শেরপুরে ইউপি চেয়ারম্যান কারাগারে|315559|Desh Rupantor
logo
আপডেট : ১৫ সেপ্টেম্বর, ২০২১ ০০:০০
এক পরিবারকে দুই ওয়ারিশ সনদ
শেরপুরে ইউপি চেয়ারম্যান কারাগারে
শেরপুর সংবাদদাতা

শেরপুরে ইউপি চেয়ারম্যান কারাগারে

শেরপুরে এক পরিবারকে ভিন্ন দুটি ওয়ারিশ সনদ দেওয়ায় নকলা উপজেলার ধনাকুশা ইউনিয়ন চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আনিসুর রহমান সুজাকে (৫০) কারাগারে পাঠিয়েছে আদালত। একই সঙ্গে ওই পরিবারের এক সদস্য নাজমুল আলমকেও কারাগারে পাঠানো হয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে অভিযুক্তরা আদালতে আত্মসমর্পণ করে জামিনের আবেদন করলে জ্যেষ্ঠ বিচারিক হাকিম শরিফুল ইসলাম খান তাদের কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

বাদীপক্ষের আইনজীবী অ্যাডভোকেট আলমগীর কিবরিয়া কামরুল জানান, ধনাকুশা গ্রামের আশরাফ আলী এক স্ত্রী, দুই ছেলে ও পাঁচ মেয়েসহ আট ওয়ারিশ রেখে ২০০০ সালে মারা যান। ২০১৩ সালের ২৬ জুন ইউপি চেয়ারম্যান আনিসুর রহমান সুজা আটজনের নামে ওয়ারিশ সনদ প্রদান করেন। তাতে নাজমুল আলমসহ আশরাফ আলীর দুই ছেলে ও পাঁচ মেয়ের কথা উল্লেখ করা হয়। কিন্তু কিছুদিন পর জমিজমা নিয়ে বিরোধে লিপ্ত একপক্ষের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে ২০১৯ সালের ১ জুলাই চেয়ারম্যান সুজা আরেকটি ওয়ারিশ সনদ প্রদান করেন। নতুন সনদে পাঁচ সন্তানকে বাদ দিয়ে মৃত আশরাফ আলীর স্ত্রীসহ শুধু দুই সন্তান নাজমুল আলম ও কামরুন নাহারের নাম উল্লেখ করা হয়। একই চেয়ারম্যান কর্তৃক দুই সময়ে দুই রকম ওয়ারিশ সনদ দেওয়ায় পরিবারের মধ্যে চরম বিরোধের সৃষ্টি হয়। পরে ক্ষতিগ্রস্ত পক্ষের শামছুন্নাহার আদালতের আশ্রয় নিলে আদালত চেয়ারম্যান সুজা ও নাজমুল আলমকে জেলহাজতে পাঠায়।