স্ত্রীর চারপাশের দৃশ্য দেখার শখ মেটাতে ঘূর্ণায়মান ঘর তৈরি!|321124|Desh Rupantor
logo
আপডেট : ১২ অক্টোবর, ২০২১ ১৬:০১
স্ত্রীর চারপাশের দৃশ্য দেখার শখ মেটাতে ঘূর্ণায়মান ঘর তৈরি!
অনলাইন ডেস্ক

স্ত্রীর চারপাশের দৃশ্য দেখার শখ মেটাতে ঘূর্ণায়মান ঘর তৈরি!

ঘরে বসেই চারপাশের প্রাকৃতিক দৃশ্য দেখার শখ মেটাতে স্ত্রীর জন্য ঘূর্ণায়মান বাড়ি তৈরি করেছেন ভোজিন কুসিক নামে বসনিয়ার এক স্ব-শিক্ষিত উদ্ভাবক। এখন ওই নারী যখন যেদিকে ইচ্ছা সেদিকে ঘরটিকে ঘুরিয়ে বাইরের দৃশ্য দেখতে পারেন।

৭২ বছর বয়সী ভোজিন কুসিক তার নতুন বাড়ির সামনে দাঁড়িয়ে বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে বলেন, ‘আমি তার অভিযোগ এবং আমাদের পারিবারিক বাড়ি বারবার সংস্কার করতে করতে ক্লান্ত হয়ে পড়েছিলাম। তাই আমি তাকে একটি ঘূর্ণায়মান বাড়ি বানিয়ে দিয়েছি যাতে সে ইচ্ছেমতো ঘুরতে পারে’। তার এই নতুন বাড়ি এখন ভ্রমণপিপাসুদের দৃষ্টিও আকর্ষণ করছে। সারবাক শহরের কাছে বসনিয়ার উত্তরাঞ্চলীয় উর্বর সমভূমি অঞ্চলে তাদের বসবাস।

কুসিক জানান, তার ঘরটি ৭-মিটার একটি অক্ষের চারদিকে ঘুরছে। ঘরটির চারপাশে রয়েছে ভুট্টার মাঠ, কৃষি খামার, বন এবং নদী।

কুসিক বলেন, ‘ঘরটি ধীর গতিতে ২৪ ঘন্টায় একবার নিজের অক্ষের ওপর ঘুরে আসতে পারে। আর দ্রুত গতিতে মাত্র ২২ সেকেন্ডে চারদিকে ঘুরে আসতে পারে’।

তার স্ত্রী নতুন বাড়ি সম্পর্কে কোনো মন্তব্য করতে চাননি।

কুসিক বলেন, তিনি সার্বিয়ান-আমেরিকান আবিষ্কারক নিকোলা টেসলা এবং মিহাজলো পুপিন থেকে অনুপ্রাণিত হয়ে বিভিন্ন জিনিস উদ্ভাবন করেন। দরিদ্র পরিবার থেকে আসায় তিনি ভালভাবে বিজ্ঞান নিয়ে পড়াশোনা করতে পারেননি। কিন্তু নিজে নিজেই নানা জিনিস তৈরির উপায় খুঁজে বের করেন তিনি।

তিনি বলেন, ‘এটি বড় কোনো উদ্ভাবন নয়, এর জন্য শুধুমাত্র ইচ্ছা এবং জ্ঞানের প্রয়োজন, এবং আমার যথেষ্ট সময় ও জ্ঞান ছিল’। বাড়িটি তিনি সম্পূর্ণভাবে নিজে নিজেই তৈরি করেছেন।

হৃদরোগের কারণে হাসপাতালে থাকার সময় ছাড়া এই বাড়িটি বানাতে তার ছয় বছর লেগেছে। তিনি বলেন, বাড়িটি স্থির বাড়ির চেয়ে বেশি ভূমিকম্প প্রতিরোধী। ভুমিকম্পেও এর ক্ষয়-ক্ষতি কম হবে।