সড়কে প্রাণ গেল এসএসসি পরীক্ষার্থী তিন বন্ধুর|340533|Desh Rupantor
logo
আপডেট : ২১ জানুয়ারি, ২০২২ ০০:০০
সড়কে প্রাণ গেল এসএসসি পরীক্ষার্থী তিন বন্ধুর
বিভিন্ন স্থানে নিহত আরও ৬
রূপান্তর ডেস্ক

সড়কে প্রাণ গেল এসএসসি পরীক্ষার্থী তিন বন্ধুর

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বিজয়নগর উপজেলায় পিকআপ ভ্যানের চাপায় মোটরসাইকেল আরোহী তিন এসএসসি পরীক্ষার্থী নিহত হয়েছে। গত বুধবার রাত সাড়ে ৭টার দিকে উপজেলার বুধন্তী ইউনিয়নের ইসলামপুর এলাকায় ঢাকা-সিলেট মহাসড়কে এ দুর্ঘটনা ঘটে। ওই রাতে টাঙ্গাইলের মির্জাপুরে সড়ক দুর্ঘটনায় প্রাণ গেছে আরেক মোটরসাইকেল আরোহীর এবং মাদারীপুরে শিবচরে প্রাণ হারিয়েছেন এক ওষুধ কোম্পানির বিক্রয় প্রতিনিধি। এ ছাড়া গতকাল বৃহস্পতিবার সাতক্ষীরা, চট্টগ্রাম, ময়মনসিংহ ও নীলফামারীতে সড়ক দুর্ঘটনায় আরও অন্তত চারজনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে।

প্রতিনিধি ও সংবাদদাতাদের পাঠানো তথ্যে বিস্তারিত

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার খাঁটিহাতা হাইওয়ে থানার ওসি মো. শাহজালাল আলমের বরাতে ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি জানিয়েছেন, গত বুধবার সন্ধ্যায় ৭টার দিকে বিজয়নগর উপজেলার ইসলামপুর এলাকার পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটের সামনে হবিগঞ্জের মাধবপুরগামী একটি মোটরসাইকেলকে ধাক্কা দেয় বিপরীত দিক থেকে আসা একটি পিকআপ ভ্যান। এতে ঘটনাস্থলেই মোটরসাইকেল আরোহী বিজয়নগর উপজেলার বীরপাশা এলাকার আলফাজ মিয়ার ছেলে অন্তর মিয়া (১৬) ও একই উপজেলার কেনা এলাকার নান্নু মিয়ার ছেলে রবিউল ইসলাম (১৬) মারা যায়। এ ঘটনায় গুরুতর আহত হয় বিজয়নগর উপজেলার স্যামরা গ্রামের বাচ্চু মিয়ার ছেলে আনন্দ মিয়া (১৬)। তাকে জরুরি ভিত্তিতে ঢাকায় পাঠানো হয়। তবে রাতেই ঢামেকে তার মৃত্যু হয়।

তিনি জানান, নিহতরা ইসলামপুর কাজী রফিকুল ইসলাম স্কুল অ্যান্ড কলেজের শিক্ষার্থী। ওই প্রতিষ্ঠানের অধ্যক্ষ মো. ইমরান খান জানান, মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় নিহত তিনজনই আমাদের প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থী। তাদের ২০২২ সালে এসএসসি পরীক্ষায় অংশ নেওয়ার কথা ছিল।

টাঙ্গাইল (মির্জাপুর) প্রতিনিধি জানিয়েছেন, উপজেলায় সড়ক দুর্ঘটনায় রাজি আল মাহামুদ (৪৫) নামে এক মোটরসাইকেল আরোহী নিহত হয়েছেন। গত বুধবার সন্ধ্যা ৭টার দিকে ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কের উপজেলার সাটিয়াচরাতে এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহত রাজি আল মাহামুদ উপজেলার জামুর্কী ইউনিয়নের কাটরা গ্রামের মৃত রিয়াজ উদ্দিন মাহামুদের ছেলে।

গোড়াই হাইওয়ে থানা-পুলিশ জানায়, মহাসড়কের ওই স্থানে মোটরসাইকেলটি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে সার্ভিস লেনে ধাক্কা খায়। এ সময় রাজি আল মাহামুদের পা মোটরসাইকেলের চাকার ভেতর ঢুকে দ্বিখণ্ডিত হয়ে যায়। আশঙ্কাজনক অবস্থায় তাকে কুমুদিনী হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অতিরিক্ত রক্তক্ষরণের ফলে রাতেই তার মৃত্যু হয়।

শিবচর (মাদারীপুর) প্রতিনিধি জানিয়েছেন, গত বুধবার রাত সাড়ে ১১টার দিকে শিবচর পৌরসভার শেখ হাসিনা সড়কে একটি পুরাতন থ্রি-হুইলার থেকে শফিকুল ইসলাম (২৮) নামে ওষুধ কোম্পানির এক বিক্রয়কর্মীর লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। নিহত যুবক বরগুনার বামনা উপজেলার সোনাখালী গ্রামের নুরুল হকের ছেলে। তিনি কিউ রেক্স কোম্পানিতে কর্মরত ছিলেন। পুলিশের ধারণা, রাতের কোনো একসময় সড়ক দুর্ঘটনায় মৃত্যু হয়েছে তার।

শিবচর থানার উপপরিদর্শক রবিউল ইসলাম জানান, গত বুধবার রাত সাড়ে ১০টার দিকে শফিকুল ইসলাম তার দুজন সহকর্মীকে নিয়ে মাহেন্দ্র চড়ে শিবচরের মাদবরচরের বিভিন্ন বাজারে ওষুধ বিক্রি করে শিবচর ফিরছিলেন। মাদবরচরের খাড়াকান্দি এলাকায় পৌঁছালে রাস্তার ওপর থাকা ড্রেজারের পাইপে ধাক্কা লেগে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে মাহেন্দ্রটি উল্টে যায়। এ সময় গাড়ির নিচে চাপা পড়ে শফিকুল গুরুতর আহত হন। পরে তার সঙ্গে থাকা দুই সহকর্মী স্থানীয়দের সহযোগিতায় ওই মাহেন্দ্র গাড়িতে করেই গুরুতর আহত শফিকুল ইসলামকে শিবচর হাসপাতালের উদ্দেশে রওনা দেন। তবে হাসপাতালে পৌঁছানোর আগেই শিবচর পৌরসভার শেখ হাসিনা সড়কে শফিকুল ইসলাম মারা যান। পুলিশ ধারণা করছে, সহকর্মীরা ভয়ে তার লাশ মাহেন্দ্র গাড়িতে রেখেই পালিয়ে যান।

সাতক্ষীরা প্রতিনিধি জানিয়েছেন, গাড়ি ধোয়ার সময় পেছনের চাকায় পিষ্ট হয়ে এক হেলপারের মৃত্যু হয়েছে। তার নাম তানভির হোসেন। তিনি খুলনা সোনাডাঙ্গা থানার বাসিন্দা।

সাতক্ষীরা সদর থানার উপপরিদর্শক অহিদুল ইসলাম বলেন, গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে সাতক্ষীরা শহরের রাধানগরের ঈগল পরিবহন কাউন্টারের সামনে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

উপপরিদর্শক অহিদুল ইসলাম আরও জানান, লাশ উদ্ধার করে থানায় আনা হয়েছে। দুর্ঘটনাকবলিত পরিবহনটি জব্দ করা হয়েছে। চালক পালিয়ে গেছে। লাশ ময়নাতদন্তের জন্য সদর হাসপাতাল মর্গে রাখা হয়েছে।

ময়মনসিংহ সংবাদদাতা জানিয়েছেন, ময়মনসিংহের নান্দাইল উপজেলায় ইজিবাইক-ট্রলি সংঘর্ষে ইজিবাইকের চালক কাঞ্চন মিয়া (২৮) নিহত হয়েছেন। গতকাল বিকেল ৫টার দিকে ময়মনসিংহ-কিশোরগঞ্জ মহাসড়কের পালাহার নামক স্থানে এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহত কাঞ্চন ধরগাঁও উকুন্দিপাড়া গ্রামের আবদুল বারিক মাস্টারের ছেলে। এ ঘটনায় আরও চারজন গুরুতর আহত হয়েছেন।

পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা গেছে, কিশোরগঞ্জ থেকে যাত্রী উঠিয়ে ইজিবাইকটি নান্দাইল চৌরাস্তার দিকে যাচ্ছিল। ওই সময় বিপরীত দিক থেকে আসা একটি দ্রুতগামী ট্রলির সঙ্গে মুখোমুখি সংঘর্ষ বাধে। এতে ইজিবাইকটির সামনের অংশ দুমড়েমুচড়ে যায়। এ ঘটনায় কাঞ্চনসহ আরও চারজন গুরুতর আহত হন। পরে স্থানীয় লোকজন আহতদের উদ্ধার করে কিশোরগঞ্জ সদর হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পথে কাঞ্চন মিয়া মারা যান।

নান্দাইল হাইওয়ে থানার উপপরিদর্শক হামিদ মিয়া জানান, আহতদের নামপরিচয় পাওয়া যায়নি। তারা সবাই ইজিবাইকের যাত্রী ছিলেন।

সীতাকুণ্ড (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি জানিয়েছেন, উপজেলায় সড়ক দুর্ঘটনায় মো. টিটু (৩২) নামে এক যুবক নিহত হয়েছেন। গতকাল বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা ৭টার সময় সীতাকুণ্ড থেকে চট্টগ্রাম শহরের বায়েজিদ লিংক রোডের ২ নম্বর সেতু এলাকার বেঙ্গল গেট নামক স্থানে এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহত টিটু উপজেলার ফকিরহাট এলাকার কালুশাহ মাজারসংলগ্ন মিলন কন্ট্রাক্টরের বাড়ির মো. শামসুর ছেলে। দুর্ঘটনায় মো. রোহান (২২) নামের অপর এক যুবক গুরুতর আহত হন।

সীতাকুণ্ড থানার ইন্সপেক্টর তদন্ত সুমন বণিক জানান, বায়েজিদ লিংক রোডের বেঙ্গল গেট নামক স্থানে একটি প্রাইভেট কার নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে দুজন পথচারীকে চাপা দিলে এই হতাহতের ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় দায়ী প্রাইভেট কার ও এর চালককে আটক করা হয়েছে।

নীলফামারী সংবাদদাতা জানান, নীলফামারীতে ট্রাকের চাপায় প্রাণ গেল নুরনাহার বেগম (৩৫) নামে এক পোশাক শ্রমিকের। গতকাল রাত ৮টার দিকে জেলা শহরের কালীবাড়ী মোড় এলাকায় ঘটনাটি ঘটে। নিহত নুরনাহার জেলা সদরের চওড়াবড়গাছা ইউনিয়নের ভাঙ্গামাল্লী গ্রামের গোলাম মোস্তফার স্ত্রী।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, ওই রাতে বাসে ঢাকা যাওয়ার জন্য গ্রামের বাড়ি থেকে দেবর ফরিদ আহমেদের (৩০) মোটরসাইকেলে করে শহরে আসেন নুরনাহার। বাস কাউন্টারে পৌঁছার আগে পেছন থেকে পাটবোঝাই একটি ট্রাক মোটরসাইকেলকে ধাক্কা দেয়। এতে মোটরসাইকেল থেকে ছিটকে পড়ে ট্রাকের চাকায় পিষ্ট হলে ঘটনাস্থলেই নিহত হন নুরনাহার বেগম। ঘটনার পর উপস্থিত লোকজন ট্রাকটিকে আটক করলেও চালক এবং হেলপার পালিয়ে যায়।

নীলফামারী সদর থানার ওসি আবদুর রউফ বলেন, ঘটনাস্থল থেকে লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। ট্রাকটিকে আটক করা হয়েছে।