এক ঝলকে|286476|Desh Rupantor
logo
আপডেট : ৮ এপ্রিল, ২০২১ ০০:০০
এক ঝলকে

এক ঝলকে

শাহরুখের চেয়ে এগিয়ে সালমান

২০১১ সালে শোনা গিয়েছিল বিখ্যাত হলিউড তারকা কিম কারদাশিয়ান বলিউডে পা রাখতে আগ্রহী। শাহরুখ খানের বিপরীতে অভিনয়ের অফারও পেয়েছিলেন তিনি। তবে সে সময় এ তারকা এক সাক্ষাৎকারে জানিয়েছিলেন, শাহরুখের তুলনায় সালমানেই বেশি মুগ্ধ তিনি। দীর্ঘ সময় পর আবারও সামনে এসেছে বিষয়টি। বলিউডের দুই সুপারস্টার শাহরুখ ও সালমান অভিনীত সিনেমা দেখেছেন অভিনেত্রী কিম কারদাশিয়ান। এমনকি দুই নায়ক সম্পর্কেই তিনি জেনেছিলেন নানা তথ্য। তবে মুভি দেখার পর শাহরুখের চেয়ে সালমান খানের শারীরিক গঠন এবং সামাজিক কর্মকাণ্ড দেখে কিম বেশি মুগ্ধ হয়েছিলেন। এক প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেছিলেন, ‘আমি বলিউডের সেরা এ দুই নায়কের সঙ্গেই কাজ করতে চাই। কিন্তু প্রথম কাজটি সালমানের সঙ্গে করতে পারলেই আমি বেশি খুশি হবো।’ বলিউড প্রডিউসারদের অনেকেই নাকি চেয়েছিলেন কিমকে নিয়ে আইটেম গানে পারফর্ম করাবেন। যে অফার পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে কিম রাজিও হয়েছিলেন। কিন্তু আইটেম গানে তিনি শাহরুখ বা সালমান ছাড়া অন্য কাউকেই কল্পনা করতে পারছিলেন না। যদিও সে সময় দুজনের একজনকে পাশে পেলেই ‘রাজি’ বলে জানিয়েছিলেন কিম। পরবর্তী সময়ে তা আর হয়নি।

সমালোচকদের অপ্রিয় ক্রিস

হলিউডের সবচেয়ে জনপ্রিয় অভিনেতাদের একজন ক্রিস হেমসওয়ার্থ। পুরো বিশ্বজুড়ে আছে তার ভক্ত। কিন্তু অভিনেতার আক্ষেপ, চলচ্চিত্র সমালোচকরা তাকে অভিনেতা হিসেবে গুরুত্ব দেন না। হেমসওয়ার্থ ‘ই! নিউজ’-এ দেওয়া সাক্ষাৎকারে বলেছেন, চলচ্চিত্রবোদ্ধা ও সমালোচকরা তাকে লিওনার্দো ডিক্যাপ্রিও অথবা ড্যানিয়েল ডে লুইসের কাতারের অভিনেতা মনে করেন না। আর তার কারণ, পেশিবহুল শরীর।

এ অভিনেতা আরও বলেন, ‘বডি বিল্ডিংকে শৌখিনতা মনে করা হয়। আমি যদি চরিত্রের প্রয়োজনে অস্বাস্থ্যকরভাবে ওজন বাড়াই অথবা ত্বকের ক্ষতি করি, তখনই হয়তো আমাকে অভিনেতা হিসেবে গুরুত্ব দেওয়া হবে।’ হেমসওয়ার্থ জানান, ‘থর’ চরিত্রে অভিনয় করা মোটেও সহজ কাজ নয়। ১০ বছর অনুশীলন করে এ চরিত্র সুন্দর করে ফুটিয়ে তুলতে পারছেন তিনি। দিনে ১২ ঘণ্টার বেশি সময় টানা শ্যুটিং করতে হয়। প্রফেশনাল অ্যাথলেটদের মতো শরীর তৈরি করতে হয় এই চরিত্রের জন্য। ক্রিস হেমসওয়ার্থ বর্তমানে ‘থর : লাভ অ্যান্ড থান্ডার’ মুভির শ্যুটিং করছেন। করোনাভাইরাস মহামারীর জন্য এ মুভির শ্যুটিং শুরু করতে পাঁচ মাস দেরি হয়েছে। তবে তাতে ভালোই হয়েছে বলে মনে করছেন তিনি। নিজেকে আরও বেশি প্রস্তুত করে কাজ শুরু করতে পেরেছেন।