দিনাজপুর-ঠাকুরগাঁও-লালমনিরহাটে শীতার্তদের কম্বল দিল বসুন্ধরা গ্রুপ|333953|Desh Rupantor
logo
আপডেট : ১৮ ডিসেম্বর, ২০২১ ২১:১১
দিনাজপুর-ঠাকুরগাঁও-লালমনিরহাটে শীতার্তদের কম্বল দিল বসুন্ধরা গ্রুপ
অনলাইন ডেস্ক

দিনাজপুর-ঠাকুরগাঁও-লালমনিরহাটে শীতার্তদের কম্বল দিল বসুন্ধরা গ্রুপ

দিনাজপুর, লালমনিরহাট ও ঠাকুরগাঁওয় জেলার কয়েকটি উপজেলায় শীতার্তের মাঝে কম্বল ও শীতবস্ত্র বিতরণ করেছে দেশের শীর্ষস্থানীয় শিল্প পরিবার বসুন্ধরা গ্রুপ। এই কাজে সার্বিক সহযোগিতা করেছে কালের কণ্ঠ শুভসংঘ।

শনিবার বসুন্ধরা গ্রুপের অর্থায়নে ও শুভসংঘের আয়োজনে দিনাজপুরের বোচাগঞ্জের সেতাবগঞ্জ পাইলট বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে, বীরগঞ্জ উপজেলার বীরগঞ্জ সরকারি কলেজে, কাহারোল উপজেলা চত্বরে, খানসামা উপজেলায় আলোক ঝাড়ি ইউনিয়ন পরিষদ কমপ্লেক্স চত্বরে, চিরিরবন্দরের মাঝাপাড়া মেসার্স মা অটোমিলের চাতালে, বিরামপুরের মেধা বিকাশ স্কুল মাঠে, নবাবগঞ্জ সরকারি বহুমুখী পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে, সদর উপজেলার খোদমাধবপুর মিস্ত্রিপাড়া উন্নয়ন সংঘের মাঠে, ফুলবাড়ী উপজেলার পানিকাটা দরগাবাড়ি তাহফিজুল কোরআন হাফিজিয়া মাদ্রাসা মাঠে, পার্বতীপুর উপজেলার সরকারি বঙ্গবন্ধু উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে অসহায় শীতার্তদের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ করা হয়।

এসব উপজেলায় শীতবস্ত্র বিতরণের সার্বিক ব্যবস্থাপনায় ছিলেন শুভসংঘের পরিচালক জাকারিয়া জামান।

এদিন বিকেলে লালমনিরহাটের পাটগ্রাম উপজেলার বাউরা আরেফা খাতুন বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের মাঠে বসুন্ধরা গ্রুপের অর্থায়নে ও শুভসংঘের আয়োজনে দরিদ্র ও অসহায়দের মধ্যে ৩০০ কম্বল বিতরণ করা হয়।

হুইলচেয়ারে করে কম্বল নিতে আসা পাটগ্রাম উপজেলার বাউরা ইউনিয়নের নবীনগর গ্রামের বাসিন্দা ময়নাল হোসেন (৫৫) বলেন, ‘বসুন্ধরা করোনা ভাইরাসের সময় হামাক খাবার দিয়েছে। এবারও তোমা হামাক বসুন্ধরা থাকি কম্বল দিলেন। হামরা জারোত (শীত) খুব কষ্টে ছিনো কেউ দেখে না। তোমরা কম্বল খান দিয়া মোর খুব উপকার করলেন বাহে। এখন রাইতোত আরামে নিন (ঘুম) পারির পাইমো।’

এছাড়া, এদিন দুপুর দেড়টায় ঠাকুরগাঁওয়ের রানীশংকৈল উপজেলায় বসুন্ধরা গ্রুপের অর্থায়নে ও শুভসংঘের আয়োজনে উপজেলা পরিষদ অফিসার্স ক্লাব চত্বরে ১০০ কম্বল বিতরণ করা হয়।