৪৩ কেজি ওজনের মাছটি পাড়ে তুলতে সময় লাগল ৪৫ মিনিট|331141|Desh Rupantor
logo
আপডেট : ৩ ডিসেম্বর, ২০২১ ২২:৪৪
৪৩ কেজি ওজনের মাছটি পাড়ে তুলতে সময় লাগল ৪৫ মিনিট
নিজস্ব প্রতিবেদক, কুমিল্লা

৪৩ কেজি ওজনের মাছটি পাড়ে তুলতে সময় লাগল ৪৫ মিনিট

কুমিল্লায় ধর্মসাগর দিঘিতে এক ব্যবসায়ীর বড়শিতে ধরা পড়েছে ৪৩ কেজি ওজনের একটি ব্ল্যাক কার্প মাছ। মাছটিকে পাড়ে তুলতে ৪৫ মিনিট সময় লাগে বলে জানিয়েছেন ওই ব্যবসায়ী।

জাহিদুল্লাহ রিপন নামের ব্যবসায়ীর বড়শিতে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় মাছটি ধরা পড়ে। তিনি ধর্মসাগর দিঘির মাছ চাষের অংশীদারও। মাছ ধরা পড়ার খবরে ভিড় করেন শতাধিক মানুষ।

এত বড় ব্ল্যাক কার্প দেখতে ঘটনাস্থলে আসেন কুমিল্লা সদর আসনের সাংসদ বীর মুক্তিযোদ্ধা আ ক ম বাহাউদ্দীন বাহার। এমপি বাহার বলেন, ‘কুমিল্লা শহরে অনেক দিঘি আছে। তবে সবচেয়ে বড় দিঘিটি হলো ধর্মসাগর। এমন বড় মাছ ধর্মসাগরেই সম্ভব। আমার ধারণা, এমন আরও বড় মাছ আছে ধর্মসাগরে।’

ব্যবসায়ী রিপন বলেন, ‘বর্তমানে কুমিল্লা ধর্মসাগর দিঘিটি আমরা ৩০ জন অংশীদার মিলে লিজ নিয়ে মাছ চাষ করছি। প্রায়দিনই বড়শিতে মাছ ধরি। বৃহস্পতিবার বিকেলে দিঘিতে ছিপ ফেলি। রাত সোয়া ৮টার দিকে মাছটি বড়শিতে আটকায়। ৪৩ কেজি ওজনের মাছটি পাড়ে তুলতে ৪৫ মিনিট সময় লাগে।’

রিপন বলেন, ‘এত বড় মাছ আমি এর আগে দেখিনি। নিজের বড়শিতে উঠেছে। খুব ভালো লাগছে।’

কুমিল্লা জেলা মৎস্য কর্মকর্তা শরিফ উদ্দিন বলেন, ‘ব্ল্যাক কার্প মাছ আমাদের দেশের নদী ও পুকুরে হয়। বিশেষ করে যেসব পুকুর দিঘিতে শামুক-ঝিনুক বেশি থাকে সেখানে ব্ল্যাক কার্প মাছ বেশি হয়। ধর্মসাগর দিঘিতে প্রচুর শামুক-ঝিনুক থাকায় এখানে ব্ল্যাক কার্প হয়।’

বড়শিতে ধরা পড়া ৪৩ কেজি ওজনের ব্ল্যাক কার্প মাছটি মধ্যরাত পর্যন্ত রেখে দেওয়া হয় কুমিল্লা ধর্মসাগর দিঘির পাড়। মাছটিকে এক নজর দেখতে ভিড় জমায় নানান বয়সের নারী-পুরুষ শিশু। অনেকেই মাছটির সাথে ছবি তোলেন।