১৭৬ ব্যবসায়ী পেলেন সিআইপি কার্ড|340467|Desh Rupantor
logo
আপডেট : ২১ জানুয়ারি, ২০২২ ০০:০০
১৭৬ ব্যবসায়ী পেলেন সিআইপি কার্ড
নিজস্ব প্রতিবেদক

১৭৬ ব্যবসায়ী পেলেন সিআইপি কার্ড

ব্যবসা-বাণিজ্যে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখার স্বীকৃতিস্বরূপ দেশের ১৭৬ ব্যবসায়ীকে গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তি (সিআইপি) হিসেবে নির্বাচন করেছে সরকার। দেশের রপ্তানি ও ট্রেডে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখায় গতকাল বৃহস্পতিবার রাজধানীর একটি হোটেলে এক অনুষ্ঠানে এসব ব্যবসায়ীর হাতে সিআইপি কার্ড তুলে দেন বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি।

বাণিজ্য মন্ত্রণালয় ও রপ্তানি উন্নয়ন ব্যুরো যৌথভাবে এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে। তৈরি পোশাক, কাঁচা পাট ও পাটজাত দ্রব্য, চামড়াজাত দ্রব্য, হিমায়িত খাদ্য, ফেব্রিক্স, স্পেশালাইজড টেক্সটাইল ও হস্তশিল্প, কম্পিউটার সফটওয়্যারসহ দেশের মোট ২২টি খাতের পণ্য ও সেবা খাতের রপ্তানিতে বিশেষ অবদান রাখায় এসব ব্যবসায়ীকে সিআইপি নির্বাচিত করা হয়েছে। ২০১৮ সালের জন্য রপ্তানি খাতে ১৩৮ জন এবং ট্রেডে ৩৮ জনসহ মোট ১৭৬ জনকে বাণিজ্যিক গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিকে সিআইপি সম্মানে ভূষিত করা হয়।

বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা জানান, সিআইপি মনোনীতরা বাংলাদেশ সচিবালয়ে প্রবেশের জন্য পাস ও গাড়ির স্টিকার পাবেন। বিভিন্ন জাতীয় অনুষ্ঠান ও মিউনিসিপ্যাল করপোরেশন কর্তৃক আয়োজিত নাগরিক সংবর্ধনায় আমন্ত্রণ পাবেন তারা। এ ছাড়া ব্যবসা-সংক্রান্ত ভ্রমণে বিমান, রেল, সড়ক ও জলপথে সরকারি যানবাহনে তাদের আসন সংরক্ষণে অগ্রাধিকার দেওয়া হবে।

বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব তপন কান্তি ঘোষের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য দেন এফবিসিসিআইয়ের প্রেসিডেন্ট মো. জসিম উদ্দিন, রপ্তানি উন্নয়ন ব্যুরোর ভাইস চেয়ারম্যান এ এইচ এম আহসান।

যারা সিআইপি কার্ড পেয়েছেন, তাদের মধ্যে অন্যতম হচ্ছেন বেঙ্গল গ্রুপের এমডি ও এফবিসিসিআই সভাপতি মো. জসিম উদ্দিন, হা-মীম গ্রুপের এমডি এ কে আজাদ, এনভয় গ্রুপের এমডি আবদুস সালাম মুর্শেদী, মীর টেলিকমের এমডি মীর নাসির হোসেন, স্কয়ার ফুড অ্যান্ড বেভারেজের এমডি অঞ্জন চৌধুরী, প্রাণ গ্রুপের চেয়ারম্যান আহসান খান চৌধুরী, আকিজ জুট মিলসের চেয়ারম্যান শেখ নাসির উদ্দিন, পিকার্ড বাংলাদেশের এমডি ও এমসিসিআই সভাপতি সাইফুল ইসলাম, এনভয় টেক্সটাইলের চেয়ারম্যান কুতুব উদ্দিন আহমেদ, নোমান গ্রুপের এমডি আবদুল্লাহ মোহাম্মদ জুবায়ের, ডিবিএল গ্রুপের পরিচালক মোহাম্মদ আবদুর রহিম, সার্ভিস ইঞ্জিন লিমিটেডের এ এস এম মহিউদ্দিন মোনেম, ম্যাকসন্স স্পিনিংয়ের এমডি ও বিটিএমএ সভাপতি মোহাম্মদ আলী খোকন, বিএসআরএম স্টিলসের এমডি আমের আলী হুসাইন প্রমুখ।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি বলেন, নতুন রপ্তানি নীতিতে ৮০ বিলিয়ন ডলারের রপ্তানি আয়ের লক্ষ্যমাত্রা হাতে নেওয়া হয়েছে। এ লক্ষ্যমাত্রা অর্জন মোটেই অস্বাভাবিক নয়। চীন, ভিয়েতনাম থেকে ব্যবসায়ীরা আসছেন। নতুন কিছু ক্ষেত্র তৈরি হচ্ছে। ফলে রপ্তানি বাড়বে। কিন্তু এ জন্য পণ্যের বহুমুখীকরণ দরকার। তিনি বলেন, ২০২৬ সালের পর উন্নত দেশের সঙ্গে প্রতিযোগিতা করে ব্যবসা করতে হবে। এ জন্য প্রস্তুতি দরকার। প্রতিযোগিতায় টিকে থাকতে দক্ষতা বাড়াতে হবে।