হিলিতে মৃদু শৈত্যপ্রবাহে খেটে খাওয়া মানুষের ভোগান্তি |339760|Desh Rupantor
logo
আপডেট : ১৭ জানুয়ারি, ২০২২ ১৬:০৯
হিলিতে মৃদু শৈত্যপ্রবাহে খেটে খাওয়া মানুষের ভোগান্তি
হাকিমপুর (দিনাজপুর) প্রতিনিধি

হিলিতে মৃদু শৈত্যপ্রবাহে খেটে খাওয়া মানুষের ভোগান্তি

দিনাজপুরের হাকিমপুরের হিলিতে আরও কমেছে তাপমাত্রা, বইছে মৃদু শৈত্যপ্রবাহ। হিমেল বাতাস ও অব্যাহত কুয়াশা বাড়িয়ে তুলেছে শীত। এমন পরিস্থিতিতে ঠিকমতো কাজ করতে না পেরে বিপাকে পড়েছেন নিম্ন আয়ের খেটে খাওয়া দিনমজুরেরা।

গত কয়েক দিন সকাল থেকে রোদের দেখা পাওয়া গেলেও পশ্চিমা হিমেল বাতাস অব্যাহত রয়েছে। দিনে তাপমাত্রা অপেক্ষাকৃত বেশি থাকলেও বিকেলের পর থেকে পারদ নামতে শুরু করে, বিশেষ করে রাতে কনকনে শীত অনুভূত হচ্ছে।

সন্ধ্যাতেই বাজার-ঘাট ফাঁকা হয়ে যাচ্ছে, সড়কে মানুষের উপস্থিতি কমে যাচ্ছে। এ সময় যাত্রী না পাওয়ায় আয় রোজগার কমে বিপাকে পড়েছেন ভ্যান-রিকশা চালকেরা।

দিনমজুর আব্দুল করিম বলেন, গত কয়েক দিন ধরেই প্রচণ্ড শীত পড়েছে, হাত-পা সব অবশ হয়ে যাচ্ছে। এই আবহাওয়ায় বাড়ি থেকে বের হওয়া খুব কষ্টকর হয়ে পড়েছে। কিন্তু তারপরও পেটের তাগিদে বের হতে হচ্ছে। কোনো দিন কাজ হচ্ছে আবার কোনো দিন হচ্ছে না, যাওবা হচ্ছে প্রচণ্ড ঠান্ডায় ঠিকমতো কিছু করা যাচ্ছে না। এতে আয় ইনকাম কমে গিয়ে আমরা খুব কষ্ট করে দিনাতিপাত করছি।

দোকান শ্রমিক আনিছুর রহমান বলেন, ঠান্ডার কারণে সকালে কাজে যেতে সমস্যা হচ্ছে, দোকান খুলতে দেরি হয়ে যাচ্ছে।  

আবহাওয়া অধিদপ্তর দিনাজপুরের ইনচার্জ তোফাজ্জল হোসেন বলেন, সোমবার দিনাজপুর অঞ্চলে তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে ৯ দশমিক ৯ ডিগ্রি সেলসিয়াস, যা গতকাল ছিল ১১ দশমিক ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস। বাতাসের আর্দ্রতা ৮৯ শতাংশ, বাতাসের গতিবেগ ঘণ্টায় ৩/৪কিলোমিটার যা বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে এটি উত্তর বা উত্তর পশ্চিম দিক থেকে ঘণ্টায় ৮/১০ কিলোমিটার গতিতে ধাবিত হতে পারে। দিনাজপুর, পঞ্চগড়, চুয়াডাঙ্গা, শ্রীমঙ্গলসহ দেশের আরও কিছু স্থানের ওপর দিয়ে বর্তমানে মৃদু শৈত্যপ্রবাহ বয়ে যাচ্ছে।