logo
আপডেট : ২৯ সেপ্টেম্বর, ২০২২ ১৫:২২
যুক্তরাষ্ট্রের ক্রিকেট কমিটির দায়িত্বে সাবেক টাইগার পেসার
ক্রীড়া ডেস্ক

যুক্তরাষ্ট্রের ক্রিকেট কমিটির দায়িত্বে সাবেক টাইগার পেসার

বাংলাদেশের ক্রিকেটে তার নামটা চিরকাল স্মরণীয় হয়ে থাকবে। টাইগারদের হয়ে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে প্রথম বলটা যে তিনিই করেছিলেন। খেলোয়াড় জীবন দীর্ঘ না হয়নি। খেলা ছেড়েও তাই ক্রিকেটের সঙ্গেই ছিলেন। আজকের সাকিব, রিয়াদ, মুশফিক, তামিমদের উঠতি ক্যারিয়ারের সিলেকশন কমিটির তিনজনের একজন ছিলেন গোলাম নওশের প্রিন্স। সেই তিনিই এবার দায়িত্ব নিচ্ছেন যুক্তরাষ্ট্রের ক্রিকেট বোর্ডের ক্রিকেট কমিটির সদস্য হিসেবে।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র তাদের ক্রিকেট উন্নয়নে ব্যপক কাজ করছে বলে জানিয়েছেন প্রিন্স। সেখানে আগামী ২০২৪ সালে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ হবে। আয়োজক দেশ হিসাবে যুক্তরাষ্ট্র ব্যপাক কাজ করছে। তাদের ক্রিকেট ডেভেলপম্যান্টের জন্য বিভিন্ন প্রকল্প গ্রহণ করেছে। 

টেক্সাসের হিউষ্টনে বসবাস করেন প্রিন্স। গিয়েছেন ২০০৭ সালে। প্রথম থেকেই ক্রিকেটের সঙ্গে জড়িয়ে থাকার ভাবনাটা মাথায় কাজ করছিল। খুব স্বলসময়ের মধ্যে প্রকাশও হয়ে গিয়েছিল প্রিন্সের ক্রিকেট মেধা। ছোটখাটো কাজ করতে করতে নিজের মেধার পরিচটায়ও ছড়িয়ে গেল সেখানকার মানুষের মুখে মুখে।

প্রিন্স জানালেন তিনি যেখানে আছেন সেখানে ১২টা মাঠ রয়েছে। ব্যক্তিগত উদ্যোগে মাঠ করে দিয়েছেন এমন মানুষও রয়েছেন । ক্রিকটের চর্চ্চাটা হয় খুব বেশি। বিভিন্ন বয়সের ক্রিকেট খেলোয়াড় রয়েছেন যারা মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রকে ক্রিকেটের অনন্য উচ্চতায় নিয়ে যাওয়ার স্বপ্ন দেখেন।

বাংলাদেশের ক্রিকেটের মানুষ প্রিন্স, কাজ করবেন বিদেশের মাটিতে। প্রিন্স গতকাল রাতে যুক্তরাষ্ট্র হতে ফোনে বললেন,‘আমি মার্কিন ক্রিকেটের উন্নয়নে কাজ করার সুযোগ পেয়েছি। তারা আমাকে কাজে লাগাতে চায়। আমি চেষ্টা করব যেন আমার মধ্য দিয়ে আমার দেশের মর্যাদা বৃদ্ধি পায়। আমি প্রথম বাঙ্গালি ইউএসএ ক্রিকেট বোর্ডে সম্পৃক্ত হয়েছি।’      

দীর্ঘদিন বিসিবির নির্বাচক কমিটিতে ছিলেন প্রিন্স। তাদের সময়ে নির্বাচকরাই ম্যানেজার হয়ে দেশের বাইরে বিভিন্ন বয়স ভিত্তিক দলের সঙ্গে সফর করতেন যেন খেলোয়াড়দেরকে আরো ভালোভাবে পরখ করা যায়। তাদেরই হাতে গড়ে উঠার নজির ২০০৭ বিশ্বকাপ। সে বছর তরুণদের দলে ভিড়িয়ে ভালো সাফল্য পেয়েছিল বাংলাদেশ।

২০০০-০৭ পর্যন্ত গোলাম নওশের প্রিন্স কাজ করেছেন। সে বছরই এই পদ ছেড়ে তিনি মার্কিন মুল্লুকে পাড়ি দেন। দেশের ক্রিকেটের জন্য কাল একটা ভালো খবর দিয়েছেন তিনি। মার্কিন মুল্লুকে ক্রিকেটে উন্নয়নে কাজ করবেন। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ক্রিকেট বোর্ডের ক্রিকেট কমিটির সদস্য হিসাবে দায়িত্ব পালন করার সুযোগ পেয়েছেন। বিসিবিতে যেমন ক্রিকেট অপরারেশন্স কমিটি রয়েছে, ঠিক এমন একটি কমিটির দায়িত্ব পালন করবেন বাংলাদেশের প্রিন্স।