‘যৌন ইঙ্গিতবাহী নয় মন্তব্য’, তবুও সাইনার কাছে ক্ষমাপ্রার্থী সিদ্ধার্থ|338740|Desh Rupantor
logo
আপডেট : ১২ জানুয়ারি, ২০২২ ১১:০৯
‘যৌন ইঙ্গিতবাহী নয় মন্তব্য’, তবুও সাইনার কাছে ক্ষমাপ্রার্থী সিদ্ধার্থ
অনলাইন ডেস্ক

‘যৌন ইঙ্গিতবাহী নয় মন্তব্য’, তবুও সাইনার কাছে ক্ষমাপ্রার্থী সিদ্ধার্থ

অলিম্পিক পদকজয়ী ভারতীয় ব্যাডমিন্টন তারকা সাইনা নেহেওয়ালকে নিয়ে ‘অশ্লীল’ ও ‘যৌন ইঙ্গিতপূর্ণ’ মন্তব্য করার জেরে গত দুদিন ধরে সোশ্যাল মিডিয়ার ব্যাপক রোষের মুখে ‘রং দে বসান্তি’ খ্যাত বলিউড অভিনেতা সিদ্ধার্থ। এই তামিল অভিনেতার বিরুদ্ধে আইনি পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে ভারতের জাতীয় নারী কমিশনও। সেই বিতর্কের মাঝেই খোলা চিঠি লিখে সাইনার কাছে ক্ষমা প্রার্থনা করলেন সিদ্ধার্থ।

মঙ্গলবার রাতে সোশ্যাল মিডিয়ায় এক খোলা চিঠি লিখে সাইনার কাছে ক্ষমা চেয়ে সিদ্ধার্থ বলেন, ‘আপনি সর্বদা আমার চ্যাম্পিয়ন থাকবেন’। সাইনার উদ্দেশে তিনি লেখেন, ‘প্রিয় সাইনা, আপনার একটি টুইটের প্রতিক্রিয়ায় আমি যে অভদ্র রসিকতা করেছি তার জন্য আপনার কাছে ক্ষমা চাইছি। আমি আপনার সঙ্গে অনেক বিষয়ে দ্বিমত পোষণ করতে পারি। তবে আমি আপনার টুইটটি যখন পড়ি তখন আমার হতাশা বা রাগও আমার বলা কথাকে মান্যতা দিতে পারে না। আমি জানি, আমার মধ্যে তার চেয়ে বেশি বিনম্রতা আছে’।

সঙ্গে সিদ্ধার্থ লেখেন, যদি কোনও ঠাট্টার ব্যাখা দিতে হয় তাহলে বুঝতে হবে সেটি সঠিক ছিল না। তিনি বলেন, ‘আমি দুঃখিত যে ওই ঠাট্টাটি মানুষের কাছে সঠিক বার্তা নিয়ে পৌঁছায়নি’। তবে সিদ্ধার্থ স্পষ্ট বলেন, কোনওরকম খারাপ অভিপ্রায় নিয়ে ওই টুইট করেননি তিনি, কোনও অশ্লীল ইঙ্গিত দেওয়ার উদ্দেশ্য ছিল না তাঁর। নিজেকে নারীবাদী বলে উল্লেখ করে সিদ্ধার্থ জানান, ‘কোনওরকম লিঙ্গ ভিত্তিক আক্রমণ আমি করিনি, নারী হিসেবে আপনাকে অপমান করতে চাইনি’।

 

কী বলেছিলেন সিদ্ধার্থ?

গত সপ্তাহে পাঞ্জাবের ফিরোজপুরে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর ‘নিরাপত্তায় গলদ’ নিয়ে টুইটারে ক্ষোভ উগরে দিয়েছিলেন সাইনা। লিখেছিলেন, ‘কোনও দেশকেই সুরক্ষিত হিসেবে দাবি করা যেতে পারে না, যদি সেই দেশের প্রধানমন্ত্রীর সুরক্ষার আপোস করা হয়। প্রধানমন্ত্রীর উপর কাপুরুষোচিত আক্রমণের ঘটনাকে কঠোরতম ভাষায় নিন্দা করছি আমি’। সেই টুইট রিটুইট করে অভিনেতা লেখেন, ‘‍বিশ্বের subtle cock চ্যাম্পিয়ন, ঈশ্বরকে ধন্যবাদ যে ভারতের রক্ষক আছে। তোমার লজ্জা হওয়া দরকার রিহান্না’।

ব্যাডমিন্টনের ‘শাটলককের’ (Shuttlecock) পরিবর্তে ‘Subtle Cock’ শব্দ ব্যবহার করায় সোশ্যাল মিডিয়ায় তোপের মুখে পড়েন সিদ্ধার্থ। নেটিজেনদের একাংশ দাবি করেন, ‘কুরুচিকর’ এবং ‘যৌন ইঙ্গিতবাহী’ টুইট করেছেন এই অভিনেতা। এই মন্তব্যের পর সাইনা জানিয়েছিলেন, এরকম বিতর্কিত মন্তব্য করে লোকজন প্রচারের আলোয় থাকতে চান। এখনও পর্যন্ত সিদ্ধার্থের চিঠিরও কোনো জবাব দেননি সাইনা।

প্রায় দুই দশক আগে একটি তামিল ছবিতে অভিষেকের পর থেকে সিদ্ধার্থ বেশ কয়েকটি সিনেমায় অভিনয় করেছেন। তিনি দক্ষিণী ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিতে অনেক জনপ্রিয়। ২০০৬ সালের বলিউড হিট রঙ দে বাসন্তীতে অভিনয়ের মধ্য দিয়ে তিনি হিন্দি সিনেমা দর্শকদের কাছেও পরিচিতি পান।

অন্যদিকে, নেহওয়াল প্রথম ভারতীয় ব্যাডমিন্টন খেলোয়াড় হিসেবে অলিম্পিক পদক জিতেছেন। তিনি ভারতের সবচেয়ে বিখ্যাত ক্রীড়া তারকাদের একজন। ক্রিকেট-মগ্ন দেশে ব্যাডমিন্টন খেলতে অনেক তরুণীকে অনুপ্রাণিত করার জন্য তাকে প্রায়ই কৃতিত্ব দেওয়া হয়।