কারওয়ান বাজার সরিয়ে নেয়ার পরিকল্পনা শেষ পর্যায়ে: আতিকুল|340751|Desh Rupantor
logo
আপডেট : ২২ জানুয়ারি, ২০২২ ১৬:৩৩
কারওয়ান বাজার সরিয়ে নেয়ার পরিকল্পনা শেষ পর্যায়ে: আতিকুল
নিজস্ব প্রতিবেদক

কারওয়ান বাজার সরিয়ে নেয়ার পরিকল্পনা শেষ পর্যায়ে: আতিকুল

কারওয়ান বাজার সরিয়ে নেয়ার পরিকল্পনা শেষ পর্যায়ে জানিয়ে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়র আতিকুল ইসলাম বলেছেন একটি সিটির মধ্যে এ রকম হোল সেল মার্কেট থাকতে পারে না।

শনিবার সকালে রাজধানীর কারওয়ান বাজারে মাস্ক ব্যবহারে জনসচেতনতামূলক ক্যাম্পেইনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা জানান।

আতিকুল ইসলাম বলেন, আমরা চাচ্ছি কারওয়ান বাজারকে কীভাবে একটি আধুনিক মার্কেট করা যায়। কারওয়ান বাজারকে সরিয়ে গাবতলী এবং সায়েদাবাদে নিয়ে যাওয়া যায় এ রকম পরিকল্পনা শেষ পর্যায়ে। কারওয়ান বাজারকে সরিয়ে এখানে অত্যাধুনিক হাব বিজনেস সেন্টার হবে। সেই পরিকল্পনা আমরা করে ফেলেছি। আমি সবার সহযোগিতা চাই।

তিনি বলেন, একটি সিটির মধ্যে এ রকম হোল সেল মার্কে থাকতে পারে না। দোকান মালিক সমিতি, এই এলাকার সংসদ সদস্য স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী- আমরা সবাই মিলে আলাপ করেছি। কারওয়ান বাজার সরিয়ে কীভাবে গাবতলী নিতে পারি, কারওয়ান বাজার সরিয়ে কীভাবে সায়েদাবাদে নিতে পারি এভাবে আমরা ইমপ্লিকেশন করছি। আমরা মনে করি, ২০৪১ সালে উন্নত দেশ হবে বাংলাদেশ। তখন কিন্তু কারওয়ান বাজারের চেহারাও পাল্টে যাবে।

তিনি বলেন, আমরা রাতে কাজ করছি। সকালে দোকান খুলেই দোকানের ময়লা রাস্তার ওপর ফেলে দিচ্ছে। আমাদের সেই চ্যালেঞ্জগুলো আছে। আমাদের গাড়ি আছে, ড্রাইভার নেই। ড্রাইভার আছে, তার লাইসেন্স নেই। এটি এক দিনে হয়নি। এটা যুগে যুগে হয়ে আজ এই অচলাবস্থার সৃষ্টি। এই অচলাবস্থা থেকে মুক্তির জন্য আমরা কাজগুলো করছি। সিটি করপোরেশনের গাড়ি ব্যবস্থাপনা যেটা আছে এটিকে কীভাবে আধুনিক সফটওয়্যারের মাধ্যমে পরিচালনা হবে সেই কাজ শেষ পর্যায়ে নিয়ে এসেছি।

আমরা দেখছি, যত ডোবা ছিল সেগুলো ভরাট হয়ে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান উঠছে। অর্থাৎ আমাদের জলাশয় ভরাট হয়ে যাচ্ছে। মেট্রো রেল থেকে শুরু সব কাজ চলছে। আমি বলবো যারা নির্মাণ কাজ করছেন, তারা যদি দায়িত্ব নিয়ে আপনার এলাকায় পানি ছিটিয়ে দেন তাহলে বায়ু দূষণ অনেক কমে যায়। এলিভেডেট এক্সপ্রেসওয়ে, মেট্রো রেলসহ যেসব কাজ হচ্ছে সবাইকে দায়িত্ব নিয়ে সকালে শুধু পানি ছিটিয়ে দিতে হবে। সেটা যদি না করেন তাহলে আমাদের ম্যাজিস্ট্রেট থাকবে, আমরা ব্যবস্থা নেব—বলেন আতিকুল।