সাম্প্রদায়িক শক্তির পৃষ্ঠপোষক বিএনপি-জামাতকে প্রতিরোধের আহ্বান কাদেরের|321735|Desh Rupantor
logo
আপডেট : ১৫ অক্টোবর, ২০২১ ২২:৫৩
সাম্প্রদায়িক শক্তির পৃষ্ঠপোষক বিএনপি-জামাতকে প্রতিরোধের আহ্বান কাদেরের
অনলাইন ডেস্ক

সাম্প্রদায়িক শক্তির পৃষ্ঠপোষক বিএনপি-জামাতকে প্রতিরোধের আহ্বান কাদেরের

ধর্মান্ধ, সাম্প্রদায়িক ও জঙ্গিবাদী শক্তির পৃষ্ঠপোষক বিএনপি-জামাতের অশুভ জোটকে প্রতিরোধ করার জন্য দেশের মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাসী প্রগতিশীল সকল মানুষকে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।

চট্টগ্রাম, নোয়াখালী জেলার বেগমগঞ্জের চৌমুহনী ও হাতিয়ার বুড়িরচরসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে হিন্দু সম্প্রদায়ের মন্দির, বাড়িঘর ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে হামলা, ভাঙচুর, অগ্নিসংযোগ ও লুটপাটের ঘটনার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে শুক্রবার তিনি এক বিবৃতিতে এ আহ্বান জানান।

বিবৃতিতে তিনি বলেন, ‘আমরা গভীর উদ্বেগের সাথে লক্ষ্য করছি- বাংলাদেশের হিন্দু ধর্মাবলম্বীরা যখন তাদের সর্বোচ্চ ধর্মীয় উৎসব দুর্গাপূজা উদ্‌যাপন করছে তখন এ দেশের চিহ্নিত সাম্প্রদায়িক এবং জঙ্গি গোষ্ঠী সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে গুজব সৃষ্টি করে এবং মিথ্যা অপপ্রচার চালিয়ে দেশের বিভিন্ন জায়গায় পূজা মণ্ডপ, মন্দির এবং হিন্দু সম্প্রদায়ের বাড়িঘর, ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে হামলা চালিয়েছে।’

ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘আমরা দৃঢ়তার সাথে বলতে চাই, স্বাধীন বাংলাদেশে অভ্যুদয় ঘটেছিল জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নেতৃত্বে অসাম্প্রদায়িক নীতির ভিত্তিতে। এ ধরনের হামলা মহান মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ও বাঙালি জাতির হাজার বছরের আবহমান ঐতিহ্য, সংস্কৃতি ও সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির মূলে কুঠারাঘাতের শামিল। বাংলাদেশ একটি সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির দেশ, এ দেশে কোন ধর্মীয় সম্প্রদায়ের ওপর কোন প্রকার হামলা বরদাশত করা হবে না।’

তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনার সরকার যে কোন মূল্যে অসাম্প্রদায়িক নীতির সুরক্ষা প্রদান করতে বদ্ধপরিকর। কোন অবস্থাতেই মহান মুক্তিযুদ্ধের মূলনীতি ভূ-লুণ্ঠিত হতে দেব না। এই বাংলাদেশ জাতি-ধর্ম-বর্ণ নির্বিশেষে সকল সম্প্রদায় ও ধর্মীয় বিশ্বাসী মানুষের। বাংলাদেশের মানুষ অসাম্প্রদায়িক ও ধর্মভীরু, তবে সাম্প্রদায়িক ও ধর্মান্ধ নয়।

বিবৃতিতে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘ইতিমধ্যে প্রধানমন্ত্রী বঙ্গবন্ধুকন্যা জননেত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনার নির্দেশে দেশের এ সব জায়গায় শান্তি-শৃঙ্খলা ও সম্প্রীতি ফিরিয়ে আনতে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীকে কঠোর নির্দেশনা প্রদান করা হয়েছে। এ সকল সাম্প্রদায়িক হামলার সাথে যারা জড়িত তাদেরকে আইনের আওতায় এনে বিচারের মুখোমুখি করা হবে। এই ষড়যন্ত্রের নেপথ্যের কুশীলবদেরও অবিলম্বে গ্রেপ্তার করা হবে। যারা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে গুজব সৃষ্টি করছে তাদেরকে চিহ্নিত করে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর হাতে সোপর্দ করার জন্য সকলের প্রতি অনুরোধ জানাচ্ছি।’

সূত্র: বাসস।