স্ত্রীর সামনে ২ মেয়েকে খুন বাবার, বাধা দিতে গিয়ে খুন হন পুলিশও|329960|Desh Rupantor
logo
আপডেট : ২৭ নভেম্বর, ২০২১ ২০:২৫
স্ত্রীর সামনে ২ মেয়েকে খুন বাবার, বাধা দিতে গিয়ে খুন হন পুলিশও
অনলাইন ডেস্ক

স্ত্রীর সামনে ২ মেয়েকে খুন বাবার, বাধা দিতে গিয়ে খুন হন পুলিশও

পারিবারিক কলহের জেরে স্ত্রীর সামনে দুই মেয়েকে খুন করেন এক বাবা। এ সময় সন্তানদের বাঁচাতে মা এগিয়ে এলে তাকেও ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে আহত করেন। পরে ওই ব্যক্তির স্ত্রী গুরুতর আহত অবস্থায় পালিয়ে যেতে অটোতে উঠলে সেখানেও হামলা চালিয়ে অটোচালককে খুন করেন। তাকে নিবৃত্ত করতে গিয়ে খুন হন এক পুলিশ কর্মকর্তাও।

প্রদীপ নামের ওই ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। শুক্রবার সন্ধ্যায় ভারতের দেবরায় উত্তর রামচন্দ্রঘাটের শেওড়াতুলিতে এ ঘটনা ঘটে।

জানা গেছে, ওই ব্যক্তি পেশায় রাজমিস্ত্রি। ওই দিন কাজ সেরে নিজের বাড়িতে আসেন তিনি। এসে স্ত্রীর সামনে ধারালো অস্ত্র দিয়ে দুই মেয়েকে কুপিয়ে হত্যা করেন। চোখের সামনে নিজের সন্তানদের হত্যাকাণ্ড মানতে না পেরে স্ত্রী মীনা পাল বাঁচাতে গেলে তাকেও ধারালো অস্ত্র দিয়ে আঘাত করে প্রদীপ। বাড়ি ছেড়ে কোনোক্রমে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করেন মীনা। স্ত্রীকে ধরতে বাড়ি থেকে বেরিয়ে দৌড়তে শুরু করে প্রদীপ।

আরো জানা যায়, পথে একটি অটোতে উঠলে ধারালো অস্ত্র দিয়ে অটোর সামনের কাচে সজোরে আঘাত করেন প্রদীপ। অটোয় থাকা যাত্রীদের আঘাত করেন। একজনের চোট গুরুতর। খবর পাওয়ামাত্রই ঘটনাস্থলে পৌঁছান স্থানীয় খোয়াই থানার সেকেন্ড অফিসার সত্যজিৎ মল্লিক। তাকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে আঘাত করেন তিনি।

স্থানীয় পুলিশ জানিয়েছে, নিহতদের মরদেহ ময়নাতদন্তে পাঠানো হয়েছে। অভিযুক্তকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে অভিযুক্ত প্রদীপ শুধু একটি বাক্যই জানিয়েছে, ‘সকলেই বিশ্বাসঘাতক।’