ভালো প্রেজেন্টেশন তৈরির কৌশল|297733|Desh Rupantor
logo
আপডেট : ১১ জুন, ২০২১ ০০:০০
ভালো প্রেজেন্টেশন তৈরির কৌশল
বিপুল জামান

ভালো প্রেজেন্টেশন তৈরির কৌশল

শিক্ষার্থী থেকে পেশাজীবী সবাইকেই পাওয়ার পয়েন্ট প্রেজেন্টেশন দিতে হয়। ভালো প্রেজেন্টেশন দেওয়ার দক্ষতা খুবই প্রয়োজনীয় একটি গুণ। অন্য সব দক্ষতার মতো ভালো প্রেজেন্টেশন দেওয়ার দক্ষতাও একদিনে অর্জন করা সম্ভব নয়। কিছু কৌশল ক্রমাগত অনুশীলনের মাধ্যমে অর্জিত হবে স্বতঃস্ফূর্ত প্রেজেন্টেশনের দক্ষতা। লিখেছেন বিপুল জামান

প্রেক্ষাপট ও শ্রোতা

প্রেক্ষাপট ও শ্রোতা ভেদে প্রেজেন্টেশনও ভিন্ন ধরনের হবে। একাডেমিক আলোচনার প্রেজেন্টেশন এক রকম হবে আবার করপোরেট মিটিংয়ের প্রেজেন্টেশন আরেক রকমের হবে। একাডেমিক আলোচনার প্রেজেন্টেশনে তথ্য, উপাত্ত আর্টিকেল, জার্নালের রেফারেন্স ইত্যাদি সংযুক্ত করা খুবই সাধারণ ব্যাপার হলেও করপোরেট মিটিংয়ের প্রেজেন্টেশনে এ ধরনের তথ্য প্রত্যাশিত নয়। প্রেজেন্টেশন তৈরির সময় অবশ্যই শ্রোতার আগ্রহের বিষয়টি মাথায় রাখতে হবে আপনাকে।

একটি স্লাইডে একটি পয়েন্ট

একটি  স্লাইডে একটির বেশি পয়েন্ট আলোচনা করবেন না। আপনি হয়তো কোনো একটি বিষয়ের মোট ১০টি পয়েন্টে কথা বলবেন। একটি স্লাইডে একের বেশি পয়েন্ট নিয়ে আলোচনা করলে আলোচনা থেকে শ্রোতার মনোযোগ হারিয়ে যায়। গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্টের আলোচনার ক্ষেত্রে একটির বেশি স্লাইড ব্যবহার করতে পারেন। এ ক্ষেত্রে লক্ষ রাখতে হবে পর্যাপ্ত সময় আছে কি না এবং শ্রোতাদের জন্য তথ্যগুলো প্রাসঙ্গিক কি না। অপ্রাসঙ্গিক বিষয়  স্লাইডে উল্লেখ করে সময় ও শ্রোতার মনোযোগ নষ্ট করা অনুচিত।

স্লাইডের দিকে তাকিয়ে থাকবেন না

অনেকে প্রেজেন্টেশনের সময় স্লাইডের দিকেই তাকিয়ে থাকে। এতে শ্রোতা বিরক্ত বোধ করেন। মনে রাখতে হবে প্রেজেন্টেশন করছেন আপনিই, স্লাইড না। স্লাইড আপনার সহযোগী টুল মাত্র। শ্রোতারা আপনার কাছ থেকে বিষয়টি শুনতে এবং বুঝতে ইচ্ছুক। স্লাইড তাদের এই প্রক্রিয়া সহজ করতে পারে মাত্র। কিন্তু স্লাইড কখনই প্রেজেন্টারের বিকল্প নয়। তাই প্রেজেন্টেশনের সময় আপনার মনোযোগ স্লাইডের প্রতি নয়, শ্রোতার প্রতি নিবদ্ধ করুন।

একঘেয়ে করে ফেলবেন না

প্রেজেন্টেশনকে একঘেয়ে করে ফেলবেন না। স্লাইড, কথা, স্লাইড, কথা এই চক্রের পুনরাবৃত্তি শ্রোতার মনে বিরক্তি উৎপাদন করতে পারে। শ্রোতাকে প্রশ্ন করার বা তার মতামত প্রকাশের সুযোগ দিন।

ফন্ট সাইজ

স্লাইডের ফন্ট সাইজ খুব বড় বা খুব ছোট করবেন না। শ্রোতামণ্ডলী সবাই যেন সহজেই স্লাইডের লেখা পড়তে পারেন সেদিকে খেয়াল রেখে ফন্ট নির্বাচন করুন। সব স্লাইডের ফন্ট একই রাখার চেষ্টা করুন। ব্যাকগ্রাউন্ড ও ফন্টের কালার যেন মিলে না যায় সেদিকে খেয়াল রাখুন। কটকটে ব্যাকগ্রাউন্ড বা উদ্ভট ফন্ট ব্যবহার করে শ্রোতার বিরক্তি উৎপাদন করবেন না।

নিজেকে শ্রোতার জায়গায় ভাবুন

প্রেজেন্টেশনের পূর্বে নিজে নিজে অনুশীলন করুন। বাচনভঙ্গি বা দেহভঙ্গি কেমন হবে তা নির্ধারণের জন্য কল্পনায় নিজেকে শ্রোতার জায়গায় বসান। আপনি একজন প্রেজেন্টারের কাছে কেমন প্রেজেন্টেশন প্রত্যাশা করেন তা বিবেচনায় রাখুন। প্রেজেন্টেশন তৈরি হয়ে গেলে টিমমেট, বন্ধু, সহকর্মী বা আয়নার সামনে একাধিকবার তা উপস্থাপন করুন। এর ফলে জড়তা কাটবে, কী বলতে চান তাও পরিষ্কার হবে আপনার কাছে।