logo
আপডেট : ৬ অক্টোবর, ২০২২ ১৩:১৯
জয়ে ফেরার প্রত্যয় বাংলাদেশের
ক্রীড়া প্রতিবেদক, সিলেট থেকে

জয়ে ফেরার প্রত্যয় বাংলাদেশের

পরিসংখ্যানে এগিয়ে প্রতিপক্ষ। তবুও পাকিস্তানের কাছে হারটা মানতে যেন একটু বেশিই কষ্ট হচ্ছে জ্যোতি-সালমাদের। তার ওপর সিলেটের দ্বিতীয় গ্রাউন্ডের অদ্ভুতুড়ে আচরণ, অবিশ্বাস্য টার্নÑ সব মিলিয়ে জেরবার বাংলাদেশ আজ ফের লড়াইয়ে নামছে। প্রতিপক্ষ তুলনামূলক সহজ মালয়েশিয়া। আর মাঠও আগেরটি নয়। এবার খেলা হবে সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামের এক নম্বর গ্রাউন্ডে। মাঠ বদলে উইকেটের চরিত্র বদলাবে কিনা বুঝা মুশকিল হলেও বাংলাদেশ যে জয় ছাড়া ভাবছে না এটা আঁচ করা গেছে সানজিদা আক্তার মেঘলার কথায়।

মালয়েশিয়ার সঙ্গে এ পর্যন্ত দু’বার দেখা হয়েছে বাংলাদেশের। প্রতিবারই দাপুটে জয় পেয়েছেন মেঘলারা। তিন অঙ্কের ঘর পর্যন্ত যেতে দেননি কোনোবারই প্রতিপক্ষকে। এ দুই জয় আজ মাঠে নামার আগে অনুপ্রেরণা হিসেবে দেখছে নারী ক্রিকেট দল।

থাইল্যান্ডের বিপক্ষে দাপুটে জয়ে এশিয়া কাপ শুরু করলেও পাকিস্তানের বিপক্ষে বাজে হারে ছন্দপতন ঘটে। তবে ক্রিকেটাররা, বিশেষ করে সিনিয়ররা ইতিবাচকই আছেন। মালয়েশিয়ার বিপক্ষে আজ তাই ঘুরে দাঁড়ানোর প্রত্যয় সানজিদার কণ্ঠে, ‘আমি দলের মধ্যে জুনিয়র। আমাদের সিনিয়র আপুরা অনেক ইতিবাচক। তারা সবসময় আমাদের জুনিয়রদের সমর্থন দেন। হারজিত দলে থাকবেই, এটা নিয়ে কোনো নেতিবাচতা আমাদের নেই। আমরা ইতিবাচক আছি, পরের ম্যাচেই ঘুরে দাঁড়াব।’ প্রতিপক্ষ সম্পর্কে ধারণা আছে জানিয়ে তিনি বলেন, ‘মালয়েশিয়ার সঙ্গে কমনওয়েলথে খেলেছি। ওদের দল নিয়ে ধারণা আছে। ইনশাআল্লাহ ভালো খেলা হবে।’

নতুন উইকেটে ঘুরে দাঁড়ানোর দিনে লড়াইটা পিচ রক্ষণাবেক্ষণের ওপর নির্ভর করছে বলে মনে করছেন মেঘলা, ‘আমরা এখানে জাতীয় লিগের ম্যাচ খেলে গেছি। দুইটা মাঠেই সমানভাবে খেলা ছিল। গত ম্যাচে পাকিস্তানের সঙ্গে স্পিন উইকেট ছিল, এক নম্বর মাঠেও স্পিন আছে। এটা নির্ভর করছে পিচ কীভাবে রক্ষণাবেক্ষণ করা হচ্ছে, যেহেতু এটা নতুন ইভেন্ট।’