পণ্য বিক্রির আদেশ পেলে মিলবে স্বল্পমেয়াদি বিনিয়োগ|340235|Desh Rupantor
logo
আপডেট : ২০ জানুয়ারি, ২০২২ ০০:০০
মাইক্রো, ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্পের জন্য নতুন প্ল্যাটফর্ম
পণ্য বিক্রির আদেশ পেলে মিলবে স্বল্পমেয়াদি বিনিয়োগ
নিজস্ব প্রতিবেদক

পণ্য বিক্রির আদেশ পেলে মিলবে স্বল্পমেয়াদি বিনিয়োগ

ক্ষুদ্র শিল্পে অর্থায়নের নতুন ডিজিটাল প্ল্যাটফর্ম চালুর অনুমোদন দিয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংক। ওই প্ল্যাটফমে অংশ নিয়ে দেশের অতিক্ষুদ্র, ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্পের (এমএসএমই) উদ্যোক্তারা সরাসরি করপোরেট প্রতিষ্ঠানের কাছ থেকে পণ্য সরবরাহের ক্রয়াদেশ (অর্ডার) নিতে পারবে। অর্ডারকৃত পণ্য উৎপাদনের খরচ বহনের জন্য ওই এমএসএমই প্রতিষ্ঠান ওই প্ল্যাটফর্মে অংশ নেওয়া ব্যাংক বা আর্থিক প্রতিষ্ঠানের কাছে একটি ইনভয়েস আকারে বিক্রি করে নগদ টাকা বিনিয়োগ আকারে নিতে পারবে। পণ্য সরবরাহের পর ওই ইনভয়েসের মেয়াদ পার হলে সংশ্লিষ্ট ব্যাংক বা আর্থিক প্রতিষ্ঠান পণ্যের ক্রেতার কাছ থেকে মূল্য আদায় করবে।

পরীক্ষামূলক এমন লোকাল ফ্যাক্টরিং বা রিসিভেবলস ফাইন্যান্সিং প্ল্যাটফর্ম চালুর জন্য একটি কোম্পানিকে অনুমোদনও দিয়েছে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের পেমেন্ট সিস্টেমস বিভাগ। থিংকবিগ সলিউশন লিমিটেড নামের ওই প্রতিষ্ঠানকে অনুমোদন দিয়ে গতকাল মঙ্গলবার ডিজিটাল প্ল্যাটফর্মের মাধ্যমে লোকাল ফ্যাক্টরিং বা রিসিভেবলস ফাইন্যান্সিং পরিচালনার জন্য একটি নীতিমালা জারি করে ব্যাংক খাতের এই নিয়ন্ত্রক সংস্থাটি। পাইলটিংয়ের জন্য এ ধরনের প্রতিষ্ঠানকে এক বছর সময় দিচ্ছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক।

এ সংক্রান্ত নীতিমালা জারির বিষয়ে বাংলাদেশ ব্যাংক জানায়, এমএসএমইগুলো এ প্ল্যাটফর্মে ইলেকট্রনিক পদ্ধতিতে ট্রেড রিসিভেবলস আপলোড করতে পারবে। আগ্রহী ব্যাংক বা আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলো এই ট্রেড রিসিভেবলসের বিপরীতে বিনিয়োগ করতে পারবে। এতে এমএসএমইগুলো ট্রেড রিসিভেবলসের বিপরীতে দ্রুত ও সহজে অর্থ পাবে। ব্যবসা চালানো সহজ হবে। অন্যদিকে বিনিয়োগকারী প্রতিষ্ঠানগুলো ট্রেড রিসিভেবলস মেয়াদ পূর্তির পর ক্রেতা প্রতিষ্ঠানের কাছ থেকে মূল্য সংগ্রহ করে লাভবান হতে পারবে।

একটি ব্যাংক বা আর্থিক প্রতিষ্ঠান একটি ক্রেতাকে ৫ কোটি টাকার পণ্য কেনার জন্য ট্রেড রিসিভেবলসের ওপর বিনিয়োগ করতে পারবে। একটি ফ্যাক্টরিং লেনদেনে সর্বোচ্চ ২৫ লাখ টাকা লেনদেন করা যাবে। একটি এমএসএমই সর্বোচ্চ ১ কোটি টাকা বিনিয়োগ পাবে।