কলেজের নাম ‘লেডি ব্রা’!|339138|Desh Rupantor
logo
আপডেট : ১৪ জানুয়ারি, ২০২২ ১২:৪৯
কলেজের নাম ‘লেডি ব্রা’!
অনলাইন ডেস্ক

কলেজের নাম ‘লেডি ব্রা’!

অক্ষরের হেরফেরে কি বিপত্তিই না ঘটতে পারে তা ফের চাক্ষুষ করলেন কলকাতার মানুষজন। এমনকি এই অক্ষরের হেরফেরে অশ্লীল বিষয় সামনে এলো কলকাতায়। তাও আবার খোদ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে। এবার অক্ষর চুরির অভিযোগ দায়ের হল বেনিয়াপুকুর থানায়। কিন্তু এই অক্ষর চুরির ফলে যা দাঁড়াল তাতে হেসে খুন নেটিজেনরা। এমনই ঘটনা ঘটেছে শহরের বিখ্যাত লেডি ব্র্যাবোর্ন কলেজে।

ঠিক কী ঘটেছে সেখানে?‌ এদিন লেডি ব্র্যাবোর্ন কলেজের অক্ষর চুরির অভিযোগ উঠেছে। এই ঐতিহ্যবাহী কলেজের বাইরে ইংরেজি-বাংলা দুটি ভাষায় লেখা নাম থেকেই কয়েকটি অক্ষর চুরি হয়ে গেছে। তার ফলে ইংরেজি ভাষায় এখন লেখা দাঁড়িয়েছে ‘লেডি ব্রা’। তাতেই চক্ষু চড়কগাছ সকলের। এই ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়েছে। অনেকেই এই দেখে হাসলেও বিষয়টি যথেষ্ট গুরুতর।

এই নিয়ে বেনিয়াপুকুর থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। বিষয়টি নিয়ে কলেজের অধ্যক্ষা শিউলি সরকার বলেন, ‘‌বিষয়টি আমাদের নজরে এসেছে। মনে হয় পেটের দায়ে কেউ চুরি করেছে। পুলিশকে বলেছি সিসিটিভি ফুটেজ খতিয়ে দেখে দোষীদের চিহ্নিত করুন। পূর্ত দপ্তরের সঙ্গে যোগাযোগ করেছি। বাকি অক্ষরগুলো দ্রুত বসানোর অনুরোধ করেছি’।‌

কিছুদিন আগে জোড়াসাঁকো ঠাকুরবাড়ির বাইরের নামের ফলক থেকেও বেশ কয়েকটি অক্ষর চুরি গিয়েছিল। ধাতব এই অক্ষরগুলো মূল্যবান সরকারি সম্পত্তি। এগুলো বেচে ভালো টাকাও পাওয়া যায়। তাই এভাবে অনেকে চুরি করছে বলে মনে করা হচ্ছে। কিন্তু লেডি ব্র্যাবোর্ন কলেজ কর্তৃপক্ষের অভিযোগ পেয়েই তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।

ব্রিটিশ ভারতে বাংলার গভর্নর ছিলেন লর্ড ব্রেবোর্ন। তাঁর স্ত্রীর নামে পার্ক সার্কাসের এই মেয়েদের কলেজটি খোলা হয় ১৯৩৯ সালে। তারপর থেকে আজ পর্যন্ত শহরের নামজাদা কলেজের তালিকায় প্রথম সারিতেই থাকে ব্রেবোর্ন। কলেজটি বর্তমানে কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের অন্তর্ভুক্ত।