‘আমার কেন জন্ম হল’, মায়ের ডাক্তারের বিরুদ্ধে মামলা তরুণীর!|330891|Desh Rupantor
logo
আপডেট : ২ ডিসেম্বর, ২০২১ ১৫:৫৫
‘আমার কেন জন্ম হল’, মায়ের ডাক্তারের বিরুদ্ধে মামলা তরুণীর!
অনলাইন ডেস্ক

‘আমার কেন জন্ম হল’, মায়ের ডাক্তারের বিরুদ্ধে মামলা তরুণীর!

তার কেন জন্ম হল, এই অভিযোগে ব্রিটেনের এক তরুণী তার মায়ের ডাক্তারের বিরুদ্ধে মামলা করেছেন । তার দাবি, তার জন্ম হওয়াই উচিত ছিল না। মামলায় ওই তরুণী ক্ষতিপূরণ হিসেবে লাখ লাখা টাকা জিতেছেন। তাকে প্রায়ই মেরুদণ্ডের একটি মারাত্মক সমস্যার জন্য যন্ত্রণাদায়ক এবং ব্যায়বহুল চিকিৎসা নিতে হয়।

ইভি টুম্বস (Evie Toombes) নামের ওই তরুণী যুক্তরাজ্যের একজন তারকা শো জাম্পার। ডাক্তারের ভুল পরামর্শের কারণে তিনি মেরুদণ্ডের মারাত্মক এক সমস্যা নিয়ে জন্মগ্রহণ করেছেন। এজন্য তিনি তার মায়ের ডাক্তারের বিরুদ্ধে ‘ভুল গর্ভধারণ’ মামলা দায়ের করেন। এটি একটি যুগান্তকারী মামলা।

ইভি টুম্বস তার মেরুদণ্ডে স্পিনা বিফিডা নামের এমন একটি জন্মগত ত্রুটি নিয়ে জন্মগ্রহণ করেছেন, যার ফলে তার মেরুদণ্ডের একটি অংশ এবং এর মেনিনজেস মেরুদণ্ডের একটি ফাঁক দিয়ে উন্মুক্ত হয়ে পড়ে। এই সমস্যার ফলে প্রায়শই শরীরের নীচের অঙ্গগুলো পক্ষাঘাতগ্রস্ত হয়ে পড়তে পারে এবং কখনও কখনও এর ফলে মানসিক প্রতিবন্ধীতাও সৃষ্টি হয়।

মেরুদণ্ডের এই অসুখের জন্য কখনও কখনও ২৪ ঘণ্টাই টিউবের সাহায্যে চলতে হয় ইভিকে।

২০ বছর বয়সী এই তরুণী ফিলিপ মিচেল নামের একজন ডাক্তারকে গর্ভবতী থাকাকালীন তার মাকে সঠিকভাবে পরামর্শ দিতে ব্যর্থ হওয়ায় আদালতে টেনে নিয়ে যান। ইভি টুম্বস দাবি করেন যে, ডাক্তার মিচেল যদি তার মাকে বলত যে, তার শিশুর স্পিনা বিফিডা হওয়ার ঝুঁকি কমাতে তাকে গর্ভবতী অবস্থায় ফলিক অ্যাসিডের সাপ্লিমেন্ট গ্রহণ করতে হবে, তাহলে তিনি গর্ভধারণই করতেন না এবং তাকে আর এই ত্রুটি নিয়ে জন্ম গ্রহণও করতে হত না।

ব্রিটিশ দৈনিক ডেইলি মেইলের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, বুধবার লন্ডন হাইকোর্টের একটি যুগান্তকারী রায়ে বিচারক রোজালিন্ড কো কিউসি ইভির অভিযোগের প্রতি সমর্থন জ্ঞাপন করেছেন। বিচারক রায় দিয়েছেন যে, যদি ইভির মাকে ‘সঠিকভাবে পরামর্শ দেওয়া হত, তাহলে তিনি গর্ভধারণে দেরি করতেন’।

তিনি বলেন, ‘ইভির মা যে পরিস্থিতিতে ছিলেন তাতে তিনি সঠিক পরামর্শ পেলে আরও দেরিতে গর্ভধারণ করতেন, যার ফলে একটি সুস্থ-স্বাভাবিক শিশুর জন্ম হত’। এরপর বিচারক ইভিকে বিশাল অংকের ক্ষতিপুরণ দেওয়ার আদেশ দেন।

ইভির আইনজীবীরা বলেন যে, ইভিকে তার অসুস্থতার জন্য আজীবনের চিকিৎসার খরচ দেওয়ার আদেশ দিয়েছেন বিচারক। ফলে তিনি বিশাল অঙ্কের টাকাই পেতে যাচ্ছেন।

ইভি টুম্বস এর মা আদালতে বলেছিলেন যে, ডাক্তার মিচেল যদি তাকে সঠিকভাবে পরামর্শ দিতেন তবে তিনি তার গর্ভবতী হওয়ার চেষ্টা বন্ধ করে দিতেন। তিনি বলেন, ‘আমাকে পরামর্শ দেওয়া হয়েছিল যে, যদি আমি আগে ভাল খাবার খেয়ে থাকি তাহলে আমাকে আর ফলিক অ্যাসিড খেতে হবে না’।

এই রায়কে একটি যুগান্তকারী রায় হিসেবে বিবেচনা করা হচ্ছে। কারণ এর অর্থ হল, একজন স্বাস্থ্যসেবা পেশাদারকে কাউকে গর্ভধারণের আগে ভুল পরামর্শ দেওয়ার জন্য দায়ী করা যেতে পারে, যদি তার পরামর্শের ফলে গুরুতর স্বাস্থ্যগত ত্রুটি নিয়ে কোনো শিশুর জন্ম হয়।