নোয়াখালীতে সহিংসতার ঘটনায় ১৮ মামলা, গ্রেপ্তার ৯০|322235|Desh Rupantor
logo
আপডেট : ১৮ অক্টোবর, ২০২১ ২০:৫৬
নোয়াখালীতে সহিংসতার ঘটনায় ১৮ মামলা, গ্রেপ্তার ৯০
নোয়াখালী প্রতিনিধি

নোয়াখালীতে সহিংসতার ঘটনায় ১৮ মামলা, গ্রেপ্তার ৯০

শুক্রবার নোয়াখালীর বেগমগঞ্জ উপজেলার চৌমুহনীসহ বিভিন্ন স্থানে পূজামণ্ডপ, মন্দির ও পুলিশের ওপর হামলার ঘটনায় ১৮টি মামলা হয়েছে। মামলার এজাহারে ২৮৫ জনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাত আরও পাঁচ হাজার ব্যক্তিকে আসামি করা হয়েছে। এসব মামলায় এ পর্যন্ত গ্রেপ্তার করা হয়েছে ৯০ জনকে।

এর মধ্যে ১০টি মামলার বাদী পুলিশ, ৬টির বাদী ক্ষতিগ্রস্ত মণ্ডপ-পূজা কমিটির সদস্য, একটির বাদী পূজা ঘরের মালিক এবং একটির বাদী বেগমগঞ্জের ইসকন মন্দিরের অধ্যক্ষ।

বেগমগঞ্জের ঘটনায় সোমবার বিকেলে মামলা ও গ্রেপ্তারের বিষয়টি নিশ্চিত করেন বেগমগঞ্জ মডেল থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) রুহুল আমিন।

তিনি বলেন, মন্দিরে হামলার ঘটনায় রোববার ইসকনের পক্ষ থেকে একটি এবং পুলিশের ওপর হামলার ঘটনায় পুলিশ বাদী হয়ে একটি মামলা করেছে। পুলিশের কাজে বাধা প্রদান ও হামলার ঘটনায় আরও ৩টি মামলা প্রক্রিয়াধীন। এসব মামলায় এ পর্যন্ত ৪৯ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। হামলাকারীদের শনাক্ত করে গ্রেপ্তারের জন্য পুলিশের অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

জেলা পুলিশ সুপার মো. শহীদুল ইসলাম জানান, গত বুধবার, বৃহস্পতিবার ও শুক্রবার জেলার বিভিন্ন থানা এলাকায় হিন্দুদের মন্দির, পূজা মণ্ডপ, বাড়িঘর ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে হামলা-ভাঙচুর, লুটপাট ও অগ্নিসংযোগের ঘটনায় বেগমগঞ্জ থানায় ৬টি, হাতিয়া থানায় ৮টি, সোনাইমুড়ি, কবিরহাট, চাটখিল ও সেনবাগের ঘটনায় একটি করে মামলা হয়েছে।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক সমিতির ঘটনাস্থল পরিদর্শন

চৌমুহনীসহ নোয়াখালীর বিভিন্ন স্থানে সহিংসতা ও হতাহতের বিষয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময় করেছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক সমিতি নেতৃবৃন্দ। এর আগে তারা চৌমুহনীর ক্ষতিগ্রস্ত মন্দির ও পূজা মণ্ডপগুলো পরিদর্শন করেন। এ সময় ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের দ্রুত গ্রেপ্তার করতে প্রশাসনের কাছে অনুরোধ করেন তারা।

সোমবার বিকেলে চৌমুহনী প্রেসক্লাব কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত মতবিনিময় সভায় বক্তব্য রাখেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির সভাপতি ড. মো. রহমত উল্যাহ, সাধারণ সম্পাদক ড. মো. নিজামুল হক ভূইয়া, টেলিভিশন, প্রিন্ট ও ফটোগ্রাফি বিভাগের অধ্যাপক ড. শফিউল আলম ভূইয়া, প্রক্টর ড. এ কে এম গোলাম রাব্বানী সহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দ।

অপরদিকে, দুর্গা পূজার সময় সারা দেশে সহিংসতার ঘটনায় নোয়াখালীর মাইজদী টাউনহল মোড়ে মানববন্ধন করেছে শ্রী শ্রী দুর্গা পূজা মণ্ডপ সমন্বয় পরিষদের নেতৃবৃন্দ। পরে জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সদস্য মিথুন ভট্ট ও বাসদের সভাপতি তারকেশ্বর নান্টুর নেতৃত্বে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সভা শেষে জেলা প্রশাসক বরাবর একটি স্মারকলিপি প্রদান করা হয়। প্রতিবাদ সভা থেকে বক্তারা ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করেন। এসব হামলার ঘটনায় তারা তীব্র নিন্দা জানান।