logo
আপডেট : ১ অক্টোবর, ২০২২ ১৪:৪৮
প্রেমের টানে জয়পুরহাটে এসে বিয়ে করলেন শ্রীলঙ্কান যুবক
জয়পুরহাট প্রতিনিধি

প্রেমের টানে জয়পুরহাটে এসে বিয়ে করলেন শ্রীলঙ্কান যুবক

প্রেমের টানে হাজার মাইল পাড়ি দিয়ে শ্রীলঙ্কা থেকে বাংলাদেশের জয়পুরহাটে এসেছেন এক যুবক।

ইতিমধ্যে প্রেমিকাকে বিয়েও করে ফেলেছেন শ্রীলঙ্কার নাগরিক রোশন মিতন (৩৩)।

বৃহস্পতিবার জেলা জয়পুরহাট নোটারি পাবলিকের কার্যালয়ে অ্যাফিডেভিটের মাধ্যমে এ বিয়ের ঘোষণা দেন।

এর আগে গত ২২ সেপ্টেম্বর জয়পুরহাট সদরের উত্তর পাথুরিয়া গ্রামের রাহেনা বেগমকে (৩৫) বিয়ে করেন তিনি।

জানা গেছে, ২০১৪ সালে রাহেনা জর্ডানে গিয়ে একটি কোম্পানিতে চাকরি করতেন। ওই কোম্পানির সুপারভাইজার পদে ছিলেন শ্রীলঙ্কার যুবক রোশান। সেখানেই তাদের পরিচয় হয়। তারপর প্রেম। গত দেড় বছর আগে যুবক তার নিজ দেশে ফিরলেও জয়পুরহাটের রাহেনা বেগম দেশে ফেরেন এ বছরেই।

রাহেনা বেগম বলেন, ছোট বেলায় আমার বিয়ে হয়, সেখানে একটি বাচ্চাও আছে। এর মধ্যে ২০১৪ সালে জর্ডানে যাই। সেখানে থাকাকালীন স্বামী আমাকে ডিভোর্স দেয়।’

তিনি বলেন, মোবাইলে আমাদের কথা হতো। তার পরিবারের সাথেও আমার কথা হয়েছে। সম্প্রতি রোশান জয়পুরহাটে আসে। আমার বাবা গত ২২ সেপ্টেম্বর এলাকার মৌলভি দিয়ে এক লাখ টাকা দেনমোহর ধার্য করে আমাদের বিবাহ সম্পূর্ণ করিয়ে দেন। এরপর ২৯ সেপ্টেম্বর নোটারি পাবলিক কার্যালয়ে উপস্থিত হয়ে অ্যাফিডেভিটের মাধ্যমে বিয়ের ঘোষণা করা হয়।

তিনি বলেন, আমাদের জন্য সবাই আশীর্বাদ করবেন। আমরা যেন সারা জীবন একসঙ্গে থাকতে পারি।

বর রোশান মিতন বলেন, ‘কর্মরত অবস্থায় রাহেনা বেগমকে আমি খুব পছন্দ করতাম। নিজে বাংলাদেশের তার বাড়িতে এসে পরিবারের সম্মতিতে তাকে বিয়ে করেছি। এ দেশে নাগরিক হয়ে থাকতে চাই। আমি বাংলাদেশকে ভালোবাসি।

এ বিষয়ে জয়পুরহাট থানার ওসি সিরাজুল ইসলাম বলেন, শ্রীলঙ্কান নাগরিক জয়পুরহাটে এসে এক মেয়েকে বিয়ে করছেন আমি শুনেছি ও বিশেষ শাখা থেকে অবগত হয়েছি।