ঠোঁট ফাটা ঠেকাতে|340449|Desh Rupantor
logo
আপডেট : ২১ জানুয়ারি, ২০২২ ০০:০০
ঠোঁট ফাটা ঠেকাতে

ঠোঁট ফাটা ঠেকাতে

শীতে বাতাসে আর্দ্রতা কমে যাওয়ায় ত্বকের নানা সমস্যার মধ্যে ঠোঁট ফাটা অন্যতম। মুখের নরম ত্বকটি কিছুক্ষণ পরপরই শুষ্ক হয়ে ওঠে। ঠিকমতো পরিচর্যা না করলে ঠোঁট ফেটে রক্তক্ষরণও হয়। অনেকে ঠোঁট ফাটা ঠেকাতে চ্যাপস্টিক ও লিপবাম ব্যবহার করেন। এগুলো সাময়িক স্বস্তি দিলেও দীর্ঘমেয়াদি সমাধান নয়। জেনে রাখুন কিছু বিষয়

বেশি বেশি পানি খান

ঠোঁট ফাটার প্রধান কারণ শরীরে পানির স্বল্পতা। পানি কম খেলে গ্রীষ্মেও ঠোঁট শুষ্ক হয়ে ওঠে। তাই পর্যাপ্ত পরিমাণ পানি পান করুন। এতে ঠোঁটের ত্বকে আর্দ্রতা বজায় থাকবে।

অ্যালোভেরা

ত্বকের যতে্ন অ্যালোভেরার বিকল্প নেই। শীতে ঠোঁটের আর্দ্রতা বজায় রাখতে অ্যালোভেরার রস ব্যবহার করতে পারেন।

অলিভ অয়েল

শীতে ত্বকের শুষ্কতা কমাতে অনেকেই অলিভ অয়েল ব্যবহার করেন। ফ্যাটি অ্যাসিড সমৃদ্ধ এ তেল প্রাকৃতিক ময়েশ্চারাইজার হিসেবে পরিচিত। দিনে দুবার ঠোঁটে অলিভ অয়েল মাখলে ঠোঁট নরম ও মসৃণ হবে।

শাক-সবজি

ঠোঁট ভালো রাখতে ফল ও সবজি খাওয়ার বিকল্প নেই। শীতে ভিটামিন ‘সি’ সমৃদ্ধ ফল বেশি করে খান। এতে ঠোঁটের ত্বক আর্দ্রতা পাবে শরীর থেকেই।

ঠোঁটে জিভ দেওয়া যাবে না

অনেকে শুষ্ক ঠোঁট জিভ দিয়ে ভেজান। কিন্তু রুক্ষ ঠোঁট নরম করার এই সহজ উপায় আসলে ঠোঁট ফাটার মূল কারণ। বারবার জিভ দিয়ে ঠোঁট ভেজালে আরও ফেটে চামড়া উঠে যায়, রক্তও পড়তে পারে। তাই এই অভ্যাস ছাড়ুন।