মেয়র পদে এবার রিফাতে আস্থা আ.লীগের|360227|Desh Rupantor
logo
আপডেট : ১৪ মে, ২০২২ ০০:০০
কুসিক নির্বাচন
মেয়র পদে এবার রিফাতে আস্থা আ.লীগের
নিজস্ব প্রতিবেদক, কুমিল্লা

মেয়র পদে এবার রিফাতে আস্থা আ.লীগের

কুমিল্লা সিটি করপোরেশন (কুসিক) নির্বাচনে মেয়র পদে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেয়েছেন দলের মহানগর শাখার সাধারণ সম্পাদক আরফানুল হক রিফাত। গতকাল শুক্রবার সন্ধ্যায় প্রধানমন্ত্রীর সরকারি বাসভবন গণভবনে আওয়ামী লীগের স্থানীয় সরকার জনপ্রতিনিধি মনোনয়ন বোর্ডের সভায় নৌকার প্রার্থী হিসেবে রিফাতের মনোনয়ন চূড়ান্ত করা হয়।

তৃণমূলের ত্যাগী নেতা হিসেবে পরিচিত রিফাতের মনোনয়ন পাওয়ার খবরে নগরীর আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীরা উল্লাস প্রকাশ করেছেন। দলীয় কার্যালয়ে নেতাকর্মীদের মিষ্টি বিতরণ করতে দেখা যায়। সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে কয়েক হাজার নেতাকর্মী মিছিল বের করে অভিনন্দন জানান আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ধন্যবাদ জানান।

মনোনয়ন পাওয়ার পর আরফানুল হক রিফাত সাংবাদিকদের বলেন, ‘জননেত্রী শেখ হাসিনা আমার রাজনৈতিক জীবনে ত্যাগের মূল্যায়ন করেছেন। আমি তার কাছে কৃতজ্ঞ। আমি আমার রাজনৈতিক অভিভাবক আ ক ম বাহাউদ্দিন বাহারের সার্বিক নির্দেশনায় সুন্দরভাবে নির্বাচন পরিচালনা করে দলকে বিজয় উপহার দিতে চাই।’

কুমিল্লা সিটি নির্বাচনে মেয়র পদে দলের মনোনয়ন পেতে ১৪ জন আওয়ামী লীগের মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করেছিলেন। তাদের মধ্যে আলোচনায় ছিলেন কুমিল্লা মহানগর আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহসভাপতি আঞ্জুম সুলতানা সীমা (সংরক্ষিত আসনের সংসদ সদস্য)। তিনি ২০১৭ সালের ৩০ মার্চ অনুষ্ঠিত কুমিল্লা সিটি করপোরেশন নির্বাচনে মেয়র পদে পরাজিত হন। তিনি কুমিল্লা দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের প্রয়াত নেতা আফজল খানের মেয়ে।

এবার মনোনয়ন পাওয়া আরফানুল হক রিফাত ১৯৭৪ সালে কুমিল্লা জিলা স্কুল থেকে এসএসসি পাস করেন, পরে পর্যায়ক্রমে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়া কলেজ থেকে এইচএসসি এবং স্নাতক ডিগ্রি লাভ করেন। জিলা স্কুলে পড়াকালীন তিনি কুমিল্লা মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি এবং কুমিল্লা সদর আসনের সংসদ সদস্য বাহাউদ্দিন বাহারের অনুসারী হিসেবে ছাত্রলীগের রাজনীতিতে সম্পৃক্ত হন। ১৯৮০ সালে তিনি শহর ছাত্রলীগের সভাপতির পদ লাভ করেন। ১৯৮১ সালে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়া কলেজ ছাত্র সংসদের ছাত্রলীগের প্যানেল থেকে তিনি বহিঃক্রীড়া ও ব্যায়ামাগার সম্পাদক নির্বাচিত হন। একই বছরে জামায়াত-শিবিরের নেতাকর্মীদের হামলার শিকার হন তিনি। তার দুই হাত এবং দুই পায়ের রগ কেটে দেওয়া হয়। ১৯৯৬ সালে তিনি কেন্দ্রীয় যুবলীগের সদস্যপদ লাভ করেন। পরে তিনি কুমিল্লা জেলা যুবলীগের সিনিয়র সহসভাপতির দায়িত্ব পালন করেন। ২০১৭ সালে তিনি কুমিল্লা মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদকের পদ লাভ করেন।

কুমিল্লা মহানগর আওয়ামী লীগের সহসভাপতি জহিরুল ইসলাম সেলিম সাংবাদিকদের বলেন, ‘জননেত্রী শেখ হাসিনা এবার তৃণমূলের পোড়খাওয়া একজন নেতাকে মনোনয়ন দিয়েছেন। দল ঐক্যবদ্ধ হয়ে যাবে। এবার কুমিল্লায় আর কোনো দ্বিধা বিভক্তির কোনো আশঙ্কা নেই।’

যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আতিকুল্লাহ খোকন বলেন, ‘সকলের কাছে গ্রহণযোগ্য আরফানুল হক রিফাতকে বিজয়ী করতে আমাদের অনেক সহজ হবে।’

কুমিল্লা আদর্শ সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি কাজী আবুল বাশার বলেন, ‘রিফাত একজন ত্যাগী নেতা। দলের এবং নগরের মানুষের কাছে তিনি গ্রহণযোগ্য।’

গত ২৫ এপ্রিল নির্বাচন ভবনে কমিশন সভা শেষে জানানো হয়, আগামী ১৫ জুন কুমিল্লা সিটি করপোরেশন নির্বাচনের ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে।