হাঁটুপানিতে দাঁড়িয়ে মন্ত্রীর ভাষণ|326270|Desh Rupantor
logo
আপডেট : ৯ নভেম্বর, ২০২১ ০০:০০
হাঁটুপানিতে দাঁড়িয়ে মন্ত্রীর ভাষণ
রূপান্তর ডেস্ক

হাঁটুপানিতে দাঁড়িয়ে মন্ত্রীর ভাষণ

প্রশান্ত মহাসাগরের দ্বীপরাষ্ট্র টুভালুর পররাষ্ট্রমন্ত্রী সাইমন কোফে। এমনিতে বেশ পরিপাটি থাকতে পছন্দ করেন। নিজের চারপাশের সবকিছু পরিপাটি থাকুক, তেমনটাই আশা করেন তিনি। পৃথিবীর জলবায়ু স্বাভাবিক নিয়মে চলুক, সেটাও চান তিনি। এ কারণে জলবায়ু পরিবর্তনের বিরুদ্ধেও সোচ্চারকণ্ঠ হিসেবে পরিচিত কোফে। সেই কোফে জলবায়ু পরিবর্তন মোকাবিলার গুরুত্ব বোঝাতে এবার অভিনব কায়দায় বার্তা পাঠিয়েছেন কপ ২৬ সম্মেলনে। সম্মেলনে পাঠানো এক ভিডিও হাঁটুপানিতে নেমে বক্তব্য দিতে দেখা যাচ্ছে তাকে।

বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানাচ্ছে, জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে সমুদ্রপৃষ্ঠের উচ্চতা বেড়ে যাওয়ায় তার দেশ কতটা তলিয়ে যাওয়ার ঝুঁকিতে আছে, তা বোঝাতে নিজেই সমুদ্রে নেমেছেন কোফে। হাঁটু পর্যন্ত পানিতে দাঁড়িয়ে বক্তব্য দিয়েছেন তিনি।

রয়টার্সের ভাষ্য, সাইমন কোফের ভিডিও বার্তাটি গ্লাসগোতে চলমান জলবায়ু সম্মেলনে পাঠানো হয়েছে। আজ মঙ্গলবার জলবায়ু সম্মেলনে সেটি প্রচার হওয়ার কথা। তবে সাইমন কোফের সমুদ্রে বক্তব্য দেওয়ার ছবি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়েছে।  ছবিতে দেখা গেছে, সমুদ্রের পানিতে বসানো হয়েছে মঞ্চ। সেখানে হাঁটুপানিতে দাঁড়িয়ে বক্তব্য দিচ্ছেন সাইমন। পরনে স্যুট ও টাই। প্যান্ট হাঁটুর ওপর পর্যন্ত গুটিয়ে রাখা। পেছনে জাতিসংঘ ও টুভালুর পতাকা। সমুদ্রপৃষ্ঠের উচ্চতা বৃদ্ধির বিপরীতে টুভালুর সংগ্রামের কথা সবাইকে জানাতে এমন পদক্ষেপ নিয়েছেন তিনি।

জলবায়ু সম্মেলনকে উদ্দেশ করে দেওয়া ভিডিও বার্তার ব্যাপারে সাইমন কোফে রয়টার্সকে বলেন, জলবায়ু পরিবর্তনজনিত প্রভাবের কারণে টুভালু বাস্তবে যে পরিস্থিতির মধ্যে আছে, তা কপ ২৬ সম্মেলনস্থলে উপস্থাপনের লক্ষ্যে ভিডিও বার্তাটি এভাবে দেওয়া হয়েছে।

দেশটির সরকারি এক কর্মকর্তা জানান, ফুনাফুতির প্রধান দ্বীপ ফোনগাফালের শেষ প্রান্তে ভিডিওটি ধারণ করেছে সরকারি সম্প্রচারমাধ্যম টিভিবিসি। জলবায়ু পরিবর্তনজনিত প্রভাব কমিয়ে আনতে জরুরি পদক্ষেপ নেওয়ার জন্য পরিবেশবিদেরা যখন বিশ্বনেতাদের চাপ দিয়ে যাচ্ছেন, তখনই এই ভিডিও বার্তা দিলেন কোফে।

বিশ্বে অন্যতম দূষণকারী দেশগুলো কার্বন নিঃসরণ কমাতে জোরালো পদক্ষেপ নেওয়ার অঙ্গীকার করেছে। কেউ কেউ আবার বলছে, ২০৫০ সাল নাগাদ কার্বন নিঃসরণ নেট জিরোতে নামিয়ে আনবে। প্রশান্ত মহাসাগরীয় দ্বীপরাষ্ট্রের নেতারা বলছেন, নিম্নাঞ্চলের দেশগুলোকে বাঁচাতে পদক্ষেপ নিতে হবে এখনই।