ইউনিয়ন কৃষক লীগের সভাপতি হলেন জামায়াত নেতার ভাতিজা!|339864|Desh Rupantor
logo
আপডেট : ১৭ জানুয়ারি, ২০২২ ২৩:১৫
ইউনিয়ন কৃষক লীগের সভাপতি হলেন জামায়াত নেতার ভাতিজা!
সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি

ইউনিয়ন কৃষক লীগের সভাপতি হলেন জামায়াত নেতার ভাতিজা!

জামাত নেতার ভাতিজাকে সিরাজগঞ্জের রায়গঞ্জ উপজেলা ও সলঙ্গা থানার ধুবিল ইউনিয়ন কৃষক লীগের সভাপতি করার অভিযোগ উঠেছে। 

জানা গেছে, ধুবিল ইউনিয়ন কৃষক লীগের নবগঠিত কমিটির সভাপতি মাসুম বিল্লাহর চাচা আব্দুস সামাদ সলঙ্গা থানা জামায়াতের নেতা। তার বাবা আব্দুল গফুর ধুবিল ইউনিয়ন পরিষদে চেয়ারম্যান পদে জামায়তের সমর্থন নিয়ে নির্বাচন করেন। তাদের বাড়ি ধুবিল ইউনিয়নের আমশড়া গ্রামে।

স্থানীয় আওয়ামী লীগ ও কৃষক লীগের একাধিক নেতাকর্মী জানান, সম্প্রতি ৬১ সদস্যের ধুবিল ইউনিয়ন কৃষক লীগের কমিটির অনুমোদন দেন সলঙ্গা থানা কৃষক লীগের সভাপতি আব্দুল হান্নান নান্নু ও সাধারণ সম্পাদক আখতারুজ্জামান সাচ্চু। কমিটি ঘোষণার সময় সলঙ্গা থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি রায়হান গফুর, সাধারণ সম্পাদক আতাউর রহমান লাভু ছিলেন। সেখানে ধুবিল ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি মনিরুজ্জামান মাস্টার ও থানা কৃষক লীগের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। 

নতুন কমিটির সাধারণ সম্পাদক সেলিম রেজা বলেন, মাসুম বিল্লাহর চাচা আব্দুস সামাদ জামায়াতের রাজনীতির সঙ্গে জড়িত বলে শুনেছি। তবে তার বাবা জামায়াত করেছেন কি না, তা আমার জানা নেই। 

সলঙ্গা থানা কৃষক লীগের সভাপতি আব্দুল হান্নান নান্নু বলেন, ২০/২২ বছর আগে মাসুম বিল্লাহর বাবা-চাচারা জামায়াতের রাজনীতিতে সক্রিয় ছিলেন। গত ৩/৪ বছর ধরে মাসুম বিল্লাহ আওয়ামী লীগের রাজনীতিতে জড়িত হয়েছেন। প্রথমে তাকে যুবলীগের সদস্য করা হয়েছিল। এবার তাকে ধুবিল ইউনিয়ন কৃষক লীগের সভাপতি নির্বাচিত করা হয়েছে।

সিরাজগঞ্জ জেলা কৃষক লীগের সাধারণ সম্পাদক মনিরুজ্জাম মনি জানান, জামায়াত নেতার সন্তান বা জামায়াত পরিবারের সন্তান হয়ে থাকলে সলঙ্গা থানা কৃষক লীগের সভাপতি-সাধারণ সম্পাদকের সঙ্গে কথা বলে এ বিষয়ে সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

এ বিষয়ে সলঙ্গা থানা জামায়াতের আমির হোসেন আলী জানান, মাসুম বিল্লার চাচা আব্দুস সামাদ ও তার বাবা আব্দুল গফুর জামায়াতের সঙ্গে জড়িত থাকলেও কোনো পদে ছিলেন না। 

জানতে চাইলে কৃষক লীগের নবনিযুক্ত সভাপতি মাসুম বিল্লাহ বলেন, আমি বা আমার বাবা জামায়াতের রাজনীতির সঙ্গে জড়িত নই। একটি মহল আমাদের হেয় করার জন্য এ সব অপপ্রচার করছে।