logo
আপডেট : ২৫ সেপ্টেম্বর, ২০২২ ১৭:২৭
‘গরিব হতে পারি, কিন্তু ১০ হাজার টাকার জন্য নিজেকে বিক্রি করব না’
অনলাইন ডেস্ক

‘গরিব হতে পারি, কিন্তু ১০ হাজার টাকার জন্য নিজেকে বিক্রি করব না’

‘গরিব হতে পারি। কিন্তু মাত্র ১০ হাজার টাকার জন্য নিজেকে বিক্রি করে দিতে পারব না’। মৃত্যুর আগে নিজের বান্ধবীকে এমনই মেসেজ করেছিলেন ভারতের উত্তরাখণ্ডের ১৯ বছরের তরুণী অঙ্কিতা ভাণ্ডারী। যার মৃত্যু ঘিরে এখন রীতিমতো উত্তাল ভারতের রাজনীতি। যত দিন যাচ্ছে ততই বিজেপি নেতার ছেলে তথা অঙ্কিতা খুনের মূল অভিযুক্ত পুলকিত আর্যর একের পর এক কুকীর্তি প্রকাশ্যে আসছে।

ঘটনার সূত্রপাত দিন সাতেক আগে। উত্তরাখণ্ডের হৃষিকেশের কাছে বিজেপি নেতা বিনোদ আর্যর ছেলে পুলকিত আর্যর রিসোর্টে কর্মরত ১৯ বছরের রিসেপশনিস্ট অঙ্কিতে নিখোঁজ হয়ে যান ১৮ সেপ্টেম্বর। পরে জানা যায় ওই রিসোর্টের মালিক পুলকিত এবং রিসোর্টের ম্যানেজার ও এক কর্মী মিলে অঙ্কিতাকে খুন করেছে। প্রায় দিন পাঁচেক নিখোঁজ থাকার পর হৃষিকেশের একটি খালের ধার থেকে অঙ্কিতার দেহ পাওয়া গিয়েছে।

এই ঘটনার তদন্ত যত গভীরে যাচ্ছে, ততই প্রকাশ্যে আসছে অভিযুক্ত পুলকিতের একের পর এক কুকীর্তি। বিজেপি নেতার ছেলের ওই রিসোর্টে বহু বেআইনি কাজ হত বলে পুলিশ দাবি করেছে। জানা গিয়েছে, অঙ্কিতার মতো তরুণী রিসেপশনিস্ট এবং রিসর্টের অন্যান্য নারী কর্মীদের বাধ্য করা হত অতিথিদের ‘স্পেশ্যাল সার্ভিস’ দিতে। অঙ্কিতাকেও পুলকিত অতিথিদের সঙ্গে যৌনতায় লিপ্ত হওয়ার জন্য চাপ দিচ্ছিল। কিন্তু অঙ্কিতা তাতে রাজি হননি। পুলকিতের চাপের পরই নিজের বান্ধবীকে তিনি মেসেজ করেন, ‘আমি গরিব হতে পারি কিন্তু মাত্র ১০ হাজার টাকার জন্য নিজেকে বিক্রি করে দিতে পারব না’।

পুলিশ সূত্রের খবর, গত ১৮ সেপ্টেম্বর পুলকিত, তার রিসোর্টের ম্যানেজার এবং এক কর্মী কাজের নামে অঙ্কিতাকে বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে যায়। খালের ধারে গাড়ি দাঁড় করিয়ে মদ্যপান করে। এরপরই অঙ্কিতার সঙ্গে তাদের ঝগড়া শুরু হয়। রাগে তিনজন মিলে ১৯ বছরের তরুণীকে খালের ধার থেকে ফেলে দেয়। আপাতত অভিযুক্ত ৩ জনই পুলিশ হেফাজতে। রিসোর্টটিও গুঁড়িয়ে দিয়েছে উত্তরাখণ্ড সরকার। অভিযুক্ত পুলকিত আর্যর বাবা বিনোদ আর্যকেও দল থেকে বহিষ্কার করেছে বিজেপি।

অঙ্কিতার পরিবারের একটি অংশের দাবি, বিজেপি নেতার ছেলেকে বাঁচাতেই তড়িঘড়ি রিসোর্ট গুঁড়িয়ে দেওয়া হল। কারণ ওই রিসোর্টে এই হত্যাকাণ্ড সম্পর্কে অকাট্য প্রমাণ ছড়িয়ে ছিটিয়ে ছিল। রাজ্যের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী তথা কংগ্রেস নেতা হরিশ রাওয়াত বলেন, ‘এটা পরিকল্পিত খুন। মানুষের সন্দেহ, প্রমাণ লোপাট করতেই রিসর্ট ভাঙা হয়েছে’।

এদিকে, পুলকিতের রিসোর্ট থেকে আরও এক তরুণীর নিখোঁজ হওয়ার ঘটনা সামনে আসছে। স্থানীয়দের দাবি, আট মাস আগে রহস্যজনক ভাবে নিখোঁজ হন প্রিয়াঙ্কা নামের আরও এক তরুণী। আজ অবধি তার সন্ধান মেলেনি।

জানা গিয়েছে, অঙ্কিতারই গ্রামের বাসিন্দা ছিলেন প্রিয়াঙ্কা। পুলকিত আর্যর বনানতারা রিসর্টে কাজে যোগ দিয়েছিলেন তিনি। বিট্টু ভাণ্ডারী নামের এক স্থানীয় যুবক প্রিয়াঙ্কার প্রসঙ্গটি প্রকাশ্যে আনেন। এখন প্রশ্ন উঠছে, প্রিয়াঙ্কার কী হল? তাহলে কি আট মাসে আগে অঙ্কিতার মতোই পরিণতি হয়েছিল প্রিয়াঙ্কার? যদিও সেই সময় পুলকিত দাবি করেছিলেন, ওই তরুণী রিসর্টের টাকাপয়সা এবং মূল্যবান জিনিস নিয়ে পালিয়ে গিয়েছেন।