কোয়ারেন্টাইন সময়সীমায় ফের পরিবর্তন|272565|Desh Rupantor
logo
আপডেট : ২৪ জানুয়ারি, ২০২১ ০০:০০
যুক্তরাজ্যফেরত যাত্রী
কোয়ারেন্টাইন সময়সীমায় ফের পরিবর্তন
নিজস্ব প্রতিবেদক

কোয়ারেন্টাইন সময়সীমায় ফের পরিবর্তন

যুক্তরাজ্যফেরত যাত্রীদের বাধ্যতামূলক প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইনের সময়সীমায় আবারও পরিবর্তন আনা হয়েছে। মহামারী করোনার সংক্রমণ ঠেকাতে নতুন এই সময়সীমা চার দিন থেকে বাড়িয়ে সাত দিন করা হয়েছে। এ নিয়ে মাত্র আট দিনের মাথায় কোয়ারেন্টাইনের সময়সীমায় তিন বার পরিবর্তন আনল সরকার। গতকাল শনিবার রাত ১২টার পর থেকেই এ সিদ্ধান্ত কার্যকর হবে। হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. শাহরিয়ার সাজ্জাদ এ তথ্য নিশ্চিত করেন। 

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, গত ১ জানুয়ারি যুক্তরাজ্যফেরত যাত্রীদের জন্য ১৪ দিনের বাধ্যতামূলক কোয়ারেন্টাইন কার্যকর করা হয়। প্রাথমিকভাবে ১৫ জানুয়ারি পর্যন্ত এই সিদ্ধান্ত বলবৎ রাখা হয়। তবে ১৩ জানুয়ারি একটি প্রজ্ঞাপনে কোয়ারেন্টাইনের সময়সীমা ১৪ দিন থেকে কমিয়ে ৪ দিন করে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়। ৪ দিন পর কভিড-১৯ এর নমুনা পরীক্ষার পর ফলাফল নেগেটিভ এলেই কেবল হোম কোয়ারেন্টাইনে যেতে পারবেন কোনো যাত্রী। আর ফলাফল পজিটিভ এলে তাকে হাসপাতালে আইসোলেশনে পাঠানো হবে বলে প্রজ্ঞাপনে জানানো হয়।

শাহজালালের স্বাস্থ্য কর্মকর্তা শাহরিয়ার আরও জানান, নতুন নিয়মে সরকার নির্ধারিত হোটেলে চারদিন কোয়ারেন্টাইনে থাকার পর যুক্তরাজ্যফেরত যাত্রীদের প্রত্যেকের নমুনা পরীক্ষা করা হচ্ছে। ফলাফল নেগেটিভ হলে তাদের ১০ দিনের হোম কোয়ারেন্টাইনে পাঠানো হচ্ছে। আর পজিটিভ হলে সরকারি কভিড হাসপাতালে পাঠানো হচ্ছে। সে ক্ষেত্রে চিকিৎসা খরচ যাত্রীদের নিজেদেরই বহন করতে হচ্ছে। নতুন এই সময়সীমা কতদিন চলবে, সেটা এখনো ঠিক করা হয়নি। এটা নির্ভর করছে লন্ডনের পরিস্থিতির ওপর।

উল্লেখ্য, গত শুক্রবার সকাল ৮টা থেকে গতকাল শনিবার সকাল ৮টা পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টায় শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে ২৯টি ফ্লাইটে বিশ্বের বিভিন্ন দেশ থেকে মোট ৪ হাজার ৮৬৪ জন যাত্রী দেশে ফেরেন। তাদের মধ্যে ৩৮ জনকে প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইনে পাঠানো হয়। এই ৩৮ জনের মধ্যে ৩৫ জন যুক্তরাজ্য ফেরত রয়েছেন। অপর ৩ জন মেয়াদোত্তীর্ণ করোনা নেগেটিভ সনদ নিয়ে আসায় কোয়ারেন্টাইনে পাঠানো হয়। এ ছাড়া গতকাল শনিবার সকাল ৮টা পর্যন্ত যুক্তরাজ্যফেরত কোয়ারেন্টাইনে পাঠানো যাত্রীসংখ্যা ৭১৪ জনে দাঁড়িয়েছে।