খালেদা জিয়ার থেমে থেমে জ্বরের কারণ জানার চেষ্টা চলছে: ডা. জাহিদ|321722|Desh Rupantor
logo
আপডেট : ১৫ অক্টোবর, ২০২১ ২০:৪৩
খালেদা জিয়ার থেমে থেমে জ্বরের কারণ জানার চেষ্টা চলছে: ডা. জাহিদ
নিজস্ব প্রতিবেদক

খালেদা জিয়ার থেমে থেমে জ্বরের কারণ জানার চেষ্টা চলছে: ডা. জাহিদ

রাজধানীর এভারকেয়ার হাসপাতালে চিকিৎসাধীন বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার থেমে থেমে জ্বর আসার কারণ জানতে হাসপাতালের চিকিৎসকেরা তার বিভিন্ন পরীক্ষা-নিরীক্ষা করছেন। শুক্রবারও কিছু পরীক্ষা করা হয়েছে। শনিবার সে সব পরীক্ষার রিপোর্ট পাওয়া যাবে। পরে তার চিকিৎসায় গঠিত মেডিকেল বোর্ডের সদস্যরা বসে পরবর্তী করণীয় ঠিক করবেন।

শুক্রবার দেশ রূপান্তরকে এসব কথা জানিয়েছেন খালেদা জিয়ার ব্যক্তিগত চিকিৎসক ও দলের ভাইস চেয়ারম্যান ডা. এ জেড এম জাহিদ হোসেন।

বিকেলে তিনি হাসপাতালে গিয়েছিলেন। হাসপাতালের চিকিৎসকদের কাছ থেকে সর্বশেষ অবস্থা জেনে হাসপাতাল থেকে বেরিয়ে রাতে তিনি বলেন, ‘হাসপাতালের চিকিৎসকেরা নিয়মিত খোঁজখবর রাখছেন। আমাদের সঙ্গে আলোচনা করে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। শনিবার পরীক্ষা-নিরীক্ষার ফলাফল পর্যালোচনা করে প্রয়োজনীয় চিকিৎসা দেওয়া হবে।’

হাসপাতাল সূত্র জানায়, ‘শুক্র খালেদা জিয়ার জ্বর ছিল না। তার চিকিৎসায় গঠিত মেডিকেল বোর্ডের চিকিৎসকেরা বিভিন্ন টেস্ট পর্যালোচনা করেছেন। আগের অসুখই তাকে ভোগাচ্ছে। এর মধ্যে লিভার, কিডনি সমস্যা, আর্থরাইটিস, ডায়াবেটিস, চোখের সমস্যাসহ শারীরিক দুর্বলতা রয়েছে তার।’

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক জিয়া পরিবারের এক সদস্য দেশ রূপান্তরকে বলেন, ‘জ্বরের কারণে খালেদা জিয়ার মুখে রুচি নেই। খাবার খেতে পারছেন না। বাসা থেকে তরল খাবার পাঠানো হচ্ছে। হাসপাতালের নার্সদের পাশাপাশি তার সঙ্গে ব্যক্তিগত স্টাফ ফাতেফা ও সুমি রয়েছেন। বেশির ভাগ সময় হাসপাতালের বেডেই থাকছেন তিনি। মাঝে মধ্যে হুইল চেয়ারে বসছেন। হাসপাতালে পরিবারের সদস্যদের না যাওয়ার জন্য বলা হয়েছে। তাই স্বজনদের কেউ যাচ্ছেন না।’

তিনি বলেন, ‘খালেদা জিয়া একা চলাফেরা করতে পারেন না। দুপাশে দুজন ধরে তাকে হাঁটাতে হয়। দুজনের কাঁধে ভর করে নিত্যদিনের জরুরি কাজ সারতে হয়। হাতের আঙুলগুলো বাঁকানোই আছে। এর কোনো উন্নতি হয়নি। এ জন্য নিজের হাতে তুলে খাবার খেতে পারেন না। খাবারেও রুচি নেই তার। এর মধ্যে জ্বর আসায় উদ্বিগ্ন হয়ে পড়ি আমরা। পরে চিকিৎসকদের পরামর্শে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।’

গত ১২ অক্টোবর দ্বিতীয় দফায় চিকিৎসার জন্য খালেদা জিয়াকে রাজধানীর এভারকেয়ার হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। বর্তমানে তিনি হাসপাতালের দশম তলায় একটি কেবিনে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।