logo
আপডেট : ২৫ নভেম্বর, ২০২২ ১৪:০৩
ইংল্যান্ড-নেদারল্যান্ডসই ফেভারিট
সাইফুল বারী টিটু

ইংল্যান্ড-নেদারল্যান্ডসই ফেভারিট

ব্রাজিল-সার্বিয়া ম্যাচ দিয়ে কাতার বিশ্বকাপে অংশ নেওয়া সব দলেরই একটি করে ম্যাচ দেখে ফেললাম আমরা। এবার ‘দ্বিতীয় রাউন্ড’ শুরুর পালা। আর সেই পর্বে আজ আলাদা ম্যাচে মাঠে নামতে যাচ্ছে দুই বড় দল ইংল্যান্ড ও নেদারল্যান্ডস। ইরানকে গুঁড়িয়ে আসর শুরু করা ইংল্যান্ড খেলবে যুক্তরাষ্ট্রের বিপক্ষে। আর নেদারল্যান্ডস মুখোমুখি হবে ইকুয়েডরের। যে দুই ম্যাচে আমি ইংল্যান্ড ও নেদারল্যান্ডসকেই ফেভারিট বলব।

সেনেগালের বিপক্ষে নিজেদের প্রথম ম্যাচে নেদারল্যান্ডস বেশ ভাগ্যবান ছিল। ৮৩ মিনিট পর্যন্ত ম্যাচের স্কোর লাইন ছিল শূন্য-শূন্য। সেখান থেকে শেষ দিকে পেশাদার পারফরম্যান্স দেখিয়ে ম্যাচ জিতে নিয়েছে ডাচরা। ইকুয়েডরও আসর শুরু করেছে জয় দিয়ে। উদ্বোধনী ম্যাচে হারিয়েছে কাতারকে। ফলে একটি করে ম্যাচ শেষে ‘এ’ গ্রুপে শীর্ষে অবস্থান করছে নেদারল্যান্ডস ও ইকুয়েডর। লড়াইটা তাই তাদের একে অপরের থেকে এগিয়ে যাওয়ার।

ইকুয়েডরের বেলায় যেটা হয়েছে, প্রথম ম্যাচেই সহজ প্রতিপক্ষ পাওয়া ওদের জন্য বিপদের কারণ হতে পারে। কাতারের মতো দলকে (২-০) হারিয়ে নেদারল্যান্ডসের সামনে পরা, এটা বেশ কঠিন। তাই এই ম্যাচে নেদারল্যান্ডস যে ফেভারিট এতে কোনো সংশয় নেই। স্কোর লাইন ১-০ বা ২-১ হতে পারে।

যুক্তরাষ্ট্রের বিপক্ষে ইংল্যান্ড তাদের ফর্মেশনে বদল আনবে কি-না সেটা দেখার বিষয়। ইরানের বিপক্ষে ব্যাক ফোর নিয়ে খেলেছিল। ৪-২-৩-১ ফর্মেশন বলা যায়। যুক্তরাষ্ট্রের বিপক্ষে সেটা ৩-৪-৩ ফর্মেশনও হতে পারে। তবে শুরুর একাদশ হয়তো আগের মতোই হবে। রক্ষণে যেমন হ্যারি ম্যাগুয়ের, জন স্টোনস, লুক শ, কিরান ট্রিপিয়ার ছিল। তাদের ওপরে খেলেছে ডেকলান রিস ও জুড বেলিংহ্যাম। আক্রমণে দুইপাশে খেলেছে সাকা ও স্টার্লিং, মাউন্ট একটু পেছন থেকে সাপোর্ট দিয়েছে। একেবারে টপে ছিল হ্যারি কেইন। বেলিংহ্যামকে নিয়ে আগের কলামেও আমার উচ্চাশার কথা বলেছিলাম। ওকে তরুণ তারকা বলা হয়। তবে ও অনেক পরিণত খেলোয়াড়। যদি সব ঠিকঠাক থাকে তাহলে সে এই বিশ্বকাপের তারকা হবে বলে আমি মনে করি।

ওয়েলসের বিপক্ষে যুক্তরাষ্ট্রের ম্যাচটা ড্র হয়েছিল। সৌভাগ্যবশত ওয়েলস শেষ দিকে পেনাল্টি থেকে গোল করে পয়েন্ট পেয়েছে। তবে এটা যুক্তরাষ্ট্রেরই দোষ। শেষ দিকে গিয়ে যে ফাউলটা করল, ওটার কোনো দরকারই ছিল না। লাইবেরিয়ার প্রেসিডেন্ট ও ব্যালন ডি’অর জয়ী সাবেক ফুটবলার জর্জ উইয়াহর ছেলে টিমোথি উইয়াহ খেলছে যুক্তরাষ্ট্র দলে। প্রথম ম্যাচে তো গোলও করল। তবে ইরানের বিপক্ষে ৬-২ গোলে জয়ের তাজা যে স্মৃতি, সেই আত্মবিশ্বাস খুব কাজে দেবে ইংল্যান্ডকে। ২-০ হতে পারে ম্যাচের ফল।

-- 
ফ্ল্যাট জেতার কুইজে অংশ নিতে এখানে ক্লিক করুন