্ঠিত হয়েছে। তৃতীয় ধাপে ৬৪টি পৌরসভায় আগামী ৩০ জানুয়ারি এবং চতুর্থ ধাপে ৫৬ পৌরসভায় আগামী ১৪ ফেব্রুয়ারি নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

সূত্র: ইউএনবি।