মহামারী শেষের লক্ষণ নেই, নতুন ভ্যারিয়েন্টের আশঙ্কা ডব্লিউএইচও’র|340327|Desh Rupantor
logo
আপডেট : ২০ জানুয়ারি, ২০২২ ০৯:৫৬
মহামারী শেষের লক্ষণ নেই, নতুন ভ্যারিয়েন্টের আশঙ্কা ডব্লিউএইচও’র
অনলাইন ডেস্ক

মহামারী শেষের লক্ষণ নেই, নতুন ভ্যারিয়েন্টের আশঙ্কা ডব্লিউএইচও’র

ফাইল ছবি

করোনাভাইরাস (কভিড-১৯) মহামারী শেষ হওয়ার কোনো লক্ষণ নেই বলে মনে করছেন বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার (ডব্লিউএইচও) প্রধান তেদ্রোস আধানম গেব্রিয়েসুস। তার আশঙ্কা, ওমিক্রনের ব্যাপক বিস্তারের ফলে নতুন ভ্যারিয়েন্ট আসতে পারে।

কভিড মহামারী এবার শেষের পথে এবং এটি ধীরে ধীরে সাধারণ ফ্লু হয়ে যাবে- বিশেষজ্ঞদের এমন আশাবাদের মধ্যেই এই শঙ্কার কথা জানালেন তিনি।

জেনেভায় ডব্লিউএইচও’র সদর দপ্তরে এক সংবাদ সম্মেলনে সংস্থাটির প্রধান বলেন, ‘মহামারী শেষ হওয়ার কোনো লক্ষ্মণ নেই।’

ওমিক্রনকে মৃদু বলা প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘কোনো ভুল করবেন না। ওমিক্রনে হাসপাতালে ভর্তি হতে হচ্ছে, মৃত্যুও হচ্ছে।’

গেব্রিয়েসুস বলেন, ‘গড়ে হয়তো বেশির ভাগ মানুষই কম ভুগছেন। কিন্তু যেভাবে একে হালকা করে দেখানো হচ্ছে, সেটা ভুল। এতে ভুল বার্তা যাচ্ছে। মানুষকে প্রাণের দাম দিতে হচ্ছে।’

বিশ্ব নেতাদের হুঁশিয়ার করে তিনি বলেন, ‘বিশ্বব্যাপী ওমিক্রনের অস্বাভাবিক বিস্তারের কারণে নতুন ধরন আসতে পারে, যে কারণে এটা অনুধাবন এবং পর্যালোচনা করা এখনো জটিলই রয়ে গেল।’

ডব্লিউএইচও প্রধান বলেন, ‘যে সব দেশে টিকা দেওয়ার হার কম, এমন অনেক দেশ সম্পর্কে আমি বিশেষভাবে শঙ্কিত। কারণ লোকজন যদি টিকা না পেয়ে থাকে, তবে তাদের গুরুতর অসুস্থ হওয়া এবং মৃত্যুর ঝুঁকি অনেক গুণ বেশি।’

এর আগে করোনা মহামারী শেষের আশার বাণী শুনিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের শীর্ষ সংক্রামক রোগ বিশেষজ্ঞ ড. অ্যান্থনি ফাউচি বলেছিলেন, ওমিক্রনের মধ্য দিয়ে প্রাণঘাতী মহামারী পর্বটি ‘এনডেমিক’ বা সাধারণ রোগের স্তরে পৌঁছাতে পারে।