একেবারেই কম কাজ করছি|360219|Desh Rupantor
logo
আপডেট : ১৪ মে, ২০২২ ০০:০০
একেবারেই কম কাজ করছি
রণ

একেবারেই কম কাজ করছি

ছোটপর্দার জনপ্রিয় অভিনেত্রী মুমতাহিনা চৌধুরী টয়া। কাজ আগের চেয়ে কমিয়ে দিলেও ঈদে একাধিক নাটকে দেখা গেছে তাকে। সমসাময়িক বিষয়ে তার সঙ্গে কথা বলেছেন রণ

ঈদের কাজ...

এখন আর আগের মতো অনেক বেশি নাটকে কাজ করা হয় না। তারপরও ঈদে বেশ কয়েকটি নাটক প্রচার হয়েছে। এরমধ্যে রয়েছে রাফাত মজুমদার রিংকুর পরিচালনায় তৌসিফ মাহবুবের বিপরীতে ‘সিরিয়াস কোন ব্যাপার না’, মোহন আহমেদের পরিচালনায় ফারহান আহমেদ জোভানের বিপরীতে ‘বরিশাইল্লা মনু’, পনির খানের পরিচালনায় জোভানের সঙ্গে আরেকটি নাটক ‘শেষ বিকেলের বৃষ্টি’, ওসমান মিরাজের পরিচালনায় সৈয়দ জামান শাওনের সঙ্গে ‘জ্ঞান জাম’সহ বেশ আগে করা কয়েকটি নাটক।

দর্শক সাড়া...

এখন তো টিভি দেখে কেউ সেভাবে ভালো-মন্দ জানায় না। ইউটিউবে আসার পর বোঝা যায় দর্শক কোন নাটক কতটা পছন্দ করছে। সে হিসাবে বলতে গেলে, আমি বেশ তুষ্ট। কারণ, এবারের ঈদে খুব একটা সিরিয়াস কাজ করা হয়নি। ঈদের আনন্দে দর্শক একটু হালকা আমেজের নাটকই বেশি পছন্দ করে। সেদিক থেকে আমার নাটকগুলোর কোনোটি ছিল রোমান্টিক, কোনোটি রোমান্টিক-কমেডি আবার কোনোটি একেবারেই কমেডি ধাঁচের। ইউটিউবের কমেন্ট বক্সে বেশিরভাগ ভালো ভালো মন্তব্যই চোখে পড়েছে।

চ্যালেঞ্জ...

আমি একেবারেই কম কাজ করছি। ধারাবাহিক নাটক করছি না অনেক দিন হলো। অল্পবিস্তর খন্ড নাটকে অভিনয় করলেও গল্প হতে হবে ব্যতিক্রমী। পর্দায় এখন আর সেভাবে নিয়মিত দেখা যায় না আমাকে। তবে এ নিয়ে আমার মধ্যে কোনো ভীতি নেই। পর্দায় নিয়মিত থাকার জন্য যাচ্ছেতাই কাজ করে কোনো লাভ নেই। বরং বছরে একটা বড় আয়োজনের কাজ করলেও দর্শক সেটি মনে রাখে। শ্যুটিং খুব একটা না থাকলে আমি কিন্তু কর্মহীন থাকি না। বিভিন্ন ব্র্যান্ডের প্রচার-প্রচারণা নিয়ে প্রচুর কাজ করতে হয়।

প্রস্তুতি...

এখন কাজের ধরন বদলেছে। আউট অব দ্য বক্স টাইপের কাজ করতে হবে টিকে থাকতে গেলে। তাই টিভি নাটক একদম কমিয়ে দিয়েছি। ওয়েবে কাজের জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছি। শিগগিরই দারুণ একটি কাজ দিয়ে ওয়েবে ফিরব।

ওয়েবে...

এখন ওয়েবের সময়। ভালো কাজের সম্ভাবনা ওয়েবেই বেশি। এখানে প্রস্তুতি নিয়ে একটা প্রপার গল্প ও পরিকল্পনা নিয়ে কাজ হয়। আমি সে ধরনের কাজই করতে পারি। একটি চরিত্রে প্রবেশের জন্য যথেষ্ট সময় নিয়ে, গবেষণা করে কাজ করতে চাই। তবে এখন যেহেতু ওয়েবের যাত্রা শুরুর দিকে, তাই সবাই নিরাপত্তা খুঁজছে। যেভাবে কাজ করলে তাদের পুঁজি সহজে ফিরে আসবে সেভাবেই কাজ হচ্ছে। তবে ওয়েব দাঁড়িয়ে গেলে আমরা ভালো কাজের সুযোগ পাব।