ইউটিউব থেকে মাসে ৪ লাখ টাকা পর্যন্ত আয় করেছেন হিরো আলম!|339533|Desh Rupantor
logo
আপডেট : ১৬ জানুয়ারি, ২০২২ ১৪:৩৪
ইউটিউব থেকে মাসে ৪ লাখ টাকা পর্যন্ত আয় করেছেন হিরো আলম!
অনলাইন ডেস্ক

ইউটিউব থেকে মাসে ৪ লাখ টাকা পর্যন্ত আয় করেছেন হিরো আলম!

কখনও ‘বাবু খাইচো’ আবার কখনও ‘মানিকে মাগে হিতে’, সোশ্যাল মিডিয়ায় গান গেয়ে আলোচনার কেন্দ্রে থেকেছেন হিরো আলম। নেটিজেনরা তাঁর সমালোচনা করেছেন। কিন্তু, তাঁর গাওয়া গান নিমেষে ছড়িয়ে গিয়েছে নেটদুনিয়ায়। ভাইরাল হয়েছে তাঁর বেশিরভাগ গানের ভিডিও। জনপ্রিয়তার পাশাপাশি এই গানগুলো গেয়ে সোশ্যাল মিডিয়া থেকে বিপুল পরিমাণে রোজগার করেন হিরো আলম। অঙ্কটা জানতে ‘চোখ কপালে উঠতে বাধ্য’!

ফেসবুকে হিরো আলমের ফলোয়ার ১৯ লাখ। ইউটিউবে তার সাবস্ক্রাইবার সাড়ে ১৩ লাখ। সোশ্যাল মিডিয়ার হাত ধরেই ‘স্টার’ হয়ে ওঠা হিরো আলমের। ‘তাঁর বাবু খাইসো’, ‘ধক ধক করনে লাগা’ গানগুলি সোশ্যাল মিডিয়ায় বিপুল জনপ্রিয়। এই ভিডিওগুলো থেকে কত আয় হয় হিরো আলমের?

সংবাদ মাধ্যমকে এই এই তারকা জানান, ফেসবুক এবং ইউ টিউব থেকে কোন মাসে কত টাকা আয় হয় তা বলা মুশকিল। হিরো আলম বলেন, ‘কোনও মাসে দেড় লাখ, কোনও মাসে ৩ লাখ আবার কোনও মাসে ৫০ হাজার টাকা আয় হয়। আয়ের একটা বড় অংশ মানুষের হাতে তুলে দেই। শুধু সোশ্যাল মিডিয়া থেকে প্রাপ্ত অর্থ নয়, শো করে আমি যে টাকা পাই তার একটা বড় অংশ আমি মানুষের সেবায় ব্যায় করি’।

হিরো আলমের যাত্রাটা ছিল অনেক কঠিন। ভাইরাল হওয়ার সময়ও তিনি জানতেন না ‘ফেম’ এর সঙ্গে সঙ্গে সোশ্যাল মিডিয়ায় অর্থও উপার্জন করতে পারবেন তিনি। এই তারকা বলেন, ‘২০১৮ সালে যখন আমি জনপ্রিয়তার তুঙ্গে তখন প্রথম সোশ্যাল মিডিয়া থেকে টাকা আয়ের বিষয়টি জানতে পারি। প্রথমে ৫ হাজার ১০ হাজার আয় হত। পরে ইউ টিউব থেকে আামি এক মাসে ৪ লাখ টাকা পর্যন্ত আয় করেছি’।

তবে কোন মাসে কত টাকা আয় করা যায় তা নির্দিষ্ট করে বলা সম্ভব নয় বলেও জানান আলম। তাঁর কথায়, ‘আমি সিনেমা তৈরি করছি। সাধারণ মানুষের কাছে ভালোবাসা পাচ্ছি স্বীকৃতি পাচ্ছি। মানুষের স্নেহ, ভালোবাসা, ভক্তদের ভালোবাসা আমার কাছে সব থেকে বড় পুঁজি’।